কোন পরিচিত দম্পতি বিয়ের ১-২ বছরের মধ্যে বাচ্চা না নিলে আপনার ১০টি করণীয়

১৩৮৫১ পঠিত ... ১৬:০৭, জুলাই ২০, ২০২০

আপনার আশেপাশের কি এমন কোনো দম্পতি আছে যারা বেশ সময় হয়ে গেলো, বিয়ে করেছে, অথচ এখনও বাচ্চা নেয়নি? যদিও এইটা তাদের বিষয় যে তারা বাচ্চা নেবে কিনা, কবে নেবে, কার বাচ্চা নেবে ইত্যাদি, তবে এইসব অন্যের ব্যাপার নিয়ে যদি আপনি আপনার মূল্যবান মাথা না ঘামান, তাইলে কেমনে কি! সুতরাং ঝড়পট জেনে নিন এই গুরুত্বপূর্ণ সিচুয়েশনে আপনার ১০টি করণীয় কাজ।


১# প্রথমেই সমস্যাটি কার সে ব্যাপারে অনুসন্ধান চালান। নিজে থেকে সমস্যা খুঁজে না পেলে আলাদা আলাদাভাবে স্বামী-স্ত্রী দুজনকেই জিজ্ঞেস করুন 'হু, সমস্যাটা কার? ডাক্তার টাক্তার দেখাইছো'। এতেও কাজ না হলে নিজ দায়িত্বে যেকোন একজনের সমস্যা খুঁজে বের করুন। এরপর আত্মীয়স্বজনদের মাঝে তা ছড়িয়ে দিন।

২# পরিচিত কবিরাজের সন্ধান দিন। সে কবিরাজের দাওয়ায় আপনার পরিচিত কাদের কাদের কোল জুড়ে সন্তান এসেছে সে লিস্টটা হাতে দিতে ভুলবেন না। দম্পতিকে দিয়ে কাজ না হলে তাদের বাবা-মাকে দিন। প্রয়োজনে আপনি সাথে যাবেন এমন ভরসাও দিতে পারেন।

৩# 'ওদের সংসারে তেমন ইচ্ছা নাই' পরিচিত মহলে এমন রিউমার ছড়িয়ে বেড়ান। প্রয়োজনে মাস কয়েকের মধ্যে যে তাদের ডিভোর্স হয়ে যাবে- এমন তথ্যও ছড়াতে হবে।

৪# হাটে, মাঠে, ঘাটে, সভা, সেমিনারে এমনকি কখনো ওয়াশরুমে দেখা হলেও তাদের জিজ্ঞেস করুন 'কবে? আর কত? বাচ্চা নাও না ক্যান? কবে? কবে?'। মারা যাওয়ার পর স্বপ্নে এসেও তাদেরকে এই প্রশ্ন করতে ভুলবেন না।

৫# দম্পতির অভিভাবকদের কানের কাছে গিয়ে বারবার বলুন, 'আপনাদের জন্য কলিজাটা ফেটে যায়। মারা যাওয়ার আগে আর নাতি-নাতনির মুখ দেখে যেতে পারলেন না'

৬# বিয়ের ২ বছরের মধ্যে বাচ্চা না নিলে যে গর্ভাশয় মরে যায়, আর কখনো বাচ্চা হয় না-আপনার উদ্ভাবিত এমন বৈজ্ঞানিক তথ্য দিতে পারেন তাদের। প্রয়োজনে আপনার পরিচিত কিংবা কল্পিত কিছু পস্তাতে থাকা কিছু দম্পতির কথাও বলুন। তবে এ তথ্যটি দম্পতিকে না দিয়ে শ্বশুর শাশুড়িকে দিলে সুফল বেশি পাবেন।

৭# বিয়ের ৩ বছরের মধ্যেও সন্তান না নিলে ছেলেকে দ্বিতীয় বিয়ে করার পরামর্শ দিন। প্রয়োজনে বেশ কিছু পাত্রীও সাজেস্ট করতে পারেন। মনে রাখবেন, সন্তান না হওয়া পর্যন্ত ছেলেকে বারবার বিয়ে করানো আত্মীয়স্বজন হিসেবে আপনার মানবিক দায়িত্বের মধ্যে পড়ে।

৮# একজন হার্ডকোর রিলেটিভ হিসেবে তাদের যৌন জীবনে প্রবেশ করতেও দ্বিধাবোধ করবেন না। ছেলেকে বলুন, 'বউমার কি ইচ্ছে নাই? অন্য কারোর সাথে সম্পর্ক নেইতো?' মেয়েকে বলুন, জামাইর তোমাকে ভাল্লাগে না? আহারে! পোলাটার পোড়া কপাল!'

৯# তাদের জীবনের কোন এক বিশাল পাপের শাস্তি স্বরূপ যে আল্লায় তাদের সন্তান দিচ্ছে না-এমন তথ্য প্রচার করে বেড়ান। সম্ভব হলে পাপও স্পেসিফিক করে দিতে পারেন।

১০# বিয়ের আগের মেয়ের কয়টা রিলেশন ছিলো সেসব খুঁজে বের করুন। খুঁজে না পেলেও সমস্যা নাই, নিজের গল্প বানানোর স্কিলকে কাজে লাগান। এই স্কিলকে কাজে লাগিয়ে বিয়ের পর যে স্বামী-স্ত্রী দুজনই পরকীয়া করতেছে এমন গল্পও বানাতে পারেন। এরপর দুইয়ে দুইয়ে চার মিলিয়ে বলে দিন, এই কারণেই তারা বাচ্চা নিচ্ছে না। ইলুমিনাতি কনফার্ম।

মনে রাখবেন, তাদের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলতে যা যা করা দরকার নিষ্ঠা ও নৈতিকতার সাথে সেসব আপনাকে করতেই হবে। নাহলে তাদের বদলে অসময়ে আপনার আবার বাচ্চা হয়ে যেতে পারে।

১৩৮৫১ পঠিত ... ১৬:০৭, জুলাই ২০, ২০২০

Top