মাস্ক পরে অন্যের ভোট দেয়া ছাড়াও যে ৮টি কাজ করা যায়

৪০০ পঠিত ... ১৬:১০, জানুয়ারি ১৭, ২০২১

সম্প্রতি মাস্ক পরে ভোট নকল করতে গিয়ে ধরা খেয়েছেন এক যুবলীগ নেতা। মাস্কের এত উপকার, সত্যিই আগে জানা ছিল না। নেতার ছায়া অনুসরণে আমরা আপনাদের জন্য এনেছি আরও আটটি এক্সক্লুসিভ আইডিয়া, যেগুলো ফলো করে মাস্কের আরও নানান 'দুই নম্বরি' উপকারিতা আপনি উপভোগ করতে পারবেন! চলুন জেনে নেয়া যাক...

১# নিজের জায়গায় মাস্ক পরিহিত অন্য কোনো ভালো স্টুডেন্টকে ভাইভা দিতে পাঠাতে পারেন (ধরা খাইলে আমাদের দোষ নাই)।

২# আসছে এডমিশন টেস্টে বুয়েটের বড় ভাই কিংবা মেডিকেলের বড় আপুকে আবারও মাস্ক পরিয়ে এডমিশন টেস্ট দিতে পাঠাতে পারেন।

৩# অনেক পুরুষই প্রথম প্রথম কনডম কিনতে লজ্জা পান, আর নারীরা জন্মনিরোধক পিল। এক্ষেত্রে মাস্ক পরে নিজের এলাকার ফার্মেসি থেকে এসব কিনলে টের পাবে না কাকপক্ষী। আপনার বাপের কাছেও কোনো সংবাদ পৌঁছানোর সম্ভাবনা নেই...

৪# জনসম্মুখে কাউকে গালি দিতে মন চাইলে মাস্ক পরিহিত অবস্থায় দিতে থাকুন। কে বুঝবে কোন মাস্কের নিচ থেকে শব্দ এলো?

৫# কারো বাসায় বরই, পেয়ারা, আমসহ নানা ফল চুরি করতে গেলে মাস্ক পরে যাবেন। চেহারা দেখে ফেললেও মাস্ক পরিহিত অবস্থায় চিনতে কষ্ট হবে। সেই সুযোগে দিবেন ভোঁ দৌড়...

৬# প্রেমিকার বাসার নিচে হাঁটাহাঁটি, দাঁড়িয়ে অপেক্ষা কিংবা শিস দিলেও প্রেমিকার বাবা-মা আপনাকে চিনতে পারবে না।

৭# ক্লাসে এটেন্ডেন্স দেওয়ার ক্ষেত্রে শিক্ষক যদি খুব বিপদজনক হন, তবে একজন দুইরকম মাস্ক সাথে রাখতে পারেন। দুইরকম মাস্ক পরে দুইজনের প্রেজেন্স দেওয়া যাবে এবং এক্ষেত্রে ধরা পড়ার সম্ভাবনা শূণ্য।

৮# ধোঁকাবাজি, কিংবা ঘুষ খাওয়া, কিংবা ভোট নকলের মতো অনৈতিক কাজের সময় মাস্ক পরে থাকতে পারেন। পরবর্তীতে যার/যাদের সাথে অনৈতিক কাজ করলেন তার সামনে মাস্ক খুলে পরহেজগারি করতে পারেন। কে জানে, আপনার বাটপারি নাও ধরা খেতে পারে!

৪০০ পঠিত ... ১৬:১০, জানুয়ারি ১৭, ২০২১

Top