পুলিশ ভাইদের কাছে জনগণের 'মারার আগে স্যানিটাইজার দিয়ে লাঠি পরিষ্কার' করার অনুরোধ

৬৫২ পঠিত ... ১৯:৩৯, মার্চ ২৬, ২০২০

করোনা প্রতিরোধে কেউ যেন অযথা বাইরে ঘোরাফেরা না করে, সেজন্য সেনা ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সারাদেশই প্রায় অবরুদ্ধ, কোন স্থানেই একধিক মানুষকে জড় হতে দিচ্ছে না প্রশাসন। বিশেষ কাজে কেউ বাইরে গেলেও মাস্ক না থাকলে খেতে হচ্ছে সেনাবাহিনী ও পুলিশের হালকা উত্তমমধ্যম।

তাও কিছু মানুষ বাইরে আসছে, উত্তমমধ্যমও খাচ্ছে। উত্তমমধ্যম খেতে তাদের খুব একটা আপত্তিও নেই। তবে অনেকেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে অনুরোধ করছে, মারার আগে যেন লাঠিটিকে স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করা হয়।

পুলিশের লাঠির বাড়ি খেয়ে ব্যথায় কঁকিয়ে দৌঁড়াতে থাকা একজনের কাছে ব্যথা বেশি লেগেছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'ব্যথার জন্য তো দৌঁড়াচ্ছি না ভাই, দৌঁড়াচ্ছি করোনার ভয়ে।'

পুলিশ তো আপনাকে লাঠি দিয়ে মেরেছে, করোনার ভয় কেন পাচ্ছেন? জানতে চাইলে সচেতন ভাইটি জানান, 'পুলিশ যে লাঠি দিয়ে বাড়ি দিচ্ছে ওই লাঠিটা দিয়ে এর আগেও একজনকে বাড়ি দিছিলো দেখলাম। লাঠিটি স্যানিটাইজার দিয়ে না ধুয়েই আমাকে বাড়ি দিয়েছে। খুবই চিন্তায় আছি ভাই। এবার যদি আমার করোনা হয়!'

তবে 'করোনায় ঘোরার দল' সংগঠনের এক সদস্য আমাদের বলেন সম্পূর্ণ ভিন্ন কথা। তিনি আমাদেরকে ফিল্টার মেসেজ দিয়ে বলেন, 'শুনছি স্যানিটাইজারে নাকি অ্যালকোহল থাকে! স্যানিটাইজার দিয়ে লাঠি ধুয়ে মারলে একটু পিনিকও করতে পারতাম আর কি! কতদিন কোনদিকে যাইতে পারি না ভাই! পিনিকের স্বাদ মাইরে হইলেও মিটানো যাবে এই সুযোগে।

'করোনায় ঘোরার দল' সংগঠনের অন্যতম এক মুখপাত্র পুলিশ ও সেনাবাহিনীর ফেক ফেসবুক পেজকে মেনশন করে লিখেন, 'আমরা বাইরে বের হচ্ছি বলে কি আমাদের নাগরিক অধিকার নেই? মাইর দিবেন বেশ ভালো কথা, স্বাস্থ্যসম্মত মাইর দেন। স্যানিটাইজার দিয়ে লাঠি না ধুয়ে প্লিজ মারবেন না! আমাদের করোনা হতে পারে। আপনাদের মাইর খেয়ে মরি, তাও করোনায় যেন না মরি।'

প্রয়োজনে পুলিশের লাঠি ধোয়ার জন্য নিজেরাই স্যানিটাইজার নিয়ে ঘুরতে আসবেন বলেও জানান সংগঠনের এই অন্যতম মুখপাত্র।

৬৫২ পঠিত ... ১৯:৩৯, মার্চ ২৬, ২০২০

Top