আমি তো ভালা না, কাঞ্চনজঙ্ঘা নিয়াই থাইকো: একান্ত ব্যক্তিগত সাক্ষাৎকারে এভারেস্ট

৯০০ পঠিত ... ১৫:৩৩, নভেম্বর ০১, ২০২০

পঞ্চগড় থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখার জন্য প্রতিদিনই বাড়ছে মানুষের ভিড়। কাঞ্চনজঙ্ঘা নিয়ে মানুষের এমন মাত্রাতিরিক্ত আগ্রহে কিছুটা অভিমান করেছে হিমালয় পর্বতমালার জ্যেষ্ঠ সদস্য মাউন্ট এভারেস্ট। অভিমানি ও ঠকঠক করে কাঁপা কণ্ঠে বাংলাদেশিদের উদ্দেশে এভারেস্ট বলেন, 'আমি তো ভালা না, কাঞ্চনজঙ্ঘা নিয়াই থাইকো।'

কাঞ্চনজঙ্ঘা নিয়া মানুষের এমন আগ্রহ সমাজে একটা নেতিবাচক বার্তা বয়ে আনছে বলেও মত দেন এভারেস্ট। তিনি বলেন, 'কাঞ্চনজঙ্ঘা কে? আমারই জুনিয়র। আমি ওকে বড় করছি। আমিই ওর বাপ। আর আজ তোমরা বাপকে রেখে সন্তানকে নিয়ে মাতামাতি করছো! তোমাদের মতো মানুষদের কারণেই সমাজে গুণির কদর নাই।'

অভিমানে বেশ কিছু কঠিন সিদ্ধান্ত নেয়ার কথাও ভাবছে এভারেস্ট। হিমালয় পর্বতমালার অন্যতম নেতৃত্বস্থানীয় সদস্য মাউন্ট এভারেস্ট জানান, 'কাঞ্চনজঙ্ঘা প্রিয়দের জন্য আমার দরজা বন্ধ। বাংলাদেশ থেকে কোন দর্শনার্থী এভারেস্টে প্রবেশ করতে পারবে না, পর্বতারোহীরাও না। তোমরা কাঞ্চনজঙ্ঘা জয় করো গা যাও!'

কাঞ্চনজঙ্ঘার এমন জনপ্রিয়তাকে তাসের ঘরের সাথে তুলনা করেছেন এভারেস্ট। তিনি বলেন, 'কাঞ্চনজঙ্ঘার জনপ্রিয়তার দৌঁড় শীতকাল পর্যন্ত। আই এম দ্য আল্টিমেট কিং।'

এদিকে হিমালয় পর্বতমালার এক জৈষ্ঠ পর্বত বলেন, 'জনপ্রিয়তা কাজে লাগিয়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করতে চাচ্ছে। আমি থাকতে হিমালয় প্রদেশে এটা কখনো হতে দিবো না। প্রয়োজনে হিমালয় থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘাকে বহিঃস্কার করা হবে।'

৯০০ পঠিত ... ১৫:৩৩, নভেম্বর ০১, ২০২০

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top