শীত নিয়ে ১০টি হাড় কাঁপানো কৌতুক

৭৯৩ পঠিত ... ১৮:২৯, জানুয়ারি ১০, ২০২৩

শীত-নিয়ে-১০টি-হাড়-কাঁপানো-কৌতুক

১#

প্রেমিক: আচ্ছা জান, বলো তো কী করলে তুমি বিশ্বাস করবে, আমি সত্যি তোমাকে ভালোবাসি।

প্রেমিকা: বেশি কিছু না, মাত্র দুটি কফি অর্ডার দাও। একটি হট এবং অন্যটি কোল্ড কফি উইথ বরফ কুচি।

প্রেমিক: এই শীতে একটা কোল্ড কফি কেন! দু’টোই হট নেই?

প্রেমিকা: না, একটা হট আর একটা কোল্ড। হট কফিটা আমার জন্য, আর কোল্ড কফিটা তুমি খাবে।

কোল্ড কফিটা খেয়ে শেষ করতে পারলে আমি বুঝে নেবো, সত্যিই তুমি আমাকে ভালোবাসো।

প্রেমিক: অসম্ভব! আজ থেকে আমরা দুজন ফ্রেন্ড। জাস্ট ফ্রেন্ড। অন্য কিছু নয়!

 

২#

শীতের রাতে নিঃসঙ্গ পথিকের পথ আগলে ধরল এক ছিনতাইকারী, ‘যা আছে বাইর কর। দেখছস, কত্ত বড় চাকু!’

পথিক: ভাই, আজকাল তো অফারের যুগ! একটা অফার অন্তত দেন।

ছিনতাইকারী: অফার! আচ্ছা যা, একটা অফার তোকে দিচ্ছি। এই যে সামনে পুকুরটা দেখছিস এই পুকুরে নেমে পরপর সাতটা ডুব দিবি। তাহলে তোকে ছেড়ে দেবো।

পথিক: কী যে বলেন ভাই, এরচেয়ে আপনার প্রথম অফারটাই অনেক ভালো।

 

৩#

: কীরে, তুই এই শীতে ঘরের এক কোনায় বসে কাঁপতেছিস কেন?

: আরেহ, কোণের মান ৯০ ডিগ্রি তাতেই এতো শীত! মাঝখানে গেলে তো ১০ ডিগ্রিতে মারাই যাব।

 

৪#

ছোট ভাই গলা ফাটিয়ে শীতকালের রচনা পড়ছে, ‘পৌষ ও মাঘ মাস এই দুই মাস মিলে শীতকাল। এই সময় যুবক ছেলেদের একা একা থাকতে অনেক কষ্ট হয়।‘

আব্বা পাশে বসে পেপার পড়ছিল, ছোট ভাইয়ের শীতকালীন রচনা শুনে পেপার রেখে লাফ দিয়ে উঠলো…

: তুই কী পড়িস?

: আব্বা, শীতকালীন রচনা পড়ি।

: এই রচনা কোন বইয়ে লিখছে?

: আব্বা, বইয়ে এই রচনা নাই। স্যার বলেছে এবার পরীক্ষায় রচনা আসবে ‘শীতকাল।‘ তাই বড় ভাইয়ের কাছে থেকে এই রচনা লিখে নিয়েছি।

 

৫#

শফিক: আম্মু, আমার অনেক শীত করে!

মা: কম্বলটা নামিয়ে নে।

শফিক: আম্মু, তাও শীত করে!

মা: আরেকটা কম্বল নামিয়ে নে।

শফিক: দুইটা কম্বল নিয়েও শীত কমছে না আম্মু।

শফিকের বাবা: ওরে বলে দাও, ও যে কম্বল চাইতেছে সেটা আগামী ৩ বছরের আগে পাবে না।

 

৬#

শীতের এক সকালে পল্টু, বল্টু জমজ দুই ভাই বসে আছে। পল্টু হেসেই যাচ্ছে অন্যদিকে বল্টু কেঁদেই যাচ্ছে।

বাবা: কীরে পল্টু তোরা একজন হাসছিস অন্যজন কাঁদছিস কেন?

পল্টু: আম্মু আমি মনে করে, বল্টুকেই দুইবার গোসল করিয়ে দিয়েছে আজ।

 

৭#

রাতুল আর তানভীর কথা বলছে…

রাতুল: তানভীর বল তো এই শীতে তুই চোখ বন্ধ করে চাইলেই কী অনুভব করতে পারবি?

তানভীর: কী?

রাতুল: ঠাণ্ডা।

 

৮#

সদ্য বিয়ে করেছে শফিক। রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর বিছানায় আসলেও বউ এখনও বিছানায় আসছে না।

শফিক: মা, কম্বল কই?

মা: বিছানায়ই আছে বাবা।

শফিক কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে আবার বলল, ‘মা কম্বল কই?’

মা: বিছানায়ই আছে, খুঁজে নে।

শফিক: নাই তো মা।

এবার শফিকের বাবা বিরক্ত হয়ে বলে উঠলেন, ‘কম্বল খাচ্ছে, আপাতত বিছানায় যেটা আছে সেটা নিয়েই থাক।‘

 

৯#

বউ: তোমাকে নিয়ে আমি খুবই হতাশ। আমি তোমাকে ডিভোর্স দেব।

জামাই: কেন? আমি আবার কী করলাম?

বউ: আমি যখন বিয়ের আগে একদিন ফার্মেসিতে গেছিলাম তুমি সেদিন ফার্মেসিতে যেয়ে, এক্স এক্স এক্স এক্স এল সাইজের কনডম চাইছিলা। তাই আমি তোমাকে বিয়ে করেছিলাম।

জামাই: হ্যা, তো এখন কেন ডিভোর্স দিবা?

বউ: কারণ আমি ওইদিন বুঝি নাই তুমি শীতে কাঁপতে কাঁপতে এতবার এক্স এক্স এক্স বলছিলা।

 

১০#

শীতে জমে গিয়েছি, তাই জোক টাইপ করতে পারছি না।

৭৯৩ পঠিত ... ১৮:২৯, জানুয়ারি ১০, ২০২৩

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top