লাফিং গ্যাস ছিটিয়েও হাসানো যাচ্ছে না বাংলাদেশি স্ট্যান্ডআপ কমেডি শো-র দর্শকদের

৫৮৫ পঠিত ... ১৭:৫৯, জানুয়ারি ০৬, ২০২২

laughing gas standup

‘হাসতে নাকি জানে না কেউ কে বলেছে ভাই, এই যে দেখো কত হাসির খবর বলে যাই’

বহু বছর আগে ছড়াকার রোকনুজ্জামান খান অনেক হাসির খবর বললেও বাংলাদেশি বর্তমান সময়ের স্ট্যান্ডআপ কমেডি শো-র দর্শকরা কোনভাবেই হাসির খবর পাচ্ছেন না। স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানরা শত চেষ্টা করেও হাসাতে পারছেন না দর্শকদের।

হাসাতে না পারার ব্যর্থতা ঢাকতে সর্বশেষ দর্শক সারিতে লাফিং গ্যাস ছিটিয়ে হাসাতে চাওয়ার চেষ্টাও বৃথা গেছে গুলশান-বনানী স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান সোসাইটির একটি শোতে।

জানা যায়, দর্শকদের হাসাতে বিদেশ থেকে উচ্চমাত্রার লাফিং গ্যাস আনে তারা। এরপর তা ছড়িয়ে দেয়া হয় দর্শক সারিতে। এরপর শুরু হয় শো। তবুও না হাসায় শো চলাকালীন একাধিকবার গ্যাস ছিটানোর চেষ্টাও বৃথা যায়।

এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান আফসান নিজের ফেক আইডি থেকে eআরকিকে বলেন, ‘আমাদেরকে নকল লাফিং গ্যাস দেয়া হয়েছে সেজন্য দর্শকরা হাসেনি। এরপর বিদেশ থেকে আরো ভালো লাফিং গ্যাস এনে আমরা দর্শকদের হাসিয়ে ছাড়বোই। দর্শকদের কাছে এ আমাদের দৃঢ় অঙ্গিকার।’

অবশ্য অন্য এক স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান আমিন মিয়া বলছেন ভিন্ন কথা। আমিন মিয়ার ধারণা এদেশের দর্শকরা হাসতেই ভুলে গেছে। নিজের ফেক আইডি থেকে তিনি বলেন, ‘এই দেশের *লগুলা হাসতেই ভুলে গেছে। অথচ সব দোষ এসে পড়তেছে কমেডিয়ান আর গ্যাসের উপর। অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপানো এইদেশের মানুষের বহুদিনের পুরোনো অভ্যাস। এটা তারই একটা প্রতিফলন।’

এভাবে চলতে থাকলে দেশের স্ট্যান্ডআপ কমেডির ভবিষ্যৎ কী/ আমাদের এমন প্রশ্নে আমিন মিয়া বলেন, ‘আমাদের শো করার দরকার আমরা শো করবো। ফেসবুক লাইভ করবো। কে হাসলো কে হাসলো না এতে আমাদের *লও ছেড়া যাবে না।’

৫৮৫ পঠিত ... ১৭:৫৯, জানুয়ারি ০৬, ২০২২

Top