সংসার চালাতে বাংলাদেশে মেম্বার ইলেকশন করতে চান বরিস জনসন

১২৫৯ পঠিত ... ১৭:৪৮, অক্টোবর ২০, ২০২০

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হয়েও সংসার চালাতে হিমসিম খাচ্ছেন বরিস জনসন। ঘনিষ্ট বন্ধুমহলে প্রধানমন্ত্রীত্ব ছেড়ে দেয়ার কথাও বলেছেন তিনি। মেট্রো ইউকে ও টাইমস নাউ নিউজ সূত্রে জানা যায় এমন খবর।

তবে বরিস জনসনের একটি ফেক আইডি থেকে eআরকি উদ্ধার করেছে এক্সক্লুসিভ একটি নিউজ। একান্ত ব্যক্তিগত মেসেজে বরিস eআরকির কাছে বাংলাদেশে মেম্বার ইলেকশন করতে চাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

তিনি বলেন, সংসার চালাতে হিমশিম খেয়ে আমার রাজনৈতিক বন্ধু নোয়াখালীর এক ইউপি মেম্বারের সাথে আলোচনা করি। তিনি আমাকে এই পরামর্শ দেন।

ইউপি মেম্বারের রেফারেন্স দিয়ে জনসন বলেন, করোনার সময় চালের টাকার ইনকামেই নাকি ১০ বছর বসে খেতে পারবেন আমার ওই বন্ধু। কোন এক ছাত্রনেতা নাকি ২০০০ কোটি টাকার মালিক। এখানে ওয়ার্ড কমিটি দিয়েই নাকি হাজার কোটি টাকা ইনকাম করা যায়। এমনকি সরকারি ড্রাইভারের ইনকামও আমার চেয়ে বেশি! কেন আসব না বাংলাদেশে বলেন?'

বরিস জনসনের এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগতম জানিয়েছেন বাংলাদেশের মেম্বাররা। তবে একই সাথে বরিসকে বলদ আখ্যায়িত করে একজন বলেন, 'এত বড় দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় লোকটাকে বুদ্ধিমান ভাবছিলাম। হালায় দেখি বলদ। শুধু বেতনের দিকে তাকাইয়া থাকলে হয়? আমাগো বেতনও ২০০০ টাকা। কিন্তু আমরা তো নিজের সংসারও চালাই, চৌদ্দগুষ্টির সংসারও চালাই।'

বরিসকে দ্বিতীয়বারের মতো বলদ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, 'কত বড় বলদ হইলে একটা দেশের প্রধানমন্ত্রীত্ব ছেড়ে পুরোনো পেশায় ফিরতে চায়। আমরা তো আজীবন মেয়াদের মেম্বার হই।'

এত বড় বলদ এতবড় দেশ ক্যামনে চালাচ্ছে তা নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করেন এই ইউপি মেম্বার।

তবে বাংলাদেশে মেম্বার ইলেকশন করতে আসলেও প্রতিপক্ষের সাথে ফাইট দিয়ে জিততে পারবেন না বরিস, এমনটাও জানান অনেকে।

১২৫৯ পঠিত ... ১৭:৪৮, অক্টোবর ২০, ২০২০

Top