কলসিন্দুরের অদম্য মেয়েরা...

৫৮৮ পঠিত ... ১৭:৩২, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২

Kolsindurer-meyera

ফুটবলে এখন দক্ষিণ এশিয়ায় সেরা আমাদের মেয়েরা। সাফ জয়ের এই ইতিহাস গত রাতে রচিত হলেও, এই স্বপ্ন বোনা হয়েছিলো আরও অনেক আগে। কলসিন্দুর নামের ময়মনসিংহের ছোট্ট, সুন্দর এক গ্রামে শুরু হয়েছিল ফুটবল বিপ্লব। ২০১১ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ঘোষিত হয় বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টের আয়োজন। যে খবর গিয়ে পৌঁছায় কলসিন্দুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মফিজউদ্দিনের কাছে।

এরপর তিনি নেমে পড়েন এই ফুটবল মিশনে। স্কুলের মেয়েদের নিয়ে গড়ে তোলেন দল। প্রথমবার রানারআপ হলেও ২০১৩ সালেই চ্যাম্পিয়ন হয় কলসিন্দুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এরপর দেশের নানা বয়স ভিত্তিক টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে কলসিন্দুর স্কুলের এই মেয়েরা।

সাফ জয়ী দলেও রয়েছে কলসিন্দুর গ্রামে বেড়ে ওঠা ৮ জন মেয়ে। এ দলের মারিয়া মান্দা, সানজিদা আক্তার, শিউলি আজিম, তহুরা খাতুন, শামসুন্নহার সিনিয়র, শামসুন্নাহার জুনিয়র, সাজেদা খাতুন, মার্জিয়া আক্তারের বাড়ি কলসিন্দুরে।

এছাড়াও সিরাত জাহান স্বপ্নার বাড়ি রংপুরে। আঁখির সিরাজগঞ্জ, সাবিনা ও মাসুরা সাতক্ষীরা, কৃষ্ণা টাঙ্গাইল, মণিকা, রুপনা ও ঋতুপর্ণা রাঙামাটির। আনাই ও আনুচিং যমজ বোন খাগড়াছড়ির। নীলুফার ইয়াসমিনের বাড়ি কুষ্টিয়া।

এই বীরকন্যারাই ফুটবলে বাংলাদেশকে করেছেন দক্ষিণ এশিয়ার সেরা। কলসিন্দুর গ্রামের এই ফুটবল বিপ্লব নিয়ে ২০১৭ সালে একটি ডকুমেন্টরি নির্মাণ করে প্রথম আলো।

 

৫৮৮ পঠিত ... ১৭:৩২, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২২

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top