শুরু হলো 'সামনেই বড় করে অনুষ্ঠান করবো' সিজন

৪৪৩ পঠিত ... ১২:০০, অক্টোবর ৩১, ২০২২

Boro-kore-onusthan

বছরঘুরে আবারও চলে এসেছে শীতকাল। শীতকাল শুধু হুডি পড়ে ঘোরাঘুরি বা হরেক রকম সবজি খাওয়ার ঋতুই নয়, শীতকে মহৎ করেছে বিয়ে। এক ভুয়া জরিপ অনুসারে দেখা গেছে, মোট বিয়ের ৭০%-ই সংঘটিত হয় শীতকালে। তবে সাম্প্রতিককালে বিয়ের বদলে ‘হুট করে বিয়ে’এবং অনুষ্ঠানের বদলে ‘পরে বড় করে অনুষ্ঠান করবো’ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেছে৷

বিখ্যাত দার্শনিক ও সমাজবিজ্ঞানী আইনস্টাইন হক একবার বলেছিলেন, ‘বিয়ে এবং হুট করে বিয়ের পার্থক্য অনেক। বিয়ে হচ্ছে সেমিস্টার ফাইনাল, আর হুট করে বিয়ে সারপ্রাইজ টেস্ট..’ আইনস্টাইনের আবিষ্কৃত এই  হুট করে বিয়ের এক্সটেনশনই হলো ‘সামনেই বড় করে অনুষ্ঠান করবো’। তবে এ বছরের শীতে ‘সামনেই বড় করে অনুষ্ঠান করবো’র সূচনা করেন Gen Z এর ক্রাশ প্রীতম হাসান ও শেহতাজ। প্রীতমের বড় ভাই প্রতীক হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সামনেই বড় করে অনুষ্ঠান করবো। এখনতো জাস্ট ঘরোয়াভাবে....।‘

এসব ঘটনা তদন্ত করতে করতেই জানা গেছে অদ্ভুত এক কাহিনী। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘তেত্রিশ বছর কেটে গেলো’ কবিতার আরও বেশ কিছু লাইন ছিলো যা পরবর্তীতে কর্তন করা হয়। সে লাইনগুলোই গতকাল eআরকি প্রতিবেদককে জানিয়েছেন সুনীল। লাইনগুলো ছিলো এরকম,

‘তেত্রিশটি বছর কেটে গেলো,

কথা রাখেনি বেস্ট ফ্রেন্ড কান্তি হোরও।

এক কুয়াশা ভরা সন্ধ্যায় ফোন দিয়ে উত্তেজিত কিন্তু লাজুক গলায় কান্তি বলেছিলো,

হ্যাঁ রে শুনছিস, হঠাৎ বিয়ে করে ফেললাম যে!

ক'দিন বাদে সামনেই বড় করে অনুষ্ঠান করবো।

পুলুকেও বলেছি, রেডি থাকিস তোরা।

আসন্ন অনুষ্ঠানের উপহার হিসেবে ধারকর্য করে একখানা ভিসিআর কিনে রেখেছিলাম

এরপর তেত্রিশ বছর কেটে গেছে।

কান্তি হোরের পুত্র হয়েছে,

পুত্রের পুত্রের অন্নপ্রাশন হয়েছে,

কিন্তু কান্তির বিয়ের অনুষ্ঠান আর আসেনি।

অনেক বছর অপেক্ষায় আছি...’

 

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের এই দুঃখী দুঃখী কবিতাটি আজও প্রাসঙ্গিক। ঢাকাই নাম্বার ওয়ান নায়ক শাকিব খানের দিকে তাকালেও এর গভীরতা সম্পর্কে টের পাওয়া যায়। অপু বিশ্বাসের সাথে বিয়ে বাচ্চার আট বছর হলেও তিনি আশা করছিলেন সামনে বড় অনুষ্ঠান করে সেকথা সবাইকে জানাবেন। একই কথা বুবলির জন্যও প্রযোজ্য। এর থেকে প্রমাণ হয়, সত্যিই ‘সামনে বড় করে অনুষ্ঠান করবো’নামক কিছুর অস্তিত্ব আছে।

এ ব্যাপারে শাকিব খানের এক ফ্যান জানান, ‘শাকিব্বাই তো কইছেই সামনে জানাইবো। এত ফালাফালির কী দরকার? দুইদিন পরেও সামনে হইতে পারে আবার বাইশ বছর পরেও হইতে পারে। আশা হারানোর কিছু নাই। আপনার হুদাই চেতলেন...’

৪৪৩ পঠিত ... ১২:০০, অক্টোবর ৩১, ২০২২

Top