আজকের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে ঘোষণা করা হলো নো ফ্লায়িং জোন

১৪৩ পঠিত ... ১৫:১২, নভেম্বর ১৯, ২০২২

No-fly-zone

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে সমাবর্তনের আয়োজন। ঝাঁকে ঝাঁকে শিক্ষার্থীরা যাচ্ছে নিজেদের সমাবর্তনের দিন উপভোগ করতে। সবাই নিজেদের গ্রাজুয়েশন ক্যাপ ওড়ানোর জন্যই আনন্দিত। তাদের এই আনন্দঘন মুহুর্তকে আরও নিরাপদ ও আনন্দময় করতে প্রশাসন নিয়ে এলো এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ। আজকের জন্য ঘোষণা করলো, ‘নো ফ্লায়িং জোন।‘

এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার পিছনে কী কারণ, তা বিস্তারিত জানতে প্রশাসনের সাথে কথা বললে তারা জানান, ‘আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাবর্তন। সবাইকে গ্রাজুয়েশন ক্যাপ দেয়া হবে। শিক্ষার্থীরা তাদের এই ক্যাপ নিয়ে আকাশে ওড়ায়। তাদের এই এত এত ক্যাপ আকাশে উড়ানোর জন্য পাইলটরা যথেষ্ট আতংকে থাকে। কারণ যেকোনো সময় এসব ক্যাপ প্লেনে লেগে ঘটতে পারে দূর্ঘটনা। অনেক পাখিরা নিশ্চিন্তে ওড়ার জন্য হবে বাঁধার সম্মুখীন। তাছাড়া গত বছরের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানাল, “ক্যাপ ওড়ানোতেও অনেক ঝামেলা হয়, ঠিকঠাকভাবে ক্যাপ ফেরত পাওয়া যায় না।“ এসব দূর্ঘটনা এড়াতে এবার আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।‘ 

বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে দূর্ঘটনা ঘটার আশংকা নিয়ে প্রশ্ন করলে তারা বলেন, ‘একে তো আমরা এত বড় একটা প্লেন আকাশে ওড়াই। তার উপর আকাশে মেঘ, পাখি কতকিছু দেখে প্লেন চালাতে হয়। সমাবর্তনের দিনে এই ক্যাপ আমাদের টেনশন আরও বাড়িয়ে দেয়। বিমানে আঘাত লাগলে তো রক্ষা নেই। প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্ত আসলেই প্রশংসার যোগ্য। আমরাও সব পাইলটদের বলে দিয়েছি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের র‍্যুটটা এড়িয়ে চলার জন্য। শাহবাগ আর গুলিস্তানের মোড় দিয়ে গেলেই হবে। এমনকি আমরা পাখিদেরও এমন সিদ্ধান্তে আহবান জানিয়েছি, আমরা আশা রাখছি তারাও রাজি হবে।‘

এদিকে এমন সিদ্ধান্তে খুশী হয়েছেন সব শিক্ষার্থীরা। তারা জানালেন, ‘এটা একটা ট্রেন্ড হয়ে গেছে। এটাই এদিনের প্রধান আকর্ষণ। আমাদের ব্যাচের আমি সহ বাকিরা এটার জন্যই সমাবর্তনের এত অপেক্ষা করছিলাম। কিন্তু আকাশে ক্যাপ ছুঁড়ে দেয়ার পর সেই ক্যাপ যদি অক্ষত অবস্থায় না ফেরে, ক্যাপ মুখে নিয়ে যদি ঢাকা শহরের কাক চলে আসে; তাহলে কী ভালো লাগে বলেন? এবার তো জমবে আসল মজা, আকাশ থাকবে ফাঁকা, এমন জোরে ক্যাপ মারবো নামতে নামতে পাক্কা দশ মিনিট লাগবে দেইখেন।‘  

এদিকে এক প্রাক্তন শিক্ষার্থী জানালেন, ‘আগেরবার আমাদের সময় এমন কিছু করা হয় নাই, পোলাপানের ক্যাপ বিমানে লেগে ছিঁড়া ক্যাপ ফেরত আসছিল। আবার দুইটা বিমান দিক হারায়ে এক্সিডেন্টও করছিল। আমার ক্যাপতো বিমানের ডানায় লেগে আর ফেরতই আসে নি। ভেবেছিলাম এবারেও এমন হবে কিন্তু এদেরতো দেখি ভাগ্য ভালো।‘

১৪৩ পঠিত ... ১৫:১২, নভেম্বর ১৯, ২০২২

Top