ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরাজয়ের নেপথ্যে ১০ কারণ

১০৭৮ পঠিত ... ১৬:৫৭, নভেম্বর ০৭, ২০২০

আমেরিকার ভোটের ফাইনাল রেজাল্ট এখনও আমরা পাইনি। তবে একটা ব্যাপার মোটামুটি পরিষ্কার, হারতে চলেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কী কারণে এই পরাজয়? eআরকি ভেবেছে এমন ১০ কারণ। মূলত এসব রাজনৈতিক দূরদর্শিতার অভাবেই আজ ট্রাম্পের এই পতন...

 

১# একটা 'বিটিভি' না থাকা

একটি বিটিভির অভাবে আমেরিকা জুড়ে বয়ে যাওয়া শান্তির বাতাসের খবর দেশের জনগণের গায়ে লাগেনি। তারা দেখেছে ট্রাম্পের খামখেয়ালিপনা, বেঁফাস কথা কিংবা উগ্রতা। একটা বিটিভি থাকলে আমেরিকার জনগণকে এইসব দেখতে হতো না। ৪ বছরেও যেখানে ট্রাম্প একটা বিটিভি প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি, সে হার কীভাবে এড়াবে।

 

২# 'রিপাবলিকান ছাত্রলীগ' না থাকা

এই দায় অবশ্য ট্রাম্পের না। এই দায় রিপাবলিকানদের। তারা যদি 'ছাত্রলীগ' নামক একটি সংগঠন দাঁড় করাতো, তাহলে আজ তাদের এই দুর্দিন দেখতে হতো না। কথিত আছে, হারের ভয় থাকলে দিলে, ভোট জেতাবে ছাত্রলীগে। দক্ষিণ এশিয়ার দেশ উগান্ডা থেকে নির্বাচনকালিন ছাত্রলীগ ভাড়াও নিতে পারতো ট্রাম্প, কিন্তু সেখানেও সে ব্যর্থ।

 

৩# 'জো বাইডেনের দুঃশাসনের ৫ বছর, ফিরে দেখা' এই নামে কোন অনুষ্ঠান না থাকা

জনমত নিজেদের দিকে আনার জন্য এই অনুষ্ঠান বেশ কার্যকরি। ট্রাম্প প্রশাসন এমন একটা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জনগণের সামনে ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকার সময় জো বাইডেনের অপকর্ম তুলে ধরলেই বাইডেনের হার কেউ ঠেকাতে পারতো না।

 

৪# বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টিকে না পাওয়া

নির্বাচনে জিততে হলে নিজ হাতে প্রতিপক্ষ দল গঠন করতে হয়। ট্রাম্প সেটা পারেনি। পারবে কোথা থেকে, বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টিকে পায়নি ট্রাম্প। বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টিকে না পাওয়াই ট্রাম্পের নির্বাচনে ব্যর্থতার অন্যতম কারণ।

 

৫# একজন নুরুল হুদার অভাব

ক্ষমতাসীন দলকে নির্বাচনে জেতানোর জন্য বিশ্বসেরা এজেন্সি হলো নুরুল হুদা এজেন্সি। আমেরিকান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নুরুল হুদাকে রাজি করাতে না পারাই এই নির্বাচনে ট্রাম্পের গতিপথ পালটে দিয়েছে। একজন নুরুল হুদার অভাবে লোকটাকে নোঙর করতে হয়েছে হারের বন্দরে।

 

৬# থিম সঙ না থাকা

নির্বাচনী প্রচারণার ক্ষেত্রেও ডোনাল্ড ট্রাম্প কোনো বিচিত্রতা দেখাতে পারেন নাই। এতগুলো দিন ধরে ইলেকশন হইলো, অথচ আমরা 'জিতবে আবার ট্রাম্প ভাই', 'ট্রাম্প ভায়ের সালাম নিন, গাধা মার্কায় ভোট দিন' এমন কোনো থিম সঙ শুনতে পাইনি।

 

৭# ফেরদৌস প্রচারণা করেননি

বিগত নির্বাচনগুলোতে আমরা দেখেছি, কোনো রাজনৈতিক দলের নির্বাচন জেতার পেছনে প্রচারণায় ফেরদৌসের ভূমিকা অপরিসীম। বলা যায়, ফেরদৌস ছিলেন না বলেই ট্রাম্প অর্ধেক ইলেকশন হেরে গেছেন।

 

৮# ডেমোক্রেটিক নেতাকর্মীদের গ্রেফতার না করা

নির্বাচনের এক মাস আগেই ডেমোক্রেটিক নেতাকর্মীদেরকে নানান অভিযোগে গ্রেফতার করে ফেললে নির্বাচনের ফলাফল ট্রাম্পের দিকে আরেকটু ঝুঁকতে পারতো। এমনকি জো বাইডেনের নামে তিনি ছোটখাটো একটা মামলা দিয়েও ট্রাই করতে পারতেন।

 

৯# ভোটকেন্দ্রে দখল না থাকা

কেন্দ্র দখল এবং কেন্দ্রে নিজের পোলাপানদের শক্ত অবস্থান নিশ্চিত করতেও ডোনাল্ড ট্রাম্প ব্যর্থ হয়েছেন। স্পেশালি হেলমেট পরা কিছু পোলাপান প্রতি কেন্দ্রে হাতুড়ি হাতে অবস্থান নিলেই ভোটের রেজাল্ট একটু হইলেও পাল্টায়।

 

১০# বাংলাদেশ থেকে কিছুই শেখেননি

সর্বোপরি বাংলাদেশে এসে নির্বাচন সম্পর্কে একটা উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়ে গেলে হয়তো ট্রাম্পকে এই দিন দেখতে হতো না।

১০৭৮ পঠিত ... ১৬:৫৭, নভেম্বর ০৭, ২০২০

Top