মোটিভেশনের কল্যাণে সকালে থেকে রাত পর্যন্ত আমি যেভাবে গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক হয়ে যাই

১১৯০ পঠিত ... ২১:৪৯, জানুয়ারি ১৫, ২০২০

 

সকাল বেলা নিজেকে মনে হয় সোলায়মান সুখন। মোটিভেটেড। মার্ক জাকারবার্গ, বিল গেটস- এরা পারলে তুমিও পারবে! তুফানের বেগে কাজ শুরু হয়।

দুপুরে ভাত খাওয়ার পর মনে হয় আমি আসলে কুদ্দুস বয়াতি। কী হবে এতকিছু করে? এই দিন দিন না। সবই তো শেষ হবে একদিন। এই লোভ লালসার দুনিয়া ত্যাগ করে গা-টা চেয়ারে এলিয়ে দিয়ে সুফি সাধক হয়ে যেতে মন চায়।

বিকাল নাগাদ মনে হতে থাকে আমি আসলে জাফর ইকবাল। স্মার্ট। তাছাড়া একটু ধান্দাবাজ না হলে টেকা খুব মুশকিল। চা/কফি খেতে খেতে শেয়ার মার্কেট, ই-কমার্স, নানা ধান্দা মাথায় ঘোরে।

সন্ধায় রাস্তায় বেরিয়ে বুঝতে পারি, আমি আসলে আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ। কাওরানবাজারের সিগনালে বুটভাজা খেতে খেতে ভাবি, নাহ, আলোকিত মানুষ চাই। বই টই পড়তে হবে। প্রচুর জ্ঞান অর্জন করতে হবে, তবে না সাফল্য আসবে। সফল তো চোরও হয়, আমার দরকার অন্য সাফল্য।

রাত নয়টার দিকে জ্যামে বসে থাকতে থাকতে মনে হয়, আমি কবি সাইয়েদ জামিল। আমার আশেপাশে উপরে নিচে সব 'হাব্লা*দা'।

বাসায় ফিরে মনে হয় সব ভুল। আমি আসলে নায়ক জসিম। সারাদিন ঠেলাগাড়ি চালিয়ে ভাত খেতে বসি, শাবানা ভাত বেড়ে দেয়। মনে মনে ভাবি, এই তো আর কদিন মাত্র, তারপরই লটারি পেয়ে চৌধুরী গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক হলাম বলে!

১১৯০ পঠিত ... ২১:৪৯, জানুয়ারি ১৫, ২০২০

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top