রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টরের কাছে চুল কাটাতে আসছেন রবীন্দ্রনাথ

২৯২ পঠিত ... ১৫:২২, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ ছাত্রের চুল কেটে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিনের বিরুদ্ধে। জানা যায়, চুল বড় রাখায় আগে একবার সতর্ক করলেও যারা চুল কাটেনি তাদেরই এমন পরিস্থিতির শিকার হতে হয়েছে। পুরো বিষয়টি নজর কেড়েছে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের। একটি সম্পূর্ণ ভূয়া সূত্র মারফত জানা যায়, 'নিজের চুল কাটাতে স্বয়ং রবীন্দ্রনাথ রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে রওনা দিয়েছেন।'

chul-katate-aschen-rabindranath-Thumb

কেউ সত্যতা স্বীকার না করলেও কাদম্বরী দেবীর কাছ থেকে কিছুটা ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। একটি ফেক আইডি থেকে বিস্ময় প্রকাশ করে তিনি বলেন, 'সঠিক জানি না, তবে ঠাকুরপো চুলে কোন কাট দিবে এই বিষয়ে আমাকে আজ শুধাইলো। আমি বলেছি, রাহুল কাট দিতে। হয়তো, চুলই কাটাতে গেছে।'

বিষয়টির সত্যতা জানার জন্য আমরা রবীন্দ্রনাথের সাথেও যোগাযোগ করি৷ একাধিক ফেক আইডি থেকে তিনি বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, 'কেউ কোনদিন এমন শাসনমাখা কেঁচি দিয়ে চুল কেটে দেয়নাই বলিয়াই আমার মাথায় এই পাখির বাসাখানি হইয়াছে! আপনারা ভাববেন না, এটা ইচ্ছা করিয়া রাখিয়াছি৷ দীর্ঘদিন জাইতের নরসুন্দর পাই না, এতদিনে সন্ধান পাইছি। চুল দাঁড়ি সব ফালায়া আমি রবীন্দ্রনাথ এবার মানুষের মত মানুষ হবো।'

এ সময়ে ফারহানা ইয়াসমিনকে নেয়া সমালোচনার তীব্র প্রতিবাদ করে রবীন্দ্রনাথ বলেন, 'ফারহানা ম্যাম তুমি করোনিকো ভুল, পোলাপানের কাইটা দিছো চুল। ম্যাম তুমি অনেক কুল।'

নিজের চুল কাটানোর পাশাপাশি ফারহানা ইয়াসমিনকে শান্তিনিকেতনে নিয়োগ দেয়ার বিষয়টিও নিশ্চিত করেন কবিগুরু। শান্তি-নিকেতনের বর্তমান কলাকুশলীদের উপর রাগ ঝেড়ে তিনি বলেন, 'এখানকার পোলাপানগুলারও চুল বড়। এখানেও ফারহানা ম্যামকে আনিবো৷ এরপর পোলাপানের পড়ালেখায়ও উন্নতি হইবে৷ আশা রাখি, চুল কাটার কয়েকদিনের ভেতরেই বিশ্ববিদ্যালয় র‍্যাঙ্কিংয়ে আমরা টপে অধিষ্ঠিত হইবো।'

২৯২ পঠিত ... ১৫:২২, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১

Top