যে সকল সম্ভাব্য কারণে ছাত্রলীগ রাতের আঁধারে বুয়েটে গিয়েছে

৭৫০ পঠিত ... ১৪:৩৪, মার্চ ৩০, ২০২৪

11 (5)

ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ হলেও বুয়েট ক্যাম্পাসে গভীর রাতে প্রায় শতাধিক রাজনীতিতে সক্রিয় সদস্য সেমিনার রুমে প্রবেশ করে এবং ঘণ্টাধিক সময় ব্যয় করে। এর প্রতিবাদে বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা নানান দাবিতে ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ ও নানান কর্মসূচী পালন করছে। কিন্তু পৃথিবীতে এর জায়গা থাকতে ছাত্রলীগকে কেন গভীর রাতে বুয়েটে আসতে হয়েছে? কী ছিল সেই কারণ? তেমন কিছু সম্ভাব্য কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছে eআরকি।

 

০১.

আটাশ তারিখ মধ্যরাতে গুগল আবহাওয়ার বরাত দিয়ে জানা যায়, ওই রাতে আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন। ‘এই মেঘলা রাতে একলা ঘরে থাকে না তো মন’, তাই তো সোনার ছেলেরা ঘর ছেড়ে বেরিয়েছিলো। কিন্তু হঠাৎ করে বৃষ্টি আসি-আসি করলে তাদের আশ্রয়ের দরকার পড়ে। ফলে তারা সেমিনার রুম খোলার জন্য রাতে অ্যাপ্লিকেশন দেন। যেহেতু এই অ্যাপ্লিকেশন দুই-তিনদিনের আগে অনুমোদিত হয় না, তাই একজন টাইম মেশিনে করে ভবিষ্যৎ থেকে সেটির অনুমোদন আনেন এবং বৃষ্টি থেকে বাঁচতে বৃষ্টিহীন রাত্রিতে সেখানে অবস্থান করেন।

 

০২.

বুয়েট ক্যাম্পাসের চারপাশে কয়েকটি ঝগড়াটে কুকুরের বাস। এদের কাজ প্রতি রাতে একে অপরের সঙ্গে ঝগড়া করে। মারামারি-কাটাকাটি কিছুই এদের চাই না। এরা মানুষ পেলে দু টুকরো বিস্কুট চায়, না পেলে নিজেদের মধ্যে ঝগড়া করে। বহিরাগত বীরপুরুষেরা হয়ত এসব কুকুরদের তাড়া খেয়ে সেমিনার রুমে ঢুকে পড়েছিল।

 

০৩.

এ বিষয়ে ডিএসডব্লিউ এর কাছে জবাব চাইলে তিনি বলেন, এখন রমজান মাস, সবসময় সেমিনার রুমে ইফতার পার্টি থাকে। আসল ঘটনা ডিএসডব্লিউ জানেন না, জানলেও লুকানোর চেষ্টা করছেন। আসলে রোজাদার সোনার ছেলেরা এসেছিলো সেহরি পার্টি করতে, ইফতার পার্টি নয়। রাত তিনটায় পবিত্র সুহুর খেয়ে তারা আবার নিজ ক্যাম্পাসে ফিরে গেছেন।

 

০৪.

কপালকুণ্ডলা যেমন নবকুমারকে বলেছিলেন, পথিক, তুমি পথ হারাইয়াছো? তেমনি বুয়েট প্রশাসনও ওদের জিজ্ঞেস করেছিলেন, আপনারা কি পথ হারাইয়াছেন? অতিথি নারায়ণ হিসেবে হয়ত এরপর প্রশাসন পথ হারানো পথিকদের সেমিনার রুমে আপ্যায়ন করে আতিথেয়তার নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

 

০৫.

যেহেতু বুয়েটে যারা প্রথম হয়, তারা টেইলর সুইফট সম্বন্ধে জানেন না, তাই তারা বুয়েটে এসেছিলো টেইলর সুইফট ফ্যান ক্লাব খুলতে। আর সকলেই জানে এদেশে যখন রাত, তখনই তো আমেরিকায় দিন। এ বিষয়ে টেইলর সুইফটের সঙ্গে সরাসরি ভিডিও বার্তায় আলাপও হয়েছে বলে গোপন সূত্রে জানা গিয়েছে।

 

০৬.

বুয়েটের ডিএসডব্লিউ অকপটে স্বীকার করেছেন, ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার দায়িত্ব ডিএসডব্লিউ-এর না। তাই সোনার ছেলেরা স্বপ্রণোদিত হয়ে বুয়েট ক্যাম্পাসের নিরাপত্তা বিষয়ক সভার আয়োজন করেছিলো সেমিনার রুমে।

 

০৭.

দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আবাসন সংকট আছে। আর ক্যাম্পাসের সাধারণ ছাত্ররা আবাসন সংকটে থাকলে তার অভিভাবকেরা আরামে ঘুমাতে পারেন না। তাই প্রিয় অভিভাবকেরা সবাইকে তাদের বিছানা বিলিয়ে দিয়ে বুয়েট সেমিনার রুমে এসে ঘুমিয়েছেন।

৭৫০ পঠিত ... ১৪:৩৪, মার্চ ৩০, ২০২৪

Top