গরুকে ম্যানার শেখাতে আসছে ভার্সিটির পলিটিক্যাল বড় ভাইদের স্টার্টআপ 'গোরুম'

১৮৮ পঠিত ... ১৫:১৬, জুলাই ২৭, ২০২০

প্রতিটি সমস্যাই খুলে দেয় সম্ভাবনার দুয়ার। কোরবানির গরুকে নিয়ন্ত্রণ করার সমস্যাতেই দারুণ সম্ভাবনা খুঁজে পেয়েছে ভার্সিটির পলিটিক্যাল বড় ভাইয়েরা। গণরুমের ম্যানার শেখানোর অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে নিয়ে আসছেন 'গোরুম' নামক নতুন স্টার্টআপ। 'গরু আপনার, থাবড়ানোর দায়িত্ব আমাদের' স্লোগানের এই স্টার্টআপের মাধ্যমে কোরবানির গরুকে ম্যানার শেখাবেন তারা।

শুধু ভার্সিটির জুনিয়র না, কোরবানির গরুও যথেষ্ট ম্যানার জানে না। কোরবানির সিজনে তাই গরু ম্যানেজ করা জাতীয় সমস্যায় পরিণত হয়েছে। বাজার থেকে বাসায় আনার সময় গরু হাঁটতে চায় না, যাকে তাকে ঢুস মেরে দেয়, দঁড়ি ছিড়ে অনিশ্চিত যাত্রা তো খুবই কমন বিষয়। কোরবানির গরুকে ম্যানার শিখিয়ে একদম নম্র ভদ্র, শান্ত হিসেবে গড়ে তোলাই পলিটিক্যাল বড় ভাইদের 'গোরুম' এর কাজ, এমনটাই জানালেন গোরুমের এক উদ্যোক্তা।

পলিটিক্যাল বড়ভাইদের গোরুমের মাধ্যমে ম্যানার শেখা কোরবানির গরু ছোটবড় সবাইকে সালাম দেয়াও শিখবে। একই সাথে পথেঘাটে দাম নিয়ে উৎসুক জনতাকে নিজের দাম বলতে পারবে নিজেই, জানালেন উদ্যোগের অন্য এক পলিটিক্যাল বড় ভাই।

গরু কীভাবে সালাম দিবে? নিজের দাম বলবে? ওদের সবই তো হাম্বা! আপনারা কী স্পেশাল প্রযুক্তি ব্যবহার করবেন? আমাদের প্রতিনিধির এমন প্রশ্নে উদ্যোক্তা বলেন, 'আমাদের গণরুম প্রযুক্তিই কাজে লাগাবো। গালি দিবো, র‍্যাগিং দিবো। কাজ না হলে কষায়ে দুই চড় লাগাবো। তাতেও কাজ না হলে হলের স্ট্যাম্প, ব্যাট তো আছেই!'

তবে ভার্সিটির হলের বড়ভাইদের এই ম্যানার শেখানো স্টার্টআপের 'সেবায়' ভরসা করতে পারলে কোরবানি দিতে পারবেন কি না তা নিয়ে চিন্তায় আছেন গ্রাহকরা। এমনই চিন্তিত একজন (তার ছেলে পাবলিক ভার্সিটিতে পড়ছে) বলেন, 'ওরা যা বলছে তা হয়তো শেখাতে পারবে। কিন্তু কোরবানি দেয়ার জন্য গরু জীবিত থাকবে কি না তা নিয়েই যত চিন্তা।'

১৮৮ পঠিত ... ১৫:১৬, জুলাই ২৭, ২০২০

Top