'সেলফি' শব্দটি কোথা থেকে এসে এমন জনপ্রিয় হয়ে উঠলো?

৩৫৯ পঠিত ... ১৬:১১, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১

selfie

কিছু শব্দ আছে যেগুলোর কোনো ল্যংগুয়েজ ব্যারিয়ার নেই। যেমন- Ehh! প্রায় সব ভাষার মানুষ এই শব্দটির মানে বুঝতে পারেন। এমন অরেকটি সার্বজনীন শব্দ হচ্ছে ‘সেলফি’। এখনকার স্মার্টফোনগুলোতে ফ্রন্ট ক্যামেরা বা সেলফি ক্যামেরা আসার আগেও মানুষ সেলফি তুলতো। তবে সেজন্য একটু খাটুনির দরকার হতো। মোবাইলের ব্যাক ক্যামেরাকে নিজের মুখের দিকে ঘুরিয়ে আন্দাজ করে নিজের চেহারার ছবি তুলতে হতো! অধিকাংশ সময়ই সেসব ‘সেলফি’র ফ্রেম ঠিক থাকতো না। তবে স্মার্টফোনে সেলফি ক্যামেরা সংযুক্ত হওয়ার পর এক্ষেত্রে একটা বিপ্লব হয়েছে। নিজের ছবি নিজেই তোলার বিষয়টিকে মানুষ ভিন্ন উচ্চতায় নিয়ে গেছে। কিছু কিছু মানুষ অতিরিক্ত সেলফি তোলেন, তারা সেলফি তোলাকে নেশার পর্যায়ে নিয়ে গেছেন। অনেকে তো অ্যাডভেঞ্চারাস সেলফি তুলতে গিয়ে নিজের জীবনকে মৃত্যুর হাতেও সঁপে দিয়েছেন!

কিন্তু যে যুগান্তকারী শব্দটি মিলেনিয়াল এবং তার পরবর্তী প্রজন্মকে আচ্ছাদিত করে রেখেছে, সেই ‘সেলফি’ শব্দটি কোথা থেকে এলো?

২০১৩ সালে অক্সফোর্ড ডিকশনারি কর্তৃপক্ষ Selfi-কে সে বছরের ‘ওয়ার্ড অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত করে। একটি জরিপে দেখা গিয়েছিল, ২০১২ সালে ইংরেজি ভাষায় ‘Selfi' শব্দটির ব্যবহার বেড়েছে প্রায় ১৭ হাজার শতাংশ!

২০১৩ সালে অক্সফোর্ড ডিকশনারি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিলো Selfi শব্দটি প্রথম ব্যবহৃত হয়েছিল অস্ট্রেলিায়, ২০০২ সালের একটি ABC forum post এ। এই শব্দটির পরবর্তী ব্যবহারও হয়েছিল অস্ট্রেলিয়াতেই, ২০০৩ সালে প্রকাশিত একটি ব্লগপোস্টে। 

most retweet selfie

অক্সফোর্ড ডিকশেনারির একজন সম্পাদক ক্যাথরিন মার্টিন তখন বলেছিলেন সেলফি শব্দটির কনটেক্সট দেখলেও অনেকটা বোঝা যায় যে এটির  উৎপত্তি অস্ট্রেলিয়াতেই। ইংরেজি ভাষাকে ও এই ভাষার বিভিন্ন শব্দকে আরও সংক্ষেপিত ও আকর্ষণীয় করতে অস্ট্রেলিয়ানদের কোনো তুলনা নেই... ক্যাথরিন মার্টিন সেলফি শব্দটির উৎপত্তির ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ানদের এই প্রবণতার দিকেই ইঙ্গিত করেছেন। 

সেলফি শব্দটির শেষ দুটি অক্ষর 'ie', অস্ট্রেলিয়ানরা স্ল্যাং বা গালি হিসেবে সাধারণত যেসব শব্দ ব্যবহার করে, সেগুলোর শেষ দুটি অক্ষরও 'ie'. তবে শব্দের শেষে ie থাকলেই যে সেগুলো সবসময় স্ল্যাং হিসেবে ব্যবহৃত হয়, ব্যাপারটা তেমনও না। 

আগেও বলেছি, বড় শব্দকে ছোট ও আকর্ষণীয় করতে অস্ট্রেলিয়ানদের কোনো তুলনা নেই।  barbecue কে তারা সংক্ষেপে ডাকে barbie, firefighter কে firie, Avocado কে Avo, Kangaroos কে Roos, Sandwitch কে ‍Sanga, McDonald's কে Maccies, Afternoon কে ‍Arvo, Definitely কে Defo, Ciggerate কে Ciggy, Melbourn Cricket Ground কে The G, Breakfast কে Brekkie, Football কে Footy  নামে ডাকে। 

এরই ধারাবাহিকতায়  self-portrait photograph কে অস্ট্রেলিয়ানরা নাম দিয়েছে Selfi.

৩৫৯ পঠিত ... ১৬:১১, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top