গরীব হওয়ার ১০টি সুবিধা

৫৯৬ পঠিত ... ১৮:০৪, অক্টোবর ০৭, ২০২৩

Girb-hobar-subidha

আপনি কি গরীব? নিজের ইচ্ছায় কেউ গরীব হয়ে জন্মাতে কিংবা গরীবী জীবনযাপন করতে না চাইলেও সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, গরীব হওয়ার সুবিধা অনেক। অনেক সুবিধার মধ্যে অল্প কিছু সুবিধার দিকে আমরা আজ আলোকপাত করব। সুবিধা সম্পর্কে জানার পর নিজের জীবন নিয়ে আপনার দুঃখ চক্রবৃদ্ধিহারে কমে আসবে। চলুন দেখা যাক...

১#

গরীব হওয়ায় আপনার নিয়মিত রিকশা, উবার, পাঠাওতে চড়বার সামর্থ্য নেই। মাইলের পর মাইল আপনি হেঁটেই যাচ্ছেন। এতে নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে আপনার ওজন, উচ্চ রক্তচাপ এবং ডায়াবেটিসের মতো কিছু দুরারোগ্য অসুখ। সাথে বেঁচে যাচ্ছে আপনার মাসে মাসে চিকিৎসার পেছনে ব্যয় হওয়া খরচও!

২#

শো রুমে গিয়ে দামি দামি জিনিস কেনার ইচ্ছা হয় না। খালি পকেটের কথা মনে পড়লে সেদিকে তাকানোর কথাও আপনি ভুলে যাবেন। এতে করে সেভ হবে বেশ খানিকটা সময়।

৩#

বন্ধুরা ট্রিটের জন্য চাপ দেয় না। গরীবের কাছে আবার কীসের ট্রিট? তবে আপনি নির্দ্বিধায় তাদের সাথে রেস্টুরেন্টে বসে থাকতে পারেন। গরীব হওয়ার উছিলায় পেট পুরে পেয়েও যেতে পারেন এক বেলার খাবার।

৪#

গরীব হলে 'আমার ইয়ে মারলেও টাকা বের হবে না' বলতে লজ্জা লাগে না। গরীবের লজ্জা শরম থাকা এক ধরনের বিলাসীতা।

 

৫#

একই জিনিস রি-ইউজ, রিসাইকেল করার জন্য আপনি পরিণত হন একজন এনভায়রনমেন্ট ফ্রেন্ডলি মানুষে। আপনার দ্বারা উৎপাদিত ওয়েস্টের পরিমাণ পরিবেশের জন্য আশঙ্কামুক্ত এবং গরীব হলেও আপনাকে সচেতন নাগরিকের সার্টিফিকেট দেওয়াই যায়।  

৬#

গরীব হওয়ায় আপনার যেখানে সেখানে বড় অঙ্কের ইনভেস্ট কিংবা বীমা করার সামর্থ্য হবে না। এজন্য আপনি বেঁচে যাবেন ইভ্যালি, ডেসটিনি, এমটিএফই এর মতো প্রতিষ্ঠানের প্রতারণার হাত থেকে।

৭#

গরীবের সুসময় দুঃসময় বলতে আলাদা কিছু নেই। সকল সময়ই একই রকম। আর ঠিক এই কারণে সুসময়ের কোকিলও তাদের জীবনে আনাগোনা করে না। যারা তাদের পাশে থাকে, তারা সত্যিকার অর্থেই থাকে।

৮#

পকেট ফাঁকা হওয়ায় আপনার দেশে বিদেশে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার ইচ্ছা হবে না। খুব ইচ্ছা হলে বড়জোর ঘরে বসে ইউটিউবই শেষ ভরসা। আর যেহেতু ঘর থেকে বের হওয়া কম, রাস্তাঘাটে দুর্ঘটনার মুখে পড়ার সম্ভাবনাও কম। গরীব হওয়ায় আপনার প্রাণহানির ঝুঁকিও কমে যাচ্ছে।

৯#

৯৯.৯৯% গরীব লোকদের দামাদামি করার ক্ষমতা হয় তুখোড়। এই দামাদামি করা জীবনের শুরুতে কেবল বাজার পর্যন্ত সীমাবদ্ধ থাকলেও পরবর্তীতে জীবনের সর্বক্ষেত্রে কাজে আসে। শুধুমাত্র গরীব হওয়ায় আপনি অর্জন করতে পারছেন একটি লাইফ লং স্কিল..

১০#

গরীব হওয়ায় আপনি নিয়মিত মাছ মাংস রান্না করা কিংবা খেতে না পারলেও আপনার নিত্যদিনের সাথী হবে শাক সবজি। এর অর্থ হচ্ছে, আপনি টাকা বাঁচানোর সাথে সাথে পেয়ে যাচ্ছেন হেলদি ফুড হ্যাবিটও। শুধু তাই নয়, প্রয়োজনীয়তাই উদ্ভাবনের জনক হওয়ায় স্বল্প বাজেটের চেষ্টার মধ্যেই মিটতে থাকে মাছ মাংসের সমপরিমাণ প্রোটিনের চাহিদাও।

৫৯৬ পঠিত ... ১৮:০৪, অক্টোবর ০৭, ২০২৩

Top