পদ্মা সেতুতে প্রথম মূত্র নিঃসরণ করে ইতিহাসে নাম লেখালেন বরিশালের তারেক

২৩০৯ পঠিত ... ১৭:৪০, জুন ২৬, ২০২২

Prothom-mutro-bishorjon

গত ২৫ জুন ছিলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন। এরপর থেকেই মানুষের চিন্তা-ভাবনা, স্বপ্ন-আকাঙ্ক্ষা জুড়ে আছে পদ্মা সেতু। এদের মধ্যে কেউ কেউ আবার ভীষণ উচ্চাভিলাষী। পদ্মা সেতুর সাথে ইতিহাস তৈরির স্বপ্নে তারা বিভোর। এক অবিশ্বস্ত সঙবাদ সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা সেতুতে প্রথম বমি করে মিডিয়া কাভারেজ ও বাংলাদেশের  ইতিহাসে নাম লিখিয়েছেন পেয়েছেন বরিশালের সাদিয়া। এ ঘটনার খুব বেশিক্ষণ অতিক্রম না হতেই ভিন্ন আরেক ক্যাটাগরিতে নাম লিখিয়েছেন বরিশালের তারেক (২১) নামের এক তরুণ। জানা যায়, পদ্মা সেতুতে প্রথম ইয়ে করে সবাইকে তাক লাগিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছেন তারেক।   

এ ব্যাপারে তারেকের গর্বিত পিতা জানান, ‘ছোটবেলা থেকেই ছেলেকে লুজার হিসেবে ট্রিট করতাম, মানুষের ছেলেমেয়ের সাথে তুলনা দিতাম। এতদিন পর এসে বুঝতে পারছি আমি ভুল ছিলাম। আজ পদ্মা সেতুর বদৌলতে ওকে সারা বাংলাদেশ চিনে। যেখানেই যাচ্ছি মানুষ জিজ্ঞেস করছে আমি হিসু করা তারেকের বাবা কি-না। কী যে গর্ববোধ হচ্ছে ভাষায় প্রকাশ করার মতো না...!’

তারেকের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি জানান, ‘পদ্মা সেতু উদ্বোধনের অনেক দিন আগে থেকেই প্ল্যান ছিল বিশেষ কিছু করার। কিন্তু কী করবো সেটা বুঝতে পারছিলাম না। তাই ঠিক করলাম সারা জীবনের ঐতিহ্য ধরে রাখতে পদ্মা সেতুর উপর ব্লাডারটা খালি করে আসবো। আমার অবশ্য এবারই এটি প্রথম নয়। এর আগেও আমি যমুনা সেতু, লালন শাহ সেতু, হার্ডিঞ্জ সেতুর উপরে হিসু করছি। কিন্তু পদ্মা নদীর উপরে মুতার, মানে হিসু করার মজাটাই আলাদা! যে একবার না করবে, সারাজীবনেও এই অনুভূতি টের পাবে না...’

শুধু তাই নয়, তারেক আরও বলেন, ‘ভাবতেই আনন্দ লাগছে আমার নাম পরবর্তী বিসিএস, ব্যাংকের পরীক্ষা সব জায়গায় আসবে। শুধু তাই নয়, আমার প্রস্রাবের প্রকৃতি কেমন ছিলো—অম্লীয় নাকি ক্ষারীয়, স্পেসিফিক গ্রাভিটি,পিএইচ কতো ছিলো, অ্যামোনিয়ার পরিমাণ কতো—সবকিছু পরীক্ষায় আসবে। এর আগে জীবনে কারও প্রস্রাব এত গুরুত্ব পেয়েছে কিনা আমার সন্দেহ আছে। সেক্ষেত্রে গিনের বুকেও নাম উঠতে পারে। এত ফুটেজ পাবো জানলে হিসুর সাথে একটু ইয়েও করে আসতাম...!’

তবে এদিকে তারেকের বন্ধুরা তার এই 'ডেস্টিনেশন পিইং (Destination peeing)'-কে নাকচ করে দিয়েছেন। মনোয়ার নামের এক বন্ধু বলেন, ‘তারেইক্যা তো ডায়াবেটিসের রোগী। একটু পরপর যেখানেই যায়, সেখানেই ওর চাপে। এসব কিছু ইস্পিশাল না। সেতু না থাকলে ও লুঙ্গিতেই করবো। এইসব আমাদের জানা আছে...!’

যদিও তারেকের এমন কাণ্ডে খুব একটা খুশি হতে পারেননি তারেকের এলাকার এক মুরুব্বি। প্রশ্ন রেখে এই মুরুব্বি বলেন, ‘তারেক যে ওখানে ইয়ে করলো। ও কি ঢিলা-কুলুপ করছে?’

২৩০৯ পঠিত ... ১৭:৪০, জুন ২৬, ২০২২

Top