যে ১৫টি কষ্টের কথা শুধু সিগারেট ছাড়ার চেষ্টা করা লোকেরাই বুঝতে পারবে

১৯৫৪ পঠিত ... ২১:২৫, মে ২০, ২০২০

সিগারেট বা তামাকের নেশাকে বলা হয় পৃথিবীর সবচেয়ে 'অ্যাডিকটিভ' নেশা। স্বাস্থ্যের জন্য চূড়ান্ত ক্ষতিকর এই বস্তুটি ধরা যতটা সহজ, ছাড়া ততটা সহজ নয়! তবু সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে চাইলে সিগারেট ছেড়ে দেয়ার চেষ্টা করার (এবং চেষ্টা করলে অবশ্যই সম্ভব) কোনো বিকল্প নেই। এই চেষ্টার পথ একেবারেই সহজ নয়, সিগারেট ছাড়ার দুর্গম জার্নিতে কতরকম কষ্টের সম্মুখীন হতে হয়, তা শুধু স্মোকাররাই জানেন। আপনি যদি সিগারেট ছাড়ার চেষ্টায় থাকেন অথবা অলরেডি ছেড়ে দিয়ে থাকেন, এই অনুভূতিগুলোর সাথে অবশ্যই রিলেট করতে পারবেন!

১. সিগারেট ছেড়ে দেওয়ার পর নিজেকে একদম কর্মহীন মনে হবে। আপনার মনে হবে যারা ধূমপান করে না তারা ঘুম থেকে জেগে কী করে? একটা গান শোনার সময় তারা কী করে? কিংবা যেকোনো কিছু করার পরই বা কী করে?

২. আপনার সবসময় মনে হবে ঠোঁটের মাঝে অদৃশ্য একটা সিগারেট লেগে আছে, আপনি ধূমপান করছেন।

৩. আপনি আবিষ্কার করবেন ধূমপায়ীদের জন্য কোনো জরুরি কল সেন্টার নেই৷ তাই জরুরি সেবার নম্বরে ফোন করলেই আপনাকে কেউ সিগারেট পৌঁছে দেবে না৷ আর ধূমপায়ীদের জন্য যদি কোনো হেল্পলাইন নাম্বার থাকেও, সেখানে কল করলে সিগারেট পাওয়া যাবে না, পাওয়া যাবে সিগারেট না খাওয়ার মোটিভেশন...

৪. দিনের শেষে আপনি যখন ঘুমাতে যাবেন, মনে হবে সেদিন আপনার দিনই শুরু হয়নি৷ কারণ সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনি একটা সিগারেট খাননি।

৫. আপনার মনে হবে এক কাপ চায়ের সাথে সিগারেট নিয়ে বসা, একটা শুক্রবার পাওয়ার অনুভূতির চেয়েও ভালো৷

৬. আপনি যদি সিগারেট ছাড়ার উপায় বিষয়ক কোনো লিফলেট পড়েন, আপনার ইচ্ছা হবে লিফলেটের কাগজটিই রোল করে সিগারেটের মতো জ্বালাতে৷

 

৭. আপনি ও আপনার কোনো বন্ধু যদি একসাথে সিগারেট ছেড়ে দেন, তাহলে আপনাকে সবসময় প্রস্তুত থাকতে হবে বন্ধুর মুখ থেকে তার ভুল করে জ্বালানো সিগারেটটি কেড়ে নেওয়ার জন্য।

৮. আপনি যদি চুইংগাম বা ললিপপ খেয়ে সিগারেট ছাড়ার চেষ্টা করে থাকেন তাহলে খেয়াল করবেন আপনি সবসময় ললিপপই খাচ্ছেন, চুইংগাম নয়।

 

৯. বৃষ্টি হলে সিগারেট জ্বালাতে ইচ্ছা করবে৷ আপনি ক্লান্ত হলে সিগারেট জ্বালাতে ইচ্ছা করবে। আপনার সাথে যাই ঘটুক আপনার একটা সিগারেট জ্বালাতে ইচ্ছা করবে।

১০. ডাক্তার আপনাকে সিগারেট ছাড়ার পরামর্শ দিলে আপনি সেই ডাক্তারকেই ছেড়ে নতুন ডাক্তার খুঁজবেন।

১১. ধূমপান ছাড়ার জন্য কেউ আপনাকে সিগারেটের পরিবর্তে চুইংগাম চিবানোর পরামর্শ দিতে পারে। কিন্তু আপনার কাছে তা হাস্যকর মনে হবে, কারণ আপনি চুইংগাম জ্বালিয়ে ধূমপান করতে পারবেন না।

১২. আপনি যদি সিগারেট ছাড়ার জন্য জগিং শুরু করেন, তাহলে খুব তাড়াতাড়ি আবিষ্কার করবেন যে সিগারেট খেতে খেতেই জগিং করছেন।

১৩. যেকোনো কঠিন কাজ শেষে আপনার কী মনে হবে?
-একটা সিগারেট জ্বালানো দরকার।

১৪. সিগারেট ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় সিগারেট হাতে বন্ধুদের কাছে ধরা পড়বেন। তখন তাদের বোঝাতে হবে আপনার সিগারেট ছাড়ার ঘোষণাটা আসলে সিরিয়াস কিছু না, একটা ডেয়ার ছিল।

 

১৫. আপনি উপরের সবগুলো পয়েন্ট পড়া শেষ করেছেন? এখন আপনার মনে হচ্ছে না একটা সিগারেট খাওয়া দরকার?

*হেলথলাইন ডটকম অবলম্বনে

১৯৫৪ পঠিত ... ২১:২৫, মে ২০, ২০২০

Top