খেতে খেতে টানা ৮টি আম খেলে যা ঘটতে পারে: আম বিশেষজ্ঞের পরামর্শ

৪৩৪ পঠিত ... ০৭:১৯, জুন ২৯, ২০২০

এই চিড়বিড়ে গরমে দেহ-মনে প্রশান্তি আনতে আম খাবেন। অবশ্যই খাবেন। কিন্তু সাত-আটটা, আচ্ছা আরেকটু নির্দিষ্ট করে বললে, আটটা আম এক বসায় খেয়ে ফেললে কী হবে?  

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, পাকা আম খেলে ভিটামিন এ, বি, সি সহ আরও অনেক উপকারি উপাদান পাওয়া যায়। তবে, আমে কিন্তু চিনির পরিমাণও অত্যধিক! কাজেই, রক্তেও চিনি থাকলে বেশী আম না খাওয়াই ভালো। গ্লুকোজ টুকোজ বেড়ে বিশ্রী ব্যাপার হতে পারে।

শুধু ডায়াবেটিস না, যারা অ্যাজমাতে ভুগছেন তারাও ‘অষ্ট আম হইতে অষ্ট হস্ত দূরে’ থাকুন। কিডনি রোগীর ব্যাপারেও ওই একই নিদান।

এই করোনায় ঘর-বাড়িতেই আছেন বেশিরভাগ মানুষ। ঘরের স্বাস্থ্যসম্মত খানাখাদ্য খেয়ে খেয়ে অনেকেরই শরীর-স্বাস্থ্যে টইটুম্বুর অবস্থা। এমন স্বাস্থ্য নিয়ে আমের দিকে বেশি হাত না বাড়ানোই ভালো। না হলে আম-জনতার স্বাস্থ্য কাঁঠাল-জনতায় পরিণত হতে খুব বেশি সময় লাগবে না!

এইসব তো গেলো ডাক্তারি পরামর্শ। সেটাও সরাসরি ডাক্তারি পরামর্শ না। নেট-টেট ঘেঁটে ডাক্তাররা যেসব বলেন, সেসব আপনাদের সামনে তুলে ধরা। এবার আম-জনতার ঘটনা শুনুন। আমের সময় দু’টা আম ভেঙে মুখে দেবেন না? বলি, কী এমন পাপ করেছেন জীবনে? আর আম খাওয়ার পূণ্যে পাপ যদি করেও থাকেন, সেটা বাপ বাপ করে পালাবে।

কাজেই, কাঁটা চামচে করে টুকটুক করে আম খাওয়া বাদ দিন। আম খাবেন বড় গামলায় নিয়ে। হাত দিয়েই আম ছুলবেন। তারপর গাপুস গুপুস করে আম খাবেন, নাকি হুমহাম করে খাবেন, নাকি আমের রসে গোসল করবেন- সে আপনার রূচি। আটটা খান আর আশিটা খান, কী আসে যায় বলুন তো?

খালি, দু’টো ছোট্ট পরামর্শ। মানবেন কিনা সে সিদ্ধান্ত আপনার। 

এক, আম খেলে সাথে আঁটিটাও খেয়ে ফেলবেন না। ফলের বিচি খেয়ে ফেললে মাথা দিয়ে চারা গজায়- ছোটবেলার এ অমোঘ সত্য যদি সত্যি সত্যিই ফলে যায়, রেহাই নেই!

দুই, কিঞ্চিৎ বেশি আম যদি খেয়েও ফেলেন, ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিতে যাবেন না। জাতীয় দৈনিকগুলি ইদানিং কিন্তু বেশ খবরের খরায় ভুগছে!

 

আরও পড়ুন

শবনম ফারিয়া যে ৮ রকম স্ট্যাটাস দিলে প্রথম আলো যেমন শিরোনামে খবর ছাপাতো

৪৩৪ পঠিত ... ০৭:১৯, জুন ২৯, ২০২০

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top