মেয়রপ্রার্থী আতিকুল চা বানানোর পাশাপাশি আরও যে ১০টি কাজ করতে পারেন

৬০৭ পঠিত ... ২১:০২, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

ঢাকা উত্তরের আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম একটি চায়ের দোকানে বসে চা বানিয়ে খুব আলোচনায় এসেছেন। অনেকে এটাকে স্ট্যান্টবাজি আক্ষাও দিচ্ছেন। ভাইরাল হওয়া ভিডিও ফুটেজের সাউন্ড থেকে জানা যায়, ভিডিও করার সময় থেকেই উনাদের জানা হয়ে গিয়েছিলো এই ভিডিও ভাইরাল হবে!
তবে মেয়রপ্রার্থীকে কি প্রচারণার জন্য শুধু চা বানালেই হবে? এর চেয়েও কিন্তু অনেক 'টাচি' কিংবা 'সেনসিটিভ' কাজ আছে, যেগুলো করলে নির্বাচনে জেতার সম্ভাবনা (হা হা হা, কী কারণে হাসি জিজ্ঞেস করবেন না প্লিজ) অনেক বেড়ে যায়। এমনই কিছু উপায় ভেবে বের করেছেন মাহিদুল ইসলাম নকিব, সেই ভাবার সঙ্গে কিছু 'ভাবি' যুক্ত করেছে eআরকির নির্বাচনী স্টান্ট বিশেষজ্ঞ দল।

১# তরুণ ভোটারদের কাছাকাছি আসার জন্য জাতীয় ইন্টারনেট সমস্যার সমাধান রাউটার রিস্টার্ট করে দিতে পারেন। হারপিকের ফেরদৌস, জাহিস হাসানদের মতো হুটহাট পৌঁছে যাবেন কোন এক ব্যাচেলর বাসায়, এরপর নিজ হাতে রাউটার অন-অফ করবেন। তরুণদের একটা ভোটও মিস হবে না।

২# বেঙ্গল বই আর সুলতান ডাইন্সে জায়গা পাওয়া খুবই চ্যালেঞ্জিং। প্রার্থী চাইলে তাদের ভোটারদের জন্য এই টাইপের চ্যালেঞ্জিং প্লেসে গিয়ে জায়গা দখল করতে পারেন।

৩# অনেক এলাকায় সারাবছরই রাস্তার উপরে ময়লা ফেলে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করে রাখা হয়। ভোটের আগে উক্ত এলাকায় নিজের তত্ত্বাবধানে রাস্তা পরিস্কার করে এলাকার মানুষের সাথে সেলফি তুলতে পারে। এমন কাজ মেয়র থাকাকালে আতিকুল সাহেব কিন্তু করেছেন একবার, তবে একটু ভিন্ন স্টাইলে... এই লিংকে দেখুন।

৪# যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে সোশাল মিডিয়া খুব কাজের। প্রার্থীর আইডিতে লোক বসিয়ে এলাকার ভোটারদের আইডিতে লাইক কমেন্ট করতে পারেন ফুটেজসহ। তবে নিজ হাতে নিজ আইডি দিয়ে সব ভোটারের পোস্টে লাইক/লাভ দিলে সেক্ষেত্রে একশান হবে একেবারে ডাইরেক্ট!

৫# গরিব মুভিখোর ভোটারদের জন্য মুভি/টিভি সিরিজ ডাউনলোড করে পেনড্রাইভে বিতরণ করতে পারে নিজের ব্র‍্যান্ডিংসহ...

৬# মিরপুরবাসীদের স্কুল-কলেজ কিংবা অফিসে যাওয়ার সময় রিকশা-সিএনজি ঠিক করে দিতে পারেন। চাইলে নিজের মোবাইল দিয়ে উবার-পাঠাও ডেকে দিলেও কাজ হবে।

৭# শীতের মৌসুম, প্রায় সব পিঠা বিক্রেতার দোকানের সামনেই কমবেশি ভীড় থাকে। প্রার্থী পিঠা বানিয়ে খাওয়াতে পারেন।

৮# তরুণ ভোটার বিশেষ করে নারী ভোটারদের কাছে আসতে ফুচকার দোকানে একটু সময় দেয়া যেতে পারে।

৯# ঢাকার রাস্তায় শীতবস্ত্র ছাড়া শুয়ে থাকা মানুষগুলোকে কাজের লাগানোর এইটাই সেরা সময়। মাঝরাতে বেশ কিছু শীতবস্ত্র গায়ে দিয়ে বের হতে হবে। এরপর, রাস্তায় যাকে যেখানে পাবে সেখানেই নিজের গা থেকে একটা করে জামা খুলে দিবে। খেয়াল রাখতে হবে, বাসায় ফেরার সময় গায়ে যেন মাত্র একটি হাফপ্যান্ট থাকে।

১০# পারফর্মিং আর্ট করে দেখা যেতে পারে। পারফর্মিং আর্টের বিষয় বস্তু সিলেক্ট করা যেতে পারে ভোট দেয়াকেই। সুর্য ডুবে যাওয়ার পর বা সূর্য ওঠার আগে ভোট দিতে হয় তার একটা পারফর্মিং আর্ট ভয়ানক কাজে দিবে।

৬০৭ পঠিত ... ২১:০২, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

Top