টিকার মেসেজ আসার খুশিতে ১০০ জনকে কাচ্চি খাইয়ে করোনা পজিটিভ সুজন

৩৪১ পঠিত ... ২৩:১৩, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২১

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল থেকে এবার পাওয়া গেলো মজার কিন্তু আশ্চর্যজনক সঙবাদ। সুজন (২৪) নামের এক যুবক তার টিকার মেসেজ আসা উপলক্ষ্যে প্রায় ১০০০ মানুষকে ট্রিট দিয়েছেন। কাহিনী খতিয়ে জানা গেলো, প্রায় দুই মাস কেটে গেলেও এতদিন তার টিকা নিবন্ধনের মেসেজ আসেনি। রাগে দুঃখে তিনি গত রবিবার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন, 'বা*র টিকা এখনো আইলো না। আইলে ১০০০ মানুষরে কাচ্চি খাওয়ামু...'

Tikar-sms-ashar-khushite

আশ্চর্যজনকভাবে এই স্ট্যাটাস দেওয়ার পরদিন সকালবেলাই তার টিকার মেসেজ চলে আসে। আনন্দে আত্মহারা হয়ে আবারও তিনি ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন, 'ফিলিং হ্যাপি। টিকার মেসেজের উপ্রে রাগ করছিলাম দেইখা মনে হয় তাড়াতাড়ি আইসা পড়ছে...'

তবে ঘটনার পর তার ফ্রেন্ডলিস্টে আলোড়ন ঘটে যায়। কমেন্টে-ইনবক্সে সবার এক কথা, 'ভাই, কাচ্চি খাওয়ান... মেসেজ তো আইলো... এখন না খাওয়াইলে ডিজিটাল সিকিউরিটি মামলা কইরা দিবো...'! এত বিপুল পরিমাণ মানুষ তার টিকার মেসেজে আগ্রহী জানতে পেরে তিনি বিস্মিত। তিনি বলেন, 'ভাই, মানুষ খুব হিপোক্রেট। নরমালি আমার পোস্টে ১০০ রিয়েক্টও পড়ে না। আর কাচ্চির পোস্টে রিয়েক্ট পড়ছে ৩ হাজার। চিন্তা করা যায়?'

এই তোপের মুখ থেকে বাঁচতে তিনি দ্রুত ফেসবুক আইডি ডিএক্টিভেট করে ফেলেন। তবে এতেও রক্ষা পাননি সুজন। সোমবার সন্ধ্যাবেলা তার বাসার সামনে প্রায় ১০০০ মানুষ জড়ো হয়। হাতে প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুনসহ তাদের দাবি ‘কাচ্চি চাই’।

অবশেষে বাবার কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা ধার নিয়ে ১০০০ মানুষকে কাচ্চি খাওয়ান সুজন। তবে এই কাচ্চি উৎসবের দুদিন পর থেকেই তার জ্বর, সর্দি, ও গলাব্যথা৷ ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে জানা যায়, তিনি করোনা টেস্ট করতে দিয়েছিলেন এবং রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে!

সুজন এই মুহূর্তে কোয়ারেন্টাইনে থাকায় তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে অদ্ভূত ব্যাপার হলো, সুজনের কাচ্চি উৎসবে অংশ নেয়া হাজার জনের কেউই ফোন ধরছেন না। ধারণা করা যাচ্ছে, এদের মধ্যেও কিছু মানুষ কোয়ারেন্টাইনে থাকতে পারেন।

৩৪১ পঠিত ... ২৩:১৩, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২১

Top