সিনেমা হলে যে ১০ ধরনের দর্শকের সাথে আপনার দেখা হবেই

৬০০ পঠিত ... ০০:১৫, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

সিনেমাহলের ব্যবসা বাংলাদেশে অনেক বছর ধরেই খুব একটা সুবিধাজনক অবস্থায় নেই। তারপরও দেশি-বিদেশি ভালো সিনেমার খোঁজ পেলেই মধ্যবিত্ত দর্শক ভিড় জমাতো মাল্টিপ্লেক্সগুলোতে। করোনা আসার পর সেসবও এখন বন্ধ। চলুন সিনেমাহলের এই স্থবির সময়ে সিনেমা হলের দর্শকদের নিয়ে কিছু স্মৃতিচারণ করা যাক। সিনেমা হলে গেলে কোন ১০ ধরনের দর্শকের সঙ্গে আপনার দেখা হবে, নেটফ্লিক্স এন্ড চিল করতে করতে সেসব ভেবে বের করেছে eআরকির সিনেমাবাজরা!

১# আবেগে থরো থরো দর্শক
এই ধরনের দর্শককে কথায় কথায় আবেগে ধরে বসে। নায়িকা যখন নায়ককে ছেড়ে চলে যেতে চায়, এই দর্শকরাই চেয়ারের ওপর দাঁড়িয়ে বলে ওঠেন- না না প্রিয়া, আশিককে ছেড়ে তুমি যেয়ো না। ও বড় ভালো ছেলে!

২# কুম্ভকর্ণ দর্শক
সিনেমার মধ্যে অ্যাকশান, ক্লাইমেক্স, বোমাবাজি, ঝড়, সাইক্লোন, কেয়ামত যা-ই হোক না কেন, ইনারা সিটে হেলাম দিয়ে ঘুম দিয়ে নাক ডাকেন। এদের বেডরুমের বিছানা থেকে হলের সিটেই বেশি ঘুম পায়।

৩# নাক উঁচু দর্শক
যত ভালো মুভিই হোক, এরা একটু নাক টেনে বলবেন- 'না, এমন কী আর ছবি! শেষ ভালো ছবি দেখেছিলাম মাখমালবাফের। আর কিছুটা ছিলো মৃণাল রায়। আর কারো ছবি দেখা যায় না।' তবু সিনেমা হলে যাবতীয় বিনোদনধর্মী ছবিতেই এদেরকে দর্শক হিসেবে পাওয়া যায়।

৪# খাদক দর্শক
এই শ্রেণীর দর্শকের কাজই হলো সিনেমা হলে ঢুকে খাওয়া-দাওয়া করা। তারা হলে ঢুকে প্রথমে ক্যান্টিনে সিরিয়াল দিয়ে কোক আর পপকর্ন কেনেন। বিরতির সময়ে আরাম করে স্ন্যাক্স খান। বিরতির পর আবার ঢোকেন চিপস আর মিনারেল ওয়াটার নিয়ে। খাবারের মান ভালো হলেই এদের মুভি দেখা স্বার্থক।

৫# ছিঁচকাঁদুনে দর্শক
সামান্য দুঃখের সিনেই এদের চোখের জলে সিনেমা হল ভেসে যায়। আর ট্র্যাজিক মুভি হলে এদের হেঁচকিতে সিনেমা হলের আশেপাশের এলাকায় টিকে থাকাই মুশকিল।

৬# মুতুড়ি দর্শক
এই শ্রেণীর দর্শকের মুভি চালু হবার দশ মিনিটের মাথায় বেগ চেপে যায়। পনেরো মিনিটের মাথায় তিনি আসল জায়গায় রওনা দেন। এরপর প্রতি পনেরো মিনিট পরপর তিনি আসা-যাওয়ার মধ্যে থাকেন। মুভি যেমনই হোক, দশ-বারোবার ওয়াশরুম ব্যবহার না করলে তার সিনেমা দেখাই ঠিকঠাক হয় না।

৭# হই-চই করা দর্শক
এই শ্রেণীর দর্শক সিনেমা হলে আসেনই হইচই চিল্লাচিল্লি করার জন্য। নায়িকা সিনে আসলেও তিনি সিটি বাজান, নায়িকার বাবা আসলেও। এমনকি নায়কের বাবা হার্ট অ্যাটাকে মারা গেলেও তিনি 'মার শালারে, মার শালারে' বলে চিৎকার দিয়ে ওঠেন।

৮# মোবাইল ওয়ালা দর্শক
এই শ্রেণীর দর্শক জগতের যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ কাজ মাথায় নিয়ে সিনেমা হলে ঢোকেন। এবং সিটে বসা মাত্রই মোবাইল ফোনটা বের করে এর সাথে, তার সাথে জোর গলায় লম্বা আলাপ জুড়ে দেন। কেউ আস্তে কথা বললেও তিনি চোখ গরম করে তাকিয়ে আবার কথায় ব্যস্ত হয়ে যান।

৯# পাইরেট দর্শক
এই সিনেমা নেটফ্লিক্স, ইউটিউব বা টরেন্টে যতো এভেইলেবলই থাকুক, হাতের মোবাইলটা বের করে পুরো সিনেমাটা তিনি রেকর্ড করবেনই। এমনকি হাতের থেকে মোবাইল ফোন নিয়ে গেলেও চোরা পকেট থেকে আরেকটা মোবাইল ফোন বের করে তিনি রেকর্ড করবেন।

১০# ইটিশ-পিটিশ দর্শক
এরা সিনেমা হলে জোড়া কইতর হয়ে ঢোকেন। সিনেমা দেখার দিকে তাঁদের কোনো মনোযোগ থাকে না, তারা নিজেরাই সিনেমা বানান। সিনেমা দেখতে গেলে এদের দিকে না তাকানোই ভালো...

৬০০ পঠিত ... ০০:১৫, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

Top