যেভাবে বুঝবেন কারো সদ্য ব্রেকআপ হয়েছে: ১০টি মর্মান্তিক লক্ষণ

১১১২ পঠিত ... ২১:২০, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১

জীবনে প্রেম থাকলে ব্রেকআপ থাকবেই। আমাদের আড়ালে অন্তরালে প্রতিদিন না জানি কত হাজারও ব্রেকআপ হতে তাকে। কিন্তু পরিচিত বা ফ্রেন্ডলিস্টের কারো ব্রেকআপ হয়েছে কিনা, কীভাবে বুঝবেন? এই যে, জেনে নিন সদ্য ব্রেকআপ হওয়ার কিছু লক্ষণ।

breakup 5

 

১# টাইমলাইনে দুঃখের গান শেয়ার করা

সদ্য ব্রেকআপের পর ‘উৎসর্গ’, ‘স্রোতস্বিনী’,'নিথুয়া পাথারে', 'চাইতেই পারো'র মতো কিছু গান শেয়ার করে থাকেন অনেকেই। 'I am so lonely broken angel’ -এই গানটিও সদ্য ব্রেকআপের পর অনেকের শেয়ার দিতে ইচ্ছা হয়।

 

২# প্রেম কিংবা বিষাদের কবিতা পোস্ট করা

জীবনে কোনোদিন কবিতার বই ধরেও দেখে নাই, দেখবেন হুট করে এমন মানুষজনও নির্মলেন্দু গুণ, মহাদেব সাহা, হেলাল হাফিজের কিছু বিখ্যাত বিরহের কবিতা লিখে আপলোড করছে। 

 

৩# সকাল সন্ধ্যা সুন্দর সুন্দর ছবি আপলোড

সুন্দর ছবি আপলোড করলেও খেয়াল করবেন, ক্যাপশনগুলো দুঃখ ও লোনলিনেস নিয়ে থাকবে। ক্যাপশনের দুখী/দার্শনিক কোট অবশ্যই গুগল থেকে নেয়া। তবে ওমর সানীর মতো 'লেখা তো তোর না, অন্য কার লেখা, ভাই ভালো থাকিস...' লিখে আবার কমেন্ট করবেন না যেন!


৪# কান্নাকাটি করার ফোলা চোখের ছবি

এ ধরনের ছবি মূলত স্টোরিতে পাওয়া যায়। কান্নাকাটি করা ফোলা চোখের ছবি দেয়ার কিছুক্ষণ পরই সাজুগুজু করে আরেকটা সুন্দর ছবি দিয়ে 'বিফোর-আফটার' ভাইব, এমনটাও খেয়াল করবেন। সাজুগুজু করা ছবির সাথে 'আই এম স্ট্রং' থিমের কোনো বোল্ড কোনো ক্যাপশন থাকার চান্স বেশি।

 

৫# চিঠি কিংবা গিফট পুড়ানো স্টোরি

অনেকেই সম্ভবত এক্সের দেওয়া চিঠি কিংবা গিফট পুড়িয়ে ফেলার সময় ভিডিও করে রাখে, যাতে পরবর্তীতে সেটা স্টোরিতে দেখে আমরা বুঝতে পারি তার ‘ব্রেকাপ ডান’...

 

৬# নেশা কিংবা সিগারেট

স্টোরিতে সিগারেট কিংবা নেশাজাতীয় দ্রব্যের সাথে ছবি পাওয়া যেতে পারে। সাথে ক্যাপশন থাকতে পারে, “তোর প্রেমেতে অন্ধ হলাম...” বা প্রেমজনিত কিছু।

 

৭# হঠাৎ দার্শনিকতা-মানবিকতা জেগে ওঠা

একজন তার মন পাওয়ার কতটুকু অযোগ্য এটুকু বর্ণনা করে ‘তুমি অধম বলিয়া আমি উত্তম হইবো না কেনো?”— অনেককেই ধরনের স্ট্যাটাস শেয়ার করতে দেখা যায়, যাতে তার ভেতরের দার্শনিকতা-মানবিকতা হঠাৎ পরিস্ফুটিত হয়ে ওঠে।

 

৮# ফেলে আসা সময়ের জন্য রিগ্রেটমূলক স্ট্যাটাস

অপাত্রে সময় দেয়া বা ফেলে আসা দিনগুলোর কথা মনে করে লেখা রিগ্রেটমূলক স্ট্যাটাসগুলো মূলত দেয়া হয় ব্রেকআপের দুঃখ একটু সহনীয় হয়ে আসার পর। এরকম সময়ে বোঝা যায়, ব্রেকআপ হলেও তিনি নেক্সট প্রেমের জন্য রেডি হচ্ছেন।

 

৯# হুট করে বন্ধুদের কদর বেড়ে যাওয়া

লাস্ট এক বছরের ফেসবুকে ডেটের ছবি ছাড়া ছবি নাই, অথচ হঠাৎ দেখবেন কেউ ঘন ঘন ফ্রেন্ডদের নিয়ে পোস্ট করছে, 'তোরা ছিলি বলেই খারাপ সময়ে বেঁচে আছি...'! কমেন্টবক্স দেখেও মনে হতে পারে বন্ধুদের সাথে ইদানিং খুব পীরিত চলছে... বুঝবেন... পীরিতের বাকি জায়গা বন্ধ হয়ে গেছে...

 

১০# হঠাৎ ধর্মকর্মে মন চলে আসা

ব্রেকআপের পর অনেককেই ধর্মীয় বিষয়ে ভাবুক হতে দেখা যায়। Mufti menk সহ আরও নানা স্কলারদের রিলিজিয়াস পোস্ট শেয়ার করে তারা বোঝানোর চেষ্টা করেন (হয়তো নিজেকে), কীভাবে আমাদের ভাগ্য আগে থেকেই পূর্বনির্ধারিত। সময় থাকতেই তিনি হারাম থেকে বের হয়ে এসেছেন, সেজন্য তিনি অত্যন্ত খুশি। যদিও এর দু'দিন পরই দেখবেন তিনি ‘আলহামদুলিল্লাহ’ লিখে নতুন হারাম রিলেশনশিপের ছবি আপলোড দিবেন...

১১১২ পঠিত ... ২১:২০, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১

Top