সরকারি অনুদানে বিদেশে শ্যুটিং, নির্মিত হতে যাচ্ছে সিনেমা 'আলুবাবা ও চল্লিশ চোর'

৮৫০৭ পঠিত ... ২০:২৬, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯

সরকারি ট্যুরিজম এবার ছড়িয়ে পড়লো কৃষিক্ষেত্রেও। আলু চাষ দেখতে ইউরোপে যাবেন কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের ৪০ জন সরকারি কর্মকর্তা। আলু চাষ দেখতে যেতে এই ৪০ জনের প্রতিজনের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৭ লাখ টাকা। আলু চাষ দেখতে ৪০ জনের এই ইউরোপ যাত্রার পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান এমন দারুণ একটি পরামর্শ দেয়ার জন্য পাবেন ২ কোটি টাকা। খবর: দেশ রুপান্তর।

বেশি করে আলু খেয়ে ভাতের উপর চাপ কমাইতে চাওয়া eআরকির আলুখোর টিম উন্নত আলুর খবর নিতে সরেজমিনে গিয়ে বেশ হতাশ হয়ে পড়েন। কারণ সরেজমিনে গিয়েই জানা যায়, এই কর্মকর্তারা আসলে আলু চাষ দেখার জন্য ইউরোপ যাচ্ছেন না। যাচ্ছেন সরকারি অনুদানে নির্মিত ‘আলুবাবা ও চল্লিশ চোর’ নামে একটি সিনেমার শুটিংয়ে।

হতাশ হয়ে গেলেও খবর সংগ্রহ তো করতে হবে। তাই কিছু সুস্বাদু দেশি আলু খেয়েই ওই ৪০ কর্মকর্তার কাছে সিনেমা সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, 'দেশের সিনেমার অবস্থা তো আসলে ভালো না। কয়েক দিন আগে ন ডরাই নামে একটা সিনেমা রিলিজ হওয়ার পর সবাই এমন ডরান ডরাইছে সিনেমা শিল্প থেকে মানুষ মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। সেজন্যই আসলে সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, পপুলার স্টোরিগুলার সরকারি এডাপশন করে বিভিন্ন সিনেমা বানাবে। পুরা সিনেমারই হবে বিদেশে শ্যুটিং! আমাদের সিনেমাটাও হতে যাচ্ছে এমনই একটি!'

এটা এমন কততম সিনেমা তা জানতে চাইলে একজন অনেকক্ষণ ধরে সায়েন্টিফিক ক্যালকুলেটরে হিসেব করেও কোন হিসেব মেলাতে পারেননি।

আপনাদের মধ্যে কে সিনেমাটি পরিচালনা করবেন জানতে চাইলে তারা বলেন, 'আমরা আসলে কেউই সিনেমার পরিচালক না, আমরা ৪০ জনই অভিনেতা। সরকারের টাকা বাঁচানোর জন্য ‘চল্লিশ চোর' চরিত্রে আমরা ৪০ জন অভিনয় করবো।'

শুধুমাত্র টাকার জন্যই কি সিনেমাতে হলিউড-বলিউডের কোন অভিনেতাকে নেয়া হচ্ছে না জানতে চাইলে তারা বলেন, 'শুধু টাকাও মূল ইস্যু না আসলে। চরিত্রের সাথে খাপ-খাওয়ানো, চরিত্রের ভিতর বাস করা, চরিত্রকে ধারণ করাও একটা ম্যাটার। এই সিনেমা যে বিদেশি পরিচালক পরিচালনা করছেন তিনিই বলেছেন, এই ধরনের চরিত্রের জন্য নাকি আমরাই বেস্ট।'

৮৫০৭ পঠিত ... ২০:২৬, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯

Top