আমার স্বামী যেভাবে সবকিছু ঠিকঠাক মনে রাখে

১৭১৩ পঠিত ... ১৭:৫৫, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৯

অলংকরণ: মুবতাসিম শাবাব

আপনারা যে কেন আফসোস করে বলেন ছেলেরা কোন দিবস মনে রাখতে পারে না, আমি তাই বুঝি না। কই, আমার স্বামী তো ঠিক ঠিক সব মনে রাখে।

আমাদের বিবাহ বার্ষিকী মে মাসের পনের তারিখ। আমি ফেব্রুয়ারির ২ তারিখে তাকে বললাম, চল মে তে আমাদের এ্যানিভার্সারিতে আমরা কক্সবাজার যাই।
সে বলল, ঠিক আছে।
মার্চের ৭ তারিখে আমি তাকে বললাম, 'চল কক্সবাজার যাওয়া উপলক্ষে কিছু কাপড় কিনি।'
সে বলল, 'ঠিক আছে চল'
এপ্রিলের ১৫ তারিখে আমি বললাম, 'শোন তুমি হোটেল বুকিং দাও, আমি গাড়ি বুকিং দেই।'
সে বলল, 'ঠিক আছে।'
মে'র ১৪ তারিখ রাত দশটায় আমরা গাড়িতে উঠলাম। রাত বারোটা বাজলে আমি তাঁকে অত্যন্ত রোমান্টিক ভঙ্গীতে বললাম, 'আমার খুব ভাল লাগছে, কি সুন্দর একটা যাত্রা, হ্যাপি এনিভার্সারি।'

তার চোখে খানিকটা দ্বিধা দেখা গেলেও পরক্ষণেই সে সামলে নিয়ে বলল, 'হ্যাপি এনিভার্সারি ডিয়ার, দেখো না সময় কত দ্রুত চলে যায়, আমার মনে হচ্ছে এই সেদিন তুমি লালশাড়ি পড়ে কপালে লাল টিপ দিয়ে আমাদের বাসায় এলে আর এর মাঝে এক বছর চলে গেছে, সে রাতে কি গরমটাই না পড়েছিল, মে মাসের কাঠফাটা গরম।'
আমি হালকা একটা দীর্ঘশ্বাস ফেলে বললাম, হুম।

তাকে এ্যানিভার্সারি মনে রাখার জন্য ধন্যবাদও দিয়েছিলাম কিন্তু আমি তাকে বলিনি যে আমার বিয়ের শাড়ির রঙ গোলাপি, আমি কপালে কোন টিপ পড়িনি, আর সেদিন খুব বৃষ্টি হচ্ছিল আমরা একটা পাতলা কাঁথা নিয়ে খুব বিপদে পড়েছিলাম, সবচেয়ে বড় কথা, আমাদের বিয়ে হয়েছে তিন বছর।

বি:দ্র: কক্সবাজার গিয়ে তার ব্যাগ থেকে একটা শাড়ির প্যাকেট উদ্ধার হইছে, উপরে লেখা 'হ্যাপি বার্থ ডে'!

১৭১৩ পঠিত ... ১৭:৫৫, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৯

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top