খুশিতে, ঠেলায়, ঘোরতে ট্রেন্ডে গা ভাসিয়েই মাঠে গড়াগড়ি করতাম : জন্মদিনে বিশেষ সাক্ষাৎকারে নেইমার

১০৪৭ পঠিত ... ০৪:২৬, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০১৯

গত ফুটবল বিশ্বকাপে মাঠে ফুটবল খেলার জন্য না যতটা, তার চেয়ে বেশি গড়াগড়ি কিংবা মাঠে শুয়ে 'ঘোরাঘুরি'র জন্য আলোচিত ছিলেন ব্রাজিলের তারকা ফুটবলার নেইমার জুনিয়র ওরফে নেইমার। আজ নেইমারের জন্মদিনে তাই আমরা নিয়েছি তার একটি বিশেষ কাল্পনিক সাক্ষাৎকার।

 

eআরকি: জন্মদিনের শুভেচ্ছা, নেইমার।

নেইমার : থ্যাংক্স এ লট!

eআরকি : দিন কেমন কাটছে?

নেইমার : তেমন ভালো না।

: বার্সেলোনা ছেড়ে এত শখ করে পিএসজিতে আসলেন, তবুও ভালো লাগছে না?

: এমনিতে ক্লাবটা ভালো আছে। প্যারিস জায়গাটাও ভালো। শুধু বার্সেলোনায় নেই বলে বাংলাদেশের ফেসবুকের ফুটবল গ্রুপগুলোতে আমাকে নিয়ে আলোচনা কমে গেছে, এজন্য মাঝেমধ্যে মন খারাপ লাগে। এছাড়া ভালোই চলছে।

: বিশ্বকাপ ফুটবলের স্মৃতি কি এখনো তরতাজা হয়ে আছে?

: বিশ্বকাপ কি আর অত সহজে ভোলা যায়! প্রতিটা ম্যাচের কথাই মনে পড়ে।

: কোন ম্যাচটি একেবারেই ভুলতে পারেন না?

: সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে ম্যাচটির কথা মনে পড়ে।

: ড্র করেছিলেন বলেই কি?

: না না, তা কেন! ওই ম্যাচেই সবচেয়ে বেশি সময় মাটিতে গড়িয়েছি। মাঠের কচি ঘাসের গন্ধ, স্পর্শ, এখনো যেন গড়িয়ে, সরি, তাড়িয়ে নিয়ে বেড়ায় আমাকে। ম্যাচ শেষে ওই মাঠের কিছু ঘাস আমার কাছে রেখেছিলাম। এখনো প্রায়ই সেগুলো বিছানায় ছড়িয়ে দিই। গড়াতে ভালো লাগে, সাউন্ড স্লিপ হয়।

: গড়ানোর প্রসঙ্গ যখন এলোই, পুরো বিশ্বকাপে আপনি খেলায় মন না দিয়ে পড়ায় মন দিলেন কেন? মানে মাঠে আপনার গড়াগড়ির ব্যাপারটা তো অনেকদূর গড়িয়েছে...

: এই মনে করেন, ভাল্লাগে। খুশিতে, ঠেলায়, ঘোরতে...

: মানে?

: মাঠে হালকা একটু ঠেলায় আমি পড়ে যেতাম। এরপর পড়ে গিয়ে প্রচুর 'ঘোরতাম'। আর এরপর ফ্রি কিক কিংবা ফাউল করা (পড়ুন, ফাউল না করা) প্লেয়ার যখন হলুদ কার্ড পেত, তখন খুশিতে দাঁড়িয়ে পড়তাম। পুরো ব্যাপারটাই তো ভাল্লাগে।

: বাংলাদেশের ফেসবুকের এই ট্রেন্ডের সঙ্গে একাত্ম হয়েই কি...

: অবশ্যই। আমার ফ্যাশন সেন্স সম্পর্কে যাদের ধারনা আছে তারা তো জানেনই, আমি অনেক ট্রেন্ডি।

: দারুণ! সামনের বিশ্বকাপ নিয়ে কী ভাবছেন?

: বিশ্বকাপ জেতার ইচ্ছা ছিল। তবে রিসেন্টলি মৃণাল স্যারের বানানো মেসি ভাইয়ের ভাস্কর্যটা দেখে সেই ইচ্ছা সংকল্পে পরিণত হয়েছে।

: সেটা কেমন?

: মেসি ভাই বিশ্বকাপ না জেতার কারণেই মে বি তার অমন ভাস্কর্য বানিয়েছেন মৃণাল স্যার। এরপরও কি আর বিশ্বকাপ না জেতার রিস্ক নেয়া যায়? ইটস নাউ এ ডু অর ডাই সিচুয়েশন...

: আগাম শুভকামনা রইলো। শেষ প্রশ্ন, পরবর্তী বিশ্বকাপেও কি আপনাকে মাঠে এমন খুশিতে ঠেলায় ঘোরতে দেখা যাবে?

: ততদিন এই ট্রেন্ড থাকবে বলে মনে হয় না। আশা করছি, বাংলাদেশের ফেসবুকের কোনো নতুন ট্রেন্ড নিয়ে আসবো আগামী বিশ্বকাপে। পাঠকদের প্রতি অনুরোধ, নিত্যনতুন অনলাইন ট্রেন্ড সম্পর্কে জানতে ততদিন eআরকি পড়ুন!

১০৪৭ পঠিত ... ০৪:২৬, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০১৯

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top