চ্যাট জিপিটি লিখে ফেলছে গবেষণাপত্র, খুশীতে আত্মহারা বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকরা

৩৩২ পঠিত ... ১৭:১৪, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩

চ্যাট-জিটিপি-লিখে-ফেলছে-গবেষণপত্র,-খুশীতে-আত্মহারা-বাংলাদেশের-বিশ্ববিদ্যালয়-শিক্ষকরা

সাম্প্রতিক সময়ে পৃথিবীর অন্যতম আলোচিত বিষয় কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তাচালিত চ্যাটবট টুল ‘চ্যাটজিপিটি।’ বিশ্বব্যাপী মানুষ মোটামুটি নড়েচড়ে বসেছে নতুন এই প্রযুক্তির আগমনে। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। যেকোনো প্রশ্নে উত্তর দেওয়ার ক্ষমতাসম্পন্ন এই চ্যাটবট সম্পর্কে ধারণা করা হচ্ছে এআই বিপ্লবে নেতৃত্ব দিতে পারে এটি।

সম্প্রতি বাংলাদেশেও পরিচিতি পাওয়া চ্যাট জিপিটি দিয়ে নিজেদের গবেষণাপত্র লিখে খুশিতে একদম আত্মহারা হয়ে গিয়েছেন বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। জানা যায়, এটি ব্যবহার করে গবেষনাপত্র লেখার ফলে তারা এখন প্ল্যাজারিজমের কেসেও ধরা খাচ্ছেন না।

এ ব্যাপার বাস্তব অভিজ্ঞতা জানার জন্য শাহবাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের সা-সমুচা এবং সপবিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রথমেই গেয়ে উঠেন ‘আজকে মোদের বড়ই সুখের দিন, আজ জিপিটি দিয়ে পেপার লিখে হয়েছি স্বাধীন।’

এরপর তিনি বলেন ‘ভাই আমার কি আনন্দ হচ্ছে, আমি সম্প্রতি সা-সমুচা এবং সপের শিল্প ব্যবহার এবং এর ভবিষ্যৎ নামক একটি গবেষণাপত্র লিখছিলাম কিন্তু আমার আগের পেপার ৯৯% প্ল্যাজারাইড হিসেবে কেস খাওয়ার পর থেকেই আমি বেশ আতংকে ছিলাম কই থেকে কপি করলে ধরা খাবো না এ নিয়ে, অবশেষে এই অ্যাপটি আমার জন্য একদম দেবদূতের মতো হাজির হয়েছে।’

অন্যদিকে চ্যাট জিপিটি বিশ্ববিদ্যালয় গবেষকদের জীবনে এমন শান্তি এনে দেওয়াতে এর উদ্ভাবককে শান্তিতে নোবেল দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন নিখিল বাংলা কপি গবেষক সমিতির সদস্যরা।

৩৩২ পঠিত ... ১৭:১৪, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩

Top