যে ৫টি 'উদ্যোক্তা পোস্ট' ফেসবুকের 'উই (we)' গ্রুপে কখনোই দেখবেন না

২১৭১ পঠিত ... ১৭:৪৪, সেপ্টেম্বর ০১, ২০২০

ফেসবুকে নারী উদ্যোক্তাদের গ্রুপ women and e-commerce forum (we)। এই গ্রুপের মাধ্যমে অনেক নারী হয়ে উঠছেন বড় উদ্যোক্তাও। সম্প্রতি নারী উদ্যোক্তাদের সফলতার জন্য এই দারুণ ফেসবুক গ্রুপটি রয়েছে বেশ আলোচনায়। নারী উদ্যোক্তাদের উদ্যোগের কথা, সফলতায় কথায় সবসময় সয়লাব থাকে গ্রুপটি। তাই বেশ উপকারী গ্রুপ হলেও এই গ্রুপে দিনরাত পড়ে থাকা eআরকির উদ্যোক্তারা প্রতিদিন একইরকম পোস্ট দেখতে দেখতে হতাশ। ফলে তারা নিজেরাও বসে বসে ভেবে ফেলেছে এমন ৫টি উদ্যোক্তা পোস্টের কথা যেগুলো আপনি উই গ্রুপে কখনোই দেখতে পাবেন না।

 

১#  আমি আবদুর রহমান বদি। বলছি টেকনাফ থেকে।
আমি কাজ করি ঐতিহ্যবাহী ইয়াবা নিয়ে। স্থানীয়ভাবে এটি বাবা, গুটি নামে পরিচিত। মায়ানমার থেকে নদী পথে আমদানি করে সারাদেশে সাপ্লাই দেই। সাঁতরে আসতে হয় বলে কাজটি বেশ চ্যালেঞ্জিং। বাংলাদেশি বর্ডারগার্ড মাঝে মাঝে আমার ব্যবসায় ঝামেলা করে। এদের জন্যই দেশি উদ্যোগগুলো আলোর মুখ দেখে না। বাট আমি হতাশ হইনি কখনো, শত প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও আমি দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাই, যাবো। সোশ্যাল মিডিয়ায় নানাবিধ ট্রল, সংবাদমাধ্যম থেকে শুরু করে দেশের সুশীলরাও নানাভাবে আমার মনোবল ভেঙ্গে দিতে চায়। কিন্তু আমার কিছু ক্ষমতাবান বন্ধু ও নিজের মনোবল আছে বলেই, দাঁতে দাঁত না চেপে হাসতেই হাসতেই সকল প্রতিবন্ধকতা, চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পারি। আমার স্বপ্ন, দেশীয় প্রযুক্তিতে এই ইয়াবা বড়ি বানিয়ে দেশের টাকা দেশেই রাখার।

 

২# আমি সাহেদ। দেশজুড়ে বাটপার সাহেদ নামে পরিচিত।
কাজ করছি ভুয়া করোনা টেস্ট ও বিশিষ্টজনদের সাথে ছবি তোলা নিয়ে। ইউপোকা গ্রুপের রাজিব স্যারের পরামর্শে সফলতা পেয়েছি খুবই অল্প সময়ে। আমার এই উদ্যোগ ছড়িয়ে দিয়েছি ঘরে, বাইরে, জেলে এমনকি রিমান্ড টেবিলেও। এবার চলে এসেছি ইউপোকার বন্ধুদের কাছে। এ পর্যন্ত ইউপোকাতে আমার সেল ২০ কোটি টাকা। ১০ কোটি টাকার জাল করোনা সার্টিফিকেট সাথে ইউপোকার ২০ হাজার মেম্বারের সাথে সেলফি। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। পাশে থেকে সমর্থন দিয়ে যাবেন।

 

৩# আমি তারেক রহমান। লন্ডন থেকে কাজ করছি খাম্বা নিয়ে।
দেশের আনাচেকানাচে রাস্তার ধারে খাম্বা ফেলে রাখাই আমার কারবার। এজন্যই পরিচিত মহলে আমি খাম্বা তারেক নামে পরিচিত। দীর্ঘদিন এই ব্যবসা থেকে বিরত থাকার পর দেশের এফ কমার্সের স্বর্ণযুগে আবারও নতুন করে শুরু করার কথা ভাবছি। রাজিব স্যারের পরামর্শে এগিয়ে যাবো ইনশাল্লাহ। আর ইউপোকারা সাথে থাকলে তো অনেক স্ট্রাগল আর হতাশার পরে হলেও জীবনে সফলতা আসবেই।

 

৪# ক্রসফায়ার নিয়ে কাজ করছি। হ্যাঁ, আমি ওসি প্রদীপ। আছি কক্সবাজার থেকে।
এ পর্যন্ত আমার জুড়িতে কয়েকশত ক্রসফায়ার সেলের রেকর্ড আছে। ক্রসফায়ারে ক্যারিয়ার গড়ে এই ভিন্নধর্মী উদ্যোগকে জনপ্রিয় করতে চাই। ইউপোকা গ্রুপে আমার এখনো পর্যন্ত কোন সেল নাই। তবে আশা করবো, আপনারা আপনাদের প্রিয়জনকে নান্দনিক ক্রসফায়ার উপহার দিবেন। প্রয়োজনে অপ্রিয়জনকেও দিতে পারেন 'ওসি প্রদীপ নান্দনিক ক্রসফায়ার'।

 

৫# আমি পুতিন। থাকি রাশিয়াতে। কাজ করছি করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে।
নিজস্ব প্রযুক্তিতে অনেকটা হ্যান্ডমেইড প্রসেসে তৈরি আমার এই ভ্যাকসিন। ইউপোকা গ্রুপের মেম্বারদের জন্য ইনবক্সে আসা সাপেক্ষ্যে থাকছে ২০% ছাড়। উইপোকাতে এ পর্যন্ত আমার সেল সাড়ে ৫২ পিস ভ্যাকসিন। টাকার হিসেবে যা লাখ টাকারও বেশি। আপনাদের সহযোগিতাহ ইউপোকার লাখপতি ক্লাবেও আমি ইতোমধ্যে ঢুকে পড়েছি। সবাই আমার ভ্যাকসিন কিনে আমাকে বড় উদ্যোক্তা হতে সহযোগিতা করবেন। আর হ্যাঁ, প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যে যেকোন একজন ভ্যাকসিন নিলেই কিন্তু 'বাবু তুমি খেলে আমার খাওয়া হয়ে যায়' প্রজেক্টের আওতায় অন্যজনেরও ভ্যাকসিন নেয়া হয়ে যাবে।

২১৭১ পঠিত ... ১৭:৪৪, সেপ্টেম্বর ০১, ২০২০

Top