রাজশাহীর ৮টি আমবাগানের ব্র্যান্ড আমব্যাসেডর হওয়ার প্রস্তাব পেলেন শবনম ফারিয়া

৩৫৫ পঠিত ... ২৩:০৮, জুন ২৮, ২০২০

ল্যাংড়া, ফজলি, আম্রফলিসহ নানা জাতের আম পছন্দ করেন শবনম ফারিয়া। জাতীয় দৈনিক প্রথম আলোর এক শিরোনাম (ফারিয়ার স্ট্যাটাস থেকে যেটি খবর হিসেবে ছাপা হয়) থেকে জানা যায়, খেতে খেতে টানা ৮টি আম খেয়ে ফেলেছেন তিনি। এমন শিরোনামে ফারিয়া বিরক্ত হলেও দেখা যাচ্ছে, বিষয়টা শাপেবর হয়েছে তার জন্য। রাজশাহীর ৮টি আম বাগানের মালিক তাদের বাগানের ব্র‍্যান্ড 'আমব্যাসেডর' হিসেবে চান শবনম ফারিয়াকে। সম্পূর্ণ ভূয়া এক সোর্স থেকে এমনটা নিশ্চিত হয়েছে eআরকি।

রাজশাহীর আম ও আমবাগান সারা বাংলাদেশে আম সাপ্লাই দিয়ে আসছে বছরের পর বছর। অথচ যথাযথ ব্র্যান্ডিং না হওয়ায় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ন্যায্য খ্যাতি পায়নি রাজশাহীর আম। এমনটা জানিয়ে এক বাগানী বলেন, 'অ্যাম্বাসেডর অনেকেই হতে চেয়েছে। কিন্তু আমাদের প্রয়োজন আমব্যাসেডর, মানে আমপ্রিয়তায় খ্যাতি আছে যার। আর আজকে নিউজটা ভাইরাল হওয়ার পর, ফারিয়া আপা ছাড়া কারও কথাই ভাবতে পারছি না।

আমবাগানের একজন যোগ্য আমব্যাসেডরের প্রয়োজনীয়তা জানালেন আরেক বাগানীও, 'কাঁচা আম খাওয়ার ব্যাপারে মেয়েদের যথেষ্ট আগ্রহ আছে। কাঁচা আমখোর হিসেবে আছে নামডাকও। কিন্তু পাকা আমের বিষয়ে কেমন যেন মুখচোরা তারা। আবার অন্যদিকে তারকারা প্রক্রিয়াজাত করা অস্বাস্থ্যকর আমের জুসের জন্য কাজ করলেও, ফরমালিনমুক্ত পাকা আমের জন্য কিছুই করেন না। এই পরিস্থিতি পরিবর্তনের জন্য শবনম ফারিয়া আপুই সবচেয়ে ভালো চয়েজ।'

পাকা আমের জনপ্রিয়তায় এভাবে এগিয়ে আসার জন্য ফারিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন প্রায় সব আমবাগান মালিকরাই। তবে সেজন্য প্রথম আলোকে ধন্যবাদ দিতেও তারা ভুলেননি। প্রথম আলোর বিনোদন বিভাগের জন্য কয়েক ঝুড়ি আম পার্সেল করে তারা বলেন, 'প্রথম আলো এমন শিরোনাম না করলে আমরা জানতেই পারতাম না, একটানা ৮ টা আম খাওয়া যায়। আমরা নিজেরাও কোনোদিন খাইনি।'

এ বিষয়ে ফারিয়ার একাধিক ফেক আইডি থেকে শবনম পারিয়া নামক একটি আইডিতে নক দিলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, 'সকাল থেকে ফোন পেতে পেতে ৮টি আমবাগানের ব্র‍্যান্ড আমব্যাসেডর হওয়ার ফোন পেয়েছি। কিন্তু স্ক্রিপ্ট পছন্দ না হওয়ায় সবাইকেই প্রথম আলো বিনোদন বিভাগে রেফার করেছি।'

৩৫৫ পঠিত ... ২৩:০৮, জুন ২৮, ২০২০

Top