আগামী অলিম্পিকে ভারোত্তোলনে অংশ নিতে যাচ্ছেন সাকিব আল হাসান

২১৫ পঠিত ... ১৫:৩৩, জুলাই ০৭, ২০১৯

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল প্রত্যাশা পূরণ না করতে পারলেও সাকিব আল হাসান এই বিশ্বকাপে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। ম্যাচের পর ম্যাচে রান করে এবং উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের ভার যেন একলা সাকিবই বহন করেছেন। আর তাই ২০২০ টোকিও অলিম্পিকে সাকিবকে দেখা যেতে পারে ভারোত্তোলনে অংশ নিতে। আজ একটি অবিশ্বস্ত সূত্র থেকে এমনটাই জানা গেছে।

 

এই খবরে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে বাংলাদেশের ক্রীড়াজগতে। পেশাদার একজন ক্রিকেটার ভারোত্তোলনের মতো একটি খেলায় নাম লেখাবেন, তাও আবার সরাসরি অলিম্পিকের মতো আসরে, এ নিয়ে বেশ উত্তেজনা বিরাজ করছে খোদ বৈশ্বিক ক্রীড়াজগতেই।

কখনোই ভারোত্তোলন না খেলা একজন খেলোয়াড় অলিম্পিকে অংশ নিতে পারবে কিনা, এমন তথ্য নিশ্চিত করতে আমরা যোগাযোগ করেছিলাম আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সাথে। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা eআরকিকে বলেন, ‘আপনারা ভুল বলেননি। অলিম্পিকে অংশ নিতে হলে বেশ অনেকগুলো পর্যায়ের মাধ্যমে একজন অ্যাথলেটের নিজেকে প্রমাণ করতে হয়।’ তবে কি সাকিবকে এখন ক্রিকেট ছেড়ে ভারোত্তোলনে নাম লেখাতে হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আমাদের আশ্বস্ত করে বলেন, ‘না, সাকিব আল হাসান সরাসরি অলিম্পিকের মূল পর্বে অংশ নিতে পারবে। তার জন্য কোন বাছাই পর্ব থাকছে না।’ 

একজন অপেশাদার খেলোয়াড় কী করে সরাসরি মূল পর্বে প্রতিযোগিতা করবেন, এর উত্তরও তিনি দেন, ‘দিনের পর দিন বাংলাদেশ দলের ভার তো সাকিব একাই বহন করে যাচ্ছে। আর এই বিশ্বকাপে সাকিব যা করেছে, তারপর সাকিবকে বাছাই পর্বে খেলানোর কোন সুযোগ নেই আমাদের। এটি হতেই পারে না। টোকিওতে সাকিব সরাসরি খেলতে পারবে।’ 

তবে বিশালদেহী সব ভারোত্তোলকদের মাঝে কেমন করতে পারবেন সাকিব? এমন প্রশ্ন করেছিলাম অলিম্পিকে ভারোত্তোলনে অসংখ্য স্বর্ণজয়ী এক ভারোত্তোলকের (নামটা মনে নাই! ভারোত্তোলনে স্বর্ণজয়ীর নাম কে জানে বলেন?) সাথে। তিনি eআরকিকে বলেন, ‘আমাদের খেলার মূলমন্ত্র হচ্ছে কয়েকশ কেজি ওজনের ভার তোলা! বিশ্বকাপে সাকিবকে দেখলাম সমগ্র বাংলাদেশ তথা পাঁচ টনের ভার তুলতে। আমার ধারণা, সাকিব যেমন অলরাউন্ডার, উনি ভারোত্তোলনে আসলে স্বর্ণপদকেও কুলাবে না, প্লাটিনাম ইউরেনিয়াম দিয়ে নতুন পদক বানাতে হবে।’

এ ব্যাপারে জানতে বিসিবিতে যোগাযোগ করা হলে একজন কর্মকর্তা মুচকি হেসে বলেন, ‘হেহে, মাশরাফির পর তো সাকিবই অধিনায়ক হচ্ছে, এরপর পাঁচ টনের বদলে দশ টন ওজন টানতে টানতে উনার অতদূর ফিটনেস থাকে কিনা, দেখেন আগে। সাকিবের উপর আরও দ্বিগুণ ভার দেয়ার ব্যাপারে আমরা বদ্ধপরিকর।'

২১৫ পঠিত ... ১৫:৩৩, জুলাই ০৭, ২০১৯

Top