দুই নৌকায় পা রাখতে চাইনি বলেই আরেক পা ধানের শীষে রেখেছি: রায়হান রনি

২৮৭ পঠিত ... ১৪:৩৩, জুন ২০, ২০২১

Dui-noukay-Pa

মো. রায়হান রনি। থাকেন ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায়। অভিযোগ উঠেছে, তিনি ফরিদপুরের পৌর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক থাকা অবস্থাতেই পৌর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ পেয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নিজের দার্শনিক সত্তাকে জাগিয়ে এই তুখোড় কর্মী একটি ফেক আইডি থেকে বলেন, 'দুই নৌকায় পা দিতে চাইনি বলেই এক পা ধানের শীষে রেখেছি। নিজের দূরদৃষ্টির প্রমাণ দেখিয়ে তিনি আরো বলেন, 'ছোটবেলা থেকেই শুনেছি দুই নৌকায় পা দিলে বিপদে পড়তে হয়। নিজের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে শুরুতেই এভাবে বিপদে ফেলতে চাই না। এদিকে আমাকে দুইটা পা দিয়ে আরো বিপদে ফেলা হইছে। এক পা থাকলে না হয় নৌকাতেই রাখতাম!'

নিজেকে রাজনীতির মাঠের একজন একনিষ্ঠ কর্মী দাবি করে তিনি বলেন, 'কর্মীর মত কর্মী হলে দুই দলেই পদ পাওয়া যায়।'

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিজের রাজনৈতিক আদর্শ বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, 'বিশ্বকবি সোনার তরী কবিতা লেখেই আমার ভেতর এমন প্যারালাল রাজনৈতিক চর্চার বীজ বপন করে গিয়েছেন। ওই কবিতায় তিনি একটা নৌকায় সোনার ধান তুলেছেন। সেই লক্ষ্যে আমিও ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলকে এক জায়গায় আনতে চেয়েছি।'

আরো অনেক রাজনৈতিক দল থেকেও অফার পাচ্ছেন বলেও এই কর্মী। ইতোমধ্যে ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্রমৈত্রী, ছাত্রফ্রন্ট, ছাত্র অধিকার পরিষদ সহ একাধিক দল তাকে পদ সাধছেন বলে একটি ভূয়া সূত্র থেকে জানা গেছে। তবে জাপা ছাত্রপার্টি থেকে অফার পেলেই কেবল যোগ দেয়ার বিষয়ে ভাববেন বলে জানান তিনি।

২৮৭ পঠিত ... ১৪:৩৩, জুন ২০, ২০২১

Top