শেক্সপিয়ারের দাদা কী পতিতালয়ের মালিক ছিলেন?

১৪০ পঠিত ... ১৭:১৩, মে ১৬, ২০২৪

21 (9)

শেক্সপিয়ারের নাটক নিয়ে বাঙালি নেচেকুঁদে একাকার। কিন্তু এদের কজন জানেন যে শেক্সপিয়ারের দাদার লন্ডনে একটি পতিতালয়ের ব্যবসা ছিল? বিস্তারিত গবেষণায় উঠে এসেছে শেক্সপিয়ারের দাদার কীর্তি।

লন্ডনের ডিলাইটস মার্কেট পত্রিকার একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে জানা যায় শেক্সপিয়ারের দাদা রিচার্ড শেক্সপিয়ার স্ট্র্যাটফোর্ড থেকে প্রায় চারমাইল দূরে স্নিটারফিল্ডে কৃষক ছিলেন। সারাদিন গরু, ভেড়া, ঘোড়া চরাতে চরাতে ক্লান্ত হয়ে পড়তেন এই কৃষক রিচার্ড।

দাদা রিচার্ড খ্রিস্টান হলেও ইহুদি এক রাবাইয়ের ভক্ত ছিলেন। রাবাইয়ের বাড়িতে গরুর মাংস রান্নার ঘ্রাণ রিচার্ডের বাড়ির উঠোনে এসে পড়লে; সেই ঘ্রাণ ঐ পরিবারের যারাই শু্নেছে; তারাই অর্থোডক্স খ্রিস্টান সমাজ থেকে বহিষ্কৃত হয়ে পড়ে। রিচার্ড পরিবার মর্যাদা হারায়। ফলে কট্টর খ্রিস্টান সমাজের কোনো মেয়ের সঙ্গে রিচার্ড পরিবারের কোন ছেলের বিয়ের সন্মন্ধ অসম্ভব হয়ে পড়ে।

তাই তো তাদের অন্যগ্রাম উইলকটের কৃষক পরিবারের মেয়ে মেরির সঙ্গে বিয়ে হয় রিচার্ডের ছেলে জন শেক্সপিয়ারের।

দাদা রিচার্ড বৃটিশ রাজবংশের সেবাদাস হিসেবে বাকিংহাম প্যালেসে খাঁটি গরুর দুধ ও নধর ভেড়ার মাংস উপঢৌকন পাঠিয়ে একটু ক্ষমতাশালী হয়ে ওঠেন। পেয়ে যান পতিতালয়ের লাইসেন্স আর টেমস নদীতে লঞ্চ ভাসানোর রাজকীয় ঋণ। জীবন বদলাতে থাকে পরিবারটির।

স্ট্র্যাটফোর্ডে পতিতালয় স্থাপনের সুবাদে লর্ড ও ব্যারনদের আনাগোণা বাড়তে থাকে সেখানে। শেক্সপিয়ারের পিতা জন শেক্সপিয়ার প্রভাবশালী হয়ে উঠতে থাকেন। হেনলি স্ট্রিটে সুরম্য গৃহে জন্ম নেন শেক্সপিয়ার। সেসময় অসংখ্য সন্তান ডাউন লোড করতেন মাতা-পিতারা। অবশেষে আটটি সন্তান বেঁচে ছিলো এই পরিবারের।

শেক্সপিয়ারের মা মেরি তার গুণধর ছেলেটিকে স্কুলে পাঠালেও ছেলের মন পড়ে থাকতো দাদুর পতিতালয়ের সংগীত ও নৃত্যে। বাধ্য হয়ে বাবা জন বলেন, বাড়িতেই বারোরকম টিউটরের কাছে পড়ালেখা শিখুক শেক্সি; খেয়াল রেখো যেন সে বারবার আনন্দগৃহে ছুটে না যায়।

সমবয়েসীরা যখন স্কুলে পড়ে সাধু, সন্ন্যাসী ও অত্যন্ত বিশুদ্ধ হয়ে উঠছে; তখন শেক্সপিয়ার পতিতালয়ের পোর্শিয়া খালার গান শুনে, মিরান্ডা ফুফুর নৃত্য দেখে। চোখের সামনে দেখে জুলিয়েট আন্টির ট্র্যাজেডি; যে রোমিও নামে এক টাঙ্গাওয়ালার প্রেমে পড়ার অপরাধে শেক্সপিয়ারের বাবার কাছে চড় খায়। একবার লর্ড ওথেলো তার মিসট্রেস ডেসডিমোনার কক্ষে অন্য পুরুষের রুমাল পেয়ে সন্দেহবশত তাকে খুন করলে; শেক্সপিয়ার বিষাদগ্রস্থ হয়ে পড়ে। ডেসডিমোনা আন্টি কুকি বেকিং করলেই শেক্সপিয়ারকে ডেকে খাওয়াতেন। অথচ বৃটিশ পুলিশকে টাকা খাইয়ে তার হত্যাকাণ্ডটি চাপা দেয় বাবা জন।  

এই হত্যাকাণ্ড চাপা দেয়ার পুরস্কার হিসেবে লর্ডদের পক্ষ থেকে জন স্ট্র্যাটফোর্ডের মেয়র পদটি উপহার পায় । আর শেক্সপিয়ার তার দাদার প্রতিষ্ঠিত পতিতালয়ের একের পর এক ট্র্যাজেডি দেখে লিখতে শুরু করে নাটক। তার খ্যাতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকতে। ইহুদি রাবাইয়ের সঙ্গে সখ্যের কারণে যে কট্টর খ্রিস্টানেরা শেক্সপিয়ারের দাদাকে সমাজচ্যুত করেছিলো; তাদের মাঝে জন্ম নেয় শেক্সপিয়ার অনুভূতি। তারা চার্চে যীশুর পাশে শেক্সপিয়ারের ছবি ঝুলিয়ে প্রার্থনা করতে শুরু করে।  

কট্টর খ্রিস্টানেরা শেক্সপিয়ার সাধনা করে প্রগতিশীলতার স্বপ্রণোদিত ম্যানেজার হয়ে পড়ে। আবার কিছু কট্টর খ্রিস্টান শেক্সপিয়ারের ছবি ভাংচুর করে জাতচ্যুত পরিবারের ছেলে ও ধর্ম বিরোধী তকমা দিয়ে। কিন্তু  ইহুদিদের  মৌলবাদি তকমা দিয়ে ছোট করার সময় কট্টর খ্রিস্টানেরা সবাই আবার সেকুলার ফেলো অফ শেক্সপিয়ার হয়ে ওঠে।

কট্টর ইহুদিরা তখন শেক্সপিয়ারের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগ উত্থাপন করে,   এক.  লন্ডনের ডিলাইটস মার্কেট পত্রিকার রেফারেন্স দিয়ে তারা বলে, শেক্সপিয়ারের দাদা পতিতালয়ের মালিক ছিলেন।  দুই.  শেক্সপিয়ার লণ্ডনে  ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠায় বাধা দিয়ে বলেছিলেন, আমি  স্ট্র্যাটফোর্ড-এর আনন্দগৃহে যা শিখেছি; ওসব অক্সফোর্ড-এর বিশুষ্ক বিদ্যাগৃহ কী তা শেখাতে পারবে!

(এসব গল্প কাল্পনিকই হয়)

১৪০ পঠিত ... ১৭:১৩, মে ১৬, ২০২৪

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি


Top