বিপিএলকে জরুরি খবরে আনতেই হারিয়ে গিয়েছি : একান্ত সাক্ষাৎকারে হারিয়ে যাওয়া ড্রোন

৯১৫ পঠিত ... ২১:১১, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯

মহাসমারোহে আলোচনার বাইরে থেকে চলছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ৬ষ্ঠ আসর। শুধুমাত্র খেলা ছাড়া বাকিসব কিছু নিয়েই মোটামুটি আলোচনায় আছে বিপিএলের এই আসরটি। এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে সম্প্রচার কাজে সহায়তা করা একটি ড্রোন হারানোর মাধ্যমে গতকাল আবারো নতুন করে আলোচনায় আসে বিপিএল। বিপিএলে যে ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে তাও এই ঘটনার মাধ্যমে আমরা জানতে পারি।

হারিয়ে যাওয়ার সাথে সাথেই ড্রোন খুঁজে দেয়ার জন্য ১০ হাজার টাকা পুরষ্কারও ঘোষণা করে বিপিএল সম্প্রচার করা প্রতিষ্ঠান। যদিও অনেকে ধারণা করছেন, ম্যাচের ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ নিয়ে যেহেতু আলোচনা নাই, সেহেতু ‘ম্যান অফ দ্য ড্রোন’ দিয়ে আলোচনায় আসাও ট্রিকস হতে পারে। কিংবা হতে পারে মাঠের আশেপাশে কিছু দর্শক নিয়ে যাওয়ার কোন ফন্দি-ফিকির। সে যাই হোক, বিপিএল নিয়ে আগ্রহ না থাকা মানুষজন ড্রোন খোঁজা নিয়েও তেমন আগ্রহ না দেখানোয় শেষতক ড্রোন নিজে নিজেই ফিরে এসেছে মাঠে। আজ জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামের ফ্ল্যাডলাইট পোস্টের পাশে ঝুলতে থাকা ড্রোনকে উদ্ধার করেছে সম্প্রচার প্রতিষ্ঠানটি।

প্রায় ৪৮ ঘন্টার এই লম্বা সফরে কোথায় ঘুরতে গিয়েছিলেন হারিয়ে গিয়েই আলোচনায় আসা এই মহামান্য ড্রোন? কেমন দেখলেন চারপাশ? কোনো দুঃখবোধ থেকেই (নাকি বিরক্তি?) কি বিপিএলকে এভাবে বিদায় বলে হারিয়ে যেতে চাইলেন? এইসবই জানার আগ্রহ ছিলো eআরকি বিপিএল জনপ্রিয়করণ সমিতির (EBPS).

গতকাল রাতে EBPS এর দুই টিম মেম্বার হারিয়ে যাওয়া ড্রোনের সাক্ষাৎকারের জন্য (আসলে খুঁজে দিয়ে টাকা পাওয়ার জন্য) বের হন। পথিমধ্যেই শেওড়াপাড়ায় মেট্রোরেলের একটি পিলারের উপর বসে গালে হাত দিয়ে জ্যাম দেখতে দেখা যায় হারিয়ে যাওয়া ড্রোনকে। ড্রোনকে দেখা মাত্রই জ্যামে থেমে থাকা একটা বাসের ছাদ বেয়ে আমরা উঠে পড়ি পিলারের উপর। আমাদেরকে দেখে কিছু জিজ্ঞেস করার সুযোগ না দিয়ে ড্রোনই আমাদেরকে বলে বসে, 'এত মানুষ কোথায় যায়? খেলা দেখতে? কই, মাঠে তো কাউকে দেখি না! স্টেডিয়ামের আগে কি কোন ব্ল্যাকহোল আছে? জ্যামে বসে থাকা এইসব দর্শককে কি সে গ্রাস করে নেয়?'

'এরা আসলে দর্শক না। এরা মুসাফির! মিরপুরের মুসাফির! সফর শেষে ঘরে ফিরছে। এই মুসাফিরদের জীবনে খেলা দেখার ফুসরত নাই!' আমাদের এমন উত্তরে বেশ হতাশ হয়ে পড়েন ড্রোন। ড্রোনকে চাঙ্গা করার জন্য মোবাইলে বিপিএল উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান চালিয়ে দিয়ে আমরা গল্প করা শুরু করি। জানতে চাই, কোন দুঃখবোধে স্টেডিয়াম ছেড়েছেন তিনি। আমাদের এমন প্রশ্নে বেশ ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি বলেন, 'বা*র দুঃখবোধ! বিরক্তি কন! মাঠে একটা দর্শক নাই। আমাদের মোটিভেশন হইলো দর্শকদের উচ্ছ্বাস। কেউ নাই কিচ্ছু নাই, ক্যামেরা দিয়া কী বা* শ্যুট করমু? পুরাই একা একা থাকি সারাদিন। আগে তো মাঝে মাঝে সুন্দর সুন্দর কাপলদের দেখে কিছুটা ভালো ফিল পাইতাম। এখন তো সিঙ্গেল দর্শকই আসে না, কাপল তো দূরের কথা! আর কিছুক্ষণ ঐখানে থাকলে আমি ডিপ্রেশনে চলে যাইতাম। মিরপুরে তো স্টেডিয়ামে না হোক, রাস্তায় কিছু মানুষ থাকে। চট্রগ্রামে তাও নাই। সেজন্যই মানুষ দেখতে চলে আসছি।'

তার এমন ক্ষুব্ধ চেহারা দেখে আমরা চলে আসতে চাইলে তিনি আবার একা হয়ে যাওয়ার ভয়ে নিজেকে সামলে নিয়ে বলেন, 'আসলে খারাপ লাগে! এইটা নাকি বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা টুর্নামেন্ট! কিন্তু খেলা নিয়া কোন আলোচনা নাই! আলোচনায় থাকার জন্য বিদেশ থেকে সালমান, ক্যাটদের আনা লাগে, ইয়া লম্বা নো বল দেয়া লাগে! সেই আলোচনাও শেষ হয়ে গেছে। ড্রোন হিসেবে আমার তো একটা দায়িত্ব আছে। সেজন্যই আসলে এই বুদ্ধি! কালকে হতাশায় অর্নবের ‘হারিয়ে গিয়েছি’ গানটা শুনতে শুনতেই মাথায় এই বুদ্ধিটা আসে। সেজন্য আমি হারিয়ে গিয়েই বিপিএলকে জরুরী খবরে নিয়ে আসছি! হারিয়ে না গেলে তো আমার খবরও আপনারা জানতেন না!'

'আরো কোথাও যেতে চান কি না?' জানতে চাইলে একটা দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে ড্রোন বলেন, 'ভাবছিলাম আমার আইপিএলের ফ্রেন্ডদের সাথে একটু মিট করতে যাবো। কিন্তু যাবো না আর। এমনিতে বিপিএলে দর্শক নাই! লস হইয়া যাইবো হেগো। মাঠের কোন এক কোনায় যাইয়া ঘুম দিমুনে একটু।'

যেতে যেতে তিনি আমাদের বলেন, 'একটা কথা মনে আসছে, কিছু মনে কইরেন না। এই যে বিপিএলের খেলার চেয়েও আমারে নিয়ে আলোচনা বেশি! বিপিএলের নাম তো ডিপিএল, ‘ড্রোন প্রিমিয়ার লীগ’ হয়ে যাওয়া উচিত, ঠিক কিনা কন?'

৯১৫ পঠিত ... ২১:১১, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top