মধ্যরাতের কৌতুক: হানিমুনে গিয়ে এরশাদ যেভাবে ধরা খেলেন!

২৪৯৭ পঠিত ... ১৮:১৯, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০

অলংকরণ: জেরি-লি বোসম্যানস

এরশাদ সাহেব আর তার স্ত্রী বিদেশে গিয়েছেন হানিমুনে। উঠেছেন চমৎকার একটি হোটেলে। স্ত্রী যখন এলিভেটরের দিকে রওনা হল, খুব সুন্দর একটি মেয়ে এরশাদ সাহেবকে জিজ্ঞেস করলেন, তার কোন স্পেশাল চাহিদা আছে কিনা! কোনধরণের দরকার হলে যেন তিনি জানাতে না ভুলেন। স্ত্রী দূর থােকে মেয়েটিকে দেখে আর তার কথা শুনে খুবই মুগ্ধ হলেন। এলিভেটরে উঠতে উঠতে বললেন, এই বিদেশীদের হোটেল কত ভাল, ব্যবহার কত ভাল...সবার দিকে কী খেয়াল রাখে! এরশাদ সাহেব বললেন, আরে না, এই মেয়েটি একটি প্রস্টিটিউট। স্ত্রী কিছুতেই স্বামীর কথা বিশ্বাস করলেন না। রুমে ঢুকে তিনি স্বামীকে প্রমাণ করতে বললেন। এরশাদ বললেন, আচ্ছা ঠিকাছে। আমি ডেস্কে ফোন করে মেয়েটিকে পাঠাতে বলছি, তুমি লুকিয়ে থাক।

মেয়েটি রুমে ঢুকেই এরশাদ সাহেবকে জিজ্ঞেস করলেন, তিনি কী চান! এরশাদ সাহেব ঘাঘু লােক। সরাসরি কিছু না বলে বললেন, তিনি খুব একা বােধ করছেন, আর সঙ্গী চাই। মেয়েটি বলল, আমার এক রাতের চার্জ ১৫০ ডলার। এরশাদ সাহেব বললেন, অনেক বেশি চাইছ। আমি ২৫ ডলার পর্যন্ত দিতে পারি। মেয়েটি অপমানিত বােধ করে চলে গেল। 

বউ অবাক হলেন। স্বামীর বুদ্ধিমত্তায় আকৃষ্ট হয়ে তিনি স্বামীকে সােহাগে-আদরে ভরিয়ে দিলেন। কিছুক্ষণ পর ডিনারের জন্য তারা গেলেন হােটেলের নীচতলায়। তারা ডিনার করে রুমে ফেরত যাচ্ছেন, এমন সময় আবার সেই মেয়েটির সাথে দেখা। মেয়েটি দেখেই তাচ্ছিল্যের হাসি হেসে এরশাদ সাহেবকে বললেন, ২৫ ডলারে দেখ তােমার কী জুটেছে!

২৪৯৭ পঠিত ... ১৮:১৯, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top