বাবর আলীকে অফিসে আওয়ারে মেট্রোরেলে উঠে দেখানোর চ্যালেঞ্জ জানালো মিরপুরবাসী   

১২২ পঠিত ... ১৭:০১, মে ২০, ২০২৪

23 (9)

ষষ্ঠ বাংলাদেশি হিসেবে এভারেস্টে উঠার গৌরব অর্জন করেছেন বাবর আলী। তবে বাবর আলীর এই কৃতিত্বকে অসাধারণ কিছু হিসেবে মানতে নারাজ মিরপুরবাসীরা। এভারেস্ট নয় বরং অফিসে আওয়ারে মেট্রোরেলে উঠে দেখাতে পারলেই বাবর আলীকে প্রকৃত অ্যাডভেঞ্চারাস হিসেবে মানবেন তারা। নিয়মিত মেট্রোরেলে যাতায়াত করেন এমন এক অফিসগামী পাশের বাসার আন্টি আমাদের বলেন, এভারেস্টে যে কেউ উঠতে পারে, কিন্তু অফিস আওয়ারে মেট্রোরেলে ওঠা মুখের কথা নয়। আমার ছেলে প্রতিদিন ভিড় ঠেলে মেট্রোরেলে চড়ে অফিস করে। এমনকি আমিও করি। বাবর আলীকে আমি ওপেন চ্যালেঞ্জ দিতে চাই, আগে চান্স পেয়ে দেখাও মেট্রোরেলে। এমনকি মিরপুরের কিছু বাসিন্দা বাবর আলীকে পিক টাইমে বিজয় স্বরণী সিগন্যাল এক চান্সে পার হওয়ার চ্যালেঞ্জও ছুঁড়েছেন বলে আমরা জানতে পারি। এ ব্যাপারে সিগন্যালে ইতিমধ্যেই আটকে থাকা ভাই আমাদের বলেন, এভারেস্ট পার হয়ে কি অফিস যাওয়া যায়? না গেলে ঐসব এভারেস্ট ফেভারেস্ট আমরা গোনায় ধরি না। এসব এভারেস্টের সৈনিক হইয়া লাভ নাই, হইলে হইতে হবে আমাদের মতো রাজপথের লড়াকু সৈনিক।

এইসব খবর প্রকাশিত হওয়ার পর এভারেস্টের চূড়ায় বসে নিজের ফেক অ্যাকাউন্ট থেকে ফেসবুক লাইভে এসে বাবর আলী বলেন, আমার ভুল হয়ে গেছে আমাক ক্ষমা কইরে দেন। দেশে গিয়ে মেট্রোরেলে ওঠা আর বিজয় সরণীর সিগন্যাল পার হওয়ার ট্রেনিং নিয়ে এসে আবার এভারেস্টে চড়ব।

 

১২২ পঠিত ... ১৭:০১, মে ২০, ২০২৪

Top