দ্যা মাইটি সিঙ্গারা: একটি সাম্যবাদী খাদ্যের গল্প

২৭৯ পঠিত ... ১৫:০৮, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০২১

The-Mighty-Shingara

সিঙ্গারা আপনি যেখানে সেখানে খেতে পারবেন না৷ ভুল বললাম! খেতে হয়তো পারবেন তবে যেখানে সেখানে খেলে সিঙ্গারার আদি ও আসল স্বাদ আস্বাদন করতে পারবেন না। মুখে হয়তো দিবেন সিঙ্গারা, কিন্তু মনে হবে ভাতের উপর চাপ কমাতে আলু খাচ্ছেন!

কোথাও বেড়াতে গেলে নাস্তার সাথে সিঙ্গারা দিলে সেই সিঙ্গারায় কখনোই সিঙ্গারার স্বাদ পাওয়া যাবে না৷ সে যত উন্নত প্রযুক্তি কিংবা প্রক্রিয়াতে তৈরি সিঙ্গারাই হোক না কেন!

কাঁচ ঘেরা এসির মোলায়েম বাতাসের রুমে বসে পিজ্জা, বার্গার, স্যান্ডউইচের মতো চৌধুরী সাহেবদের ইয়াম ইয়াম করে খেতে পারবেন। কিন্তু এসির মোলায়েম বাতাসে সিঙ্গারার মত গরিব ঘরের সন্তান রাজুকে খাওয়ার কথা কল্পনা করলেও আপনার জিহ্বা বাদী হয়ে আপনার নামে মানহানি করার দায়ে কোটি টাকার মামলা করে দিতে পারে৷

দুপুর সকালের মাঝের সময়ে অফিসে যে সিঙ্গারা খাওয়া হয় সেখানে সিঙ্গারার বড়জোর ৩৭% স্বাদ আপনি পেতে পারেন।

সিঙ্গারার আদি, আসল ও মাতাল করা স্বাদ পেতে হলে আপনাকে দু-পা এগিয়ে একটু বাইরে আসতে হবে। খুঁজতে হবে রাস্তার পাশের কোন দোকান। যেখানে বড় কড়াইতে ঝুমঝুম শব্দের মোহাবিষ্ট সুরে ভাজা হচ্ছে গরম গরম সিঙ্গারা। যেখানে একটা দুটো টেবিল হয়তো থাকবে কিন্তু সেগুলো পড়ে থাকবে অযত্নে, অবহেলায়৷ এখানে কদর কেবল সিঙ্গারার৷

কড়াইয়ের পাশে দাঁড়িয়ে সিঙ্গারা খাচ্ছে শহরের বিশিষ্ট সিঙ্গারাখোররা। এই দলে অফিসের বস আছে, নতুন যোগ দেয়া ছেলেটা আছে, বেকার যুবকটা আছে, আছে সদ্য প্রেম হওয়া কপতি, তারই পাশে হয়তো আছে সদ্য ব্রেকাপ হওয়া কেউ ব্রেকাপের কষ্ট ভুলতে এসে সিঙ্গারা খাচ্ছে, আছে রিক্সাওয়ালা মামা, দুএকটা ছিন্নমূল মানুষ ও আরো অনেকে। ধনী-গরিবের কোন ভেদাভেদ এখানে নেই৷ সবাই একমনে ছড়িয়ে ছিটিয়ে কড়াইয়ের পাশে দাঁড়িয়ে সিঙ্গারা খায়৷ দুটো খাওয়ার পর আনমনেই আরো একটা হাতে নিয়ে নেয়। মুখে গন্ধ হওয়ার সাহেবি ভয়কে পাশ কাটিয়ে সিঙ্গারার সাথে কচকচ করে চাবাতে থাকে দ্য মাইটি পেয়াজ৷

রোদ না ওঠা শীতের আর্লিদুপুরে আদর্শ সিঙ্গারাখোরদের মন খারাপ হয়। আর্লিদুপুরের এই সময়ে বৃষ্টিও তাদের মন খারাপ করে দিতে পারে। কারণ সিঙ্গারার সাথে রোদের একটা বিশেষ সম্পর্ক আছে। এটাকে বলা যেতে পারে গরম-গরম সম্পর্ক৷ সিঙ্গারা খাওয়ার দুপুর আসি আসি এই সময়টায় রোদের তেজ যত বেশি থাকবে সিঙ্গারার স্বাদ ততটাই বেড়ে যাবে৷ মাথার উপর কড়া রোদে গরম সিঙ্গারা মুখে দিতেই মোলায়েম আলুর ভেতর লুকিয়ে থাকা গোলায়েম গরমে জিহ্বা পোড়াবেন৷ সিঙ্গারা খাওয়ার এইতো সুখ! আলুর গরমে জিহ্বা পোড়াতেও সুখ, মুখ সুচালো করে মুখের ভেতরের গরম বের করতেও সুখ৷

২৭৯ পঠিত ... ১৫:০৮, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০২১

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top