আব্বার নাক, দাঁত, লাইট ও সবুজ ফুলের সাথে আমার ভিডিও কথোপকথনগুলো যেমন হয়

২৫৮৬ পঠিত ... ১৬:৩৬, মে ০৩, ২০১৮

আমার আব্বা ভিডিও কল দেয়া মানে একটা আতংক। সে ইনসেটে নিজেরে কেমন লাগতেছে এ ব্যাপারে কোনো ধরনের পাত্তা দেয় না!

কল রিসিভ করার পর পর দেখা যায় আব্বার নাক আর কপাল আমাকে প্রশ্ন করতেছে,

'মা কেমন আছো?'

'আব্বা ক্যামেরাটা ঠিক করে ধরো!'

আব্বা ক্যামেরা ঠিক করে ধরার পর আব্বার নাকের ফুটা আরো বড় করে দেখা যায়। একদিন নাকের ফুটা দেখতে দেখতে আব্বাকে বললাম,

'আব্বা আমার মনে হইতেছে তোমার দুই নাকের মাঝখানের পর্দা একদিকে বেশি সরে আসছে,নাক কান গলার ডাক্তার দেখাইয়ো তো!'

এভাবে ভিডিও কলের সহযোগিতায় আব্বার নাকের সমস্যা ধরা পড়ে এবং চিকিৎসা হয়। বলুন আলহামদুলিল্লাহ।

আব্বা কল করলেই আমার ছেলে বলে, 'আম্মু, নানাল নাক কল কত্তেছে...'

অলংকরণ: সালমান সাকিব শাহরিয়ার

একবার কল রিসিভ করার পরপর দেখা গেলো একটা লাইট। আব্বা অনেক চেষ্টা করেও নিজের মুখের কোনো অংশ সামনে আনতে পারল না। আমি লাইটের সঙ্গে ঘর সংসারের আলাপ করলাম।

লাইট: তোর ছেলে কি খুব জ্বালায়?
আমি: না আব্বা, আমি ওরে জ্বালাই!

লাইট হাসতে থাকলো। স্ক্রিনের সাথে সাথে লাইট নড়তেছে।

আরেকদিন আব্বার দাঁত কল দিলো-
আমি: আব্বা কি আজকে লাল শাক দিয়া ভাত খাইছ?"
আব্বার দাঁত: কেমনে বুঝলি?
আমি: ইনসেটে তাকাও,তাইলেই বুঝবা।
আব্বার দাঁত: দেখছি দেখছি, হা হা হা!

কালকে রাতে ফোন দিছিল আব্বার বিছানার চাদরের সবুজ ফুল।
সবুজ ফুল: তুই কই?
আমি আব্বারে ত্যাক্ত করার জন্য আমার চাদরের মিকি মাউসের দিকে তাক করাইয়া হেড ফোনে কথা বলতেছি।
মিকি মাউস: এই যে আমি!
সবুজ ফুল: কই দেখিনা তো...
মিকি মাউস: কেন দেখবা না! এই যে আমি!
সবুজ ফুল: ক্যামেরা ঠিক করে ধর!
মিকি মাউস: আগে তুমি।
সবুজ ফুল: ধরছি!

ফোন হাতে নিয়া দেখি আব্বার দাড়ি।

জানা গেলো আব্বার দাড়ি ভাল আছে। ঔষধ খাইছে। এখন ঘুমাবে।

২৫৮৬ পঠিত ... ১৬:৩৬, মে ০৩, ২০১৮

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি

স্যাটায়ার


Top