অক্সফোর্ডের শিক্ষার্থীরা যেভাবে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সূচনা করেন

৩২৩ পঠিত ... ০৩:১১, নভেম্বর ১৭, ২০২০

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পালিয়ে আসা কিছু পণ্ডিত ১২০৯ সালে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সূচনা করেছিলেন।

অক্সফোর্ড ছিল ইংরেজিভাষী বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয়। সে সময় পুরো ইংল্যান্ডের একমাত্র উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান অক্সফোর্ডের পন্ডিতদের সঙ্গে স্থানীয় লোকদের বিবাদ লেগেই থাকতো। এমন বিবাদপূর্ণ প্রেক্ষাপটে এক নারীর খুনকে কেন্দ্র করে অক্সফোর্ডের তিনজন শিক্ষার্থীকে শহর কর্তৃপক্ষ ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেয়। পরিস্থিতির আরও অবনতির আশঙ্কা করে দলে দলে শিক্ষার্থীরা অক্সফোর্ড ছেড়ে নিকটবর্তী রিডিং এবং ক্যামব্রিজ শহরে চলে যায়। অনেকে প্যারিসও চলে গিয়েছিলেন।

অক্সফোর্ড শহর থেকে মাত্র ৬২ মাইল দূরের ক্যামব্রিজ শহরে একে একে অনেক অক্সফোর্ড স্কলার জড়ো হতে থাকেন। সেখানেই তাদের মনে হয় যে একটা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করার মতো প্রয়োজনীয় স্কলার ক্যামব্রিজ শহরে ইতিমধ্যে উপস্থিত আছেন। সেটিকে ভিত্তি ধরেই অক্সেফোর্ডের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সবাই মিলে ক্যামব্রিজ শহরেই একটা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করলেন, নাম হলো ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়। এটি হলো ইংরেজিভাষী বিশ্বের দ্বিতীয় প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয়।

প্রতিষ্ঠার পর থেকেই অক্সফোর্ডের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে প্রতিযোগিতা করে টিকে আছে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়। গত ৮০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় এই দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজেদের এক্সিলেন্স স্টাবলিশ করার প্রতিযোগীতায় লিপ্ত আছে। ক্যামব্রিজের গণ্ডি মাড়িয়েছেন বহু মহীরুহ। অনেক জ্ঞাণীই বিভিন্নভাবে বিশ্ববিদ্যালয়টিকে সমৃদ্ধ করেছেন। এরমধ্যে নিউটন অন্যতম। ১৭ শতকে তার গতির সূত্র, ক্যালকুলাস ও মহাকর্ষের মতো আবিষ্কারগুলো সে সময়কার জ্ঞান-বিজ্ঞানের গতিপথই পাল্টে দেয়। সাথে বদলে দেয় ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়কেও। বিশ্ববিখ্যাত ট্রিনিটি কলেজও ক্যামবিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ।

৩২৩ পঠিত ... ০৩:১১, নভেম্বর ১৭, ২০২০

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top