টিকার মেসেজ দ্রুত হাজির করতে তন্ত্রমন্ত্র ঝাড়ফুকের আশ্রয় নিলেন কাশেম

২৩৮ পঠিত ... ১৫:২৭, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০২১

Jadutona-tikar-sms-thumb

রেজিস্ট্রেশন করার পর অধীর আগ্রহ নিয়ে মিনিটের পর মিনিট ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকলেও এখনো মেসেজ আসেনি কাশেমের। নানান জায়গায় তদবির, তবারক বিতরণ, মিলাদ, বুজুর্গ লোক কর্তৃক দোয়ার আয়োজন করেও কাশেম পায়নি মেসেজের দেখা৷ সর্বশেষ এক প্রকার বাধ্য হয়েই কামরুখ-কামাখ্যায় গিয়ে তন্ত্রমন্ত্র ও ঝাঁড়ফুকের আশ্রয় নিতে হয়েছে কাশেমকে।

এ বিষয়ে কাচের আয়নায় মন্ত্র পড়ে ফু দিয়ে কামরুখ কামাক্ষায় অবস্থান করা কাশেমের সাথে যোগাযোগ করি আমরা৷ বিড়বিড় করে মন্ত্র পড়তে থাকার ফাঁকে একটু থেমে তিনি বলেন, 'রেজিস্ট্রেশন করার পর বিয়ে করলাম, বউ প্রেগন্যান্ট হইলো, এক্স ফিরে আসতে চেয়ে মেসেজ দিলো, কিন্তু টিকার মেসেজ আর আসে না৷ টিকার মেসেজের চিন্তায় চিন্তায় নাওয়া-খাওয়া সব বন্ধ করে মোবাইল নিয়ে বসে থাকি। রবি অফার আসে, জিপি অফার আসে, উন্নয়নের জোয়ারে দেশ এগিয়ে যাওয়ার মেসেজ আসে, কিন্তু টিকার মেসেজ আর আসে না। সেজন্য বাধ্য হয়েই কামরুখ কামাক্ষায় এসেছি।'

তবে দুঃখের বিষয় হলো, কামরুখ কামাখ্যায় গিয়েও কাঙ্ক্ষিত সমাধান পাননি কাশেম। জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'এখানকার বাঘা বাঘা সব সাধুর কাছে গিয়েছি। তারা নিজেরাও এখনো নিজেদের টিকার মেসেজ পাননি। তবে হিমালয়ে গুহায় অবস্থান করা এক সাধুর সন্ধান দিয়েছেন তারা৷ এখানকার সাধুদের সাথে আগামীকাল আমরা হিমালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দিবো৷ দোয়া রাইখেন।'

হিমালয়ে যাওয়ার খবরে ভিপি ও পার্সেল যোগে কাশেমকে নিজের টিকা কার্ডটি দিয়ে আমাদের প্রতিনিধি একটু সাহায্যের আবেদন করেন৷ যদি কোনভাবে তার মেসেজ আসারও ব্যবস্থা করা যায়৷ তবে কাশেমের পাশ থেকে হিমালয় ফেরত এক সাধু জানান, 'জন্ম, মৃত্যু, বিয়ে ও টিকার মেসেজ উপরওয়ালার হাতে৷ অপেক্ষা করেন। তন্ত্রমন্ত্র কইরা লাভ নাই।'

২৩৮ পঠিত ... ১৫:২৭, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০২১

Top