২০৯৫ সালের একদিন

৩৩৯২ পঠিত ... ১৬:০৩, জুন ২২, ২০২২

2095

পদ্মার মা সেতু বেগম পদ্মাকে খুব বকাঝকা করেছেন। রাগ করে পদ্মা বাসা থেকে বের হয়ে পদ্মা ভাই-এর চায়ের দোকানের দিকে হাঁটতে শুরু করল।

রাস্তায় হাঁটতে হাঁটতে পদ্মার দেখা হল ক্লোজ ফ্রেন্ড সেতুর সাথে। সেতুকেও সেতুর বাবা খুব বকাঝকা করেছে।

পদ্মা ভাই-এর চায়ের দোকানে বসে ওরা পদ্মা ব্র‍্যান্ডের সিগ্রেট খেতে খেতে সিদ্ধান্ত নিলো, বাসা থেকে পালিয়ে ওরা পদ্মা বিভাগে চলে যাবে। এমন সময় পদ্মাদের পাশের বাসার সেতু সাহেব চায়ের দোকানে ঢুকলেন। ঢুকেই ওদের দিকে তাকিয়ে বললেন, 'এ্যাই! তুমি পদ্মা সাহেবের ছেলে না?'

পদ্মা ও সেতু দুজনেই একটু অপ্রস্তুত হয়ে বলল, ‘জ্বী আঙ্কেল।‘

এরপর সেতু বলল, 'আঙ্কেল, আপনাকে তো চিনলাম না।' সেতু সাহেব হেসে বললেন, 'তোমাকে বলি নাই মা। পদ্মাকে বলেছি। ওর বাবাই হলেন পদ্মা সাহেব। আর তুমি তো মেয়ে।'

সেতু লজ্জা পেয়ে বলল, 'সরি আঙ্কেল। আমার বাবার নামও পদ্মা আহমেদ। এজন্য কনফিউজড হয়ে গেছি।'

পদ্মা ভাই চা বানাতে বানাতে বললেন, 'আমার বড় কাকার নামও আছিলো পদ্মা। কাকি মারা গেলে কাকায় সেকেন্ড বিয়া করছিলেন। ওই কাকির নামও আছিলো পদ্মা। হেহেহে..'

পদ্মা ভাই এর কথায় কিঞ্চিৎ হেসে পদ্মা সালাম দিলো। সেতু সাহেব সালামের উত্তর দিয়ে পদ্মাকে বললেন, 'তুমি আমাদের বাসায় আসোনা কেন? আমার ছোট ছেলে পদ্মাকে একটু হায়ার ম্যাথটা দেখিয়ে দিতে পারোতো।'

পদ্মা মাথা নিচু করে বলল, ‘হায়ার ম্যাথে ফেইল করেছি বলেই মা আজকে বকেছে আঙ্কেল।‘

সেতু সাহেব ইতস্তত করে বললেন, 'আচ্ছা থাক থাক। তুমি এমনিই এসো। চা খেতে এসো।'

পরিস্থিতি থমথমে দেখে পদ্মা ভাই চিল্লায়া তার সহকারীকে ডাকলেন, 'অয় সেতু! দোহানে কলা ফুরায়া গ্যাছে। বাজারে গিয়া পদ্মা মিয়ার দোকান থেইক্কা কলা লইয়া আয়।'

৩৩৯২ পঠিত ... ১৬:০৩, জুন ২২, ২০২২

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top