গান নিয়ে ২৪৫ দেশভ্রমণ বেনী প্রসাদের

৩৮ পঠিত ... ১৬:২৪, জুন ০৩, ২০২৪

53de3e64-ad31-4b4a-bc15-fb7f2955e193

পৃথিবীতে যতগুলো দেশ আছে, তার সবগুলো দেশ ঘোরার অভিজ্ঞতা হয়ত অনেকের আছে। কিন্তু সবচেয়ে কম সময়ে সব দেশ দেখে ফেলার রেকর্ড কত দিনের জানেন? মাত্রা ৬ বছর ৬ মাস ২২ দিন সময় নিয়ে পুরো বিশ্বের ২৪৫টা দেশ ঘোরার রেকর্ড আছে ভারতের ইনস্ট্রুমেন্টাল গিটারিস্ট বেনী প্রসাদের।

ক্যারিবিয়ান মানুষদের মত বেনুনি করা চুল, বাদামী হ্যাট আর নিজের হাতে বানানো ব্যাঞ্জো গিটার নিয়ে দেশ থেকে দেশে ঘুরে ঘুরে ইশ্বরের গান শোনান তিনি। ২০০৪ সালে সিঙ্গাপুরের অর্কিড ফেস্টিভালে প্রধান শিল্পী হিসেবে বাজানোর আমন্ত্রণ পেয়ে তার যে যাত্রা শুরু হয় সেটা শেষ হয় ২০১০ সালের ২২ নভেম্বর।

গানের তাল সুর ঠিক মত আসে না দেখে স্কুলের গানের শিক্ষক যাকে বাতিলের খাতায় ফেলে দিয়েছিলেন তিনি তিনটা গিটারের ডিজাইনের জন্য সারা বিশ্বে বেশ সুনাম কামিয়েছেন। এর একটা হলো পৃথিবীর প্রথম ব্যাঞ্জো গিটার। আরেকটা, ৫৪ তারের গিটার ‘বেন্তার’ ও ২০ তারের আরেকটা হার্প/বঙ্গো গিটার ।

১৯৭৫ সালে জন্মের পর ভারতীয় এরোস্পেস ল্যাবরেটোরিজের বিজ্ঞানী পিতার  ছেলের কাছে  হয়ত ছোট থেকেই আশা ছিলো পড়াশোনা করে বড় কোন একটা জায়গায় নিজেকে প্রতিষ্ঠা করবেন। কিন্তু বিধি বাম। ছোট থেকেই শ্বাসকষ্ট থাকায় বিভিন্ন রকমের ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় ফুসফুসের ৬০% অকার্জকর  হয়ে গিয়েছিলো । বিজ্ঞানী বাবা ছেলেকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখলেও ,নিজের অসুস্থতার জন্য সেইভাবে ফলাফল দেখাতে পারছিলেন না।

ছোট থেকে রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারতেন না, রাগের বসে দুনিয়া তছনছ করে ফেলতে বসার মত অবস্থা হতো, শারিরীক অসুস্থতা, পড়াশোনায় ব্যার্থতা এসব নিয়ে হতাশায় ১৬ বছর বয়সেই আত্মহত্যারও চেষ্টা করেন তিনি।

হতাশায় জর্জরিত এই মানুষকে স্বয়ং ইশ্বর এসে যেন হাত বাড়িয়ে দেন একসময়। তার ভাষায় ‘আমি শুনলাম যেন, তিনি আমাকে বলছেন বেনী, এখন পর্যন্ত তুমি কিছু করতে না পারলেও হতাশ হবার কিছু নেই, আমি তোমাকে আবার নতুন করে তৈরি করছি।’ শেষ পর্যন্ত তার কাছে তার ঘুরে দাঁড়ানোর গল্পটা যেন একটা নতুন শুরু, একটা নতুন জন্ম।

এরপর তিনি যেন ফিনিক্সই হয়ে ওঠেন। ভারতে বিবলিকাল স্টাডিজ নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে মেক্সিকো আর ইউএসএতে মিউজিক আর ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট নিয়ে পড়েছেন। তার প্রথম আন্তর্জাতিক কনসার্টে প্রধান অতিথি ছিলেন সিঙ্গাপুরের ততকালীন প্রেসিডেন্ট। ২০০৪ সালের অলিম্পিক ও ২০০৬ এর জার্নান ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপে পারফর্ম করেছেন, তার ডিস্কোগ্রাফিতে রয়েছে ৪টা ইন্সট্রুমেন্টাল অ্যালবাম।

একত্রে স্টেপল করা ১৩টা পাসপোর্ট নিয়ে ট্রাভেল করার সময় তার পাসপোর্টের জন্য আলাদা লাগেজ নিতে হয় কিনা জানি না, কিন্তু তার গিটারের সুরের তালে তিনি যে কাউকে ইশ্বরের উপস্থিতি অনুভব করিয়ে বেড়ান প্রতিনিয়ত।

বেঙ্গালুরুতে বেনীর একটা ৪০০ সিটের কফি শপ আছে। Chai 3:16 নামের ক্যাফের পেছনের গল্পও অদ্ভুত সুন্দর। হিব্রুতে Chai এর অর্থ হলো জীবন আর হিন্দিতে চা।  3:16 হলো গসপেল অফ জনের ভার্স নাম্বার। তার কফিশপে গেলে যে বিল দিতেই হবে এমন না কিন্তু। কফিশপে যাবেন, কফি খাবেন, বন্ধুর সাথে গল্প করে জীবনকে একটু হাল্কা করবেন, এতটুকুই চাওয়া বেনীর।

৩৮ পঠিত ... ১৬:২৪, জুন ০৩, ২০২৪

আরও eআরকি

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

কৌতুক

রম্য

সঙবাদ

স্যাটায়ার


Top