মাখোঁকে অ্যান্টাসিড এবং ইমোটিল পাঠাচ্ছে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস ও বেক্সিমকো ফার্মা

১৫১ পঠিত ... ১৭:৫৩, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২৩

মাখোঁকে-অ্যান্টাসিড

চারদিকে চলছে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁকে নিয়ে হৈচৈ। মাখোঁ সোমবার তুরাগ নদে ঘুরতে গেলে রাস্তার পাশের একজন বিক্রেতা তাকে শিঙাড়া-সমুচা-জিলাপি খাওয়ার অনুরোধ করেন। কাল্পনিক সূত্রে জানা যায়, তিনি শিঙারা-সমুচা-জিলাপি খেয়েছেন তো বটেই, বাংলাদেশ থেকে যাবার সময় সেগুলো নিয়েও যেতে চেয়েছেন। তবে মাখোঁর শিঙারা সমুচা আহার পরবর্তী শারীরিক অবস্থা কেউ জানেন না। তবে সোমবার রাত থেকেই মাঁখোর বাসস্থানের সামনে স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস এবং বেক্সিমকো ফার্মার মেডিকেল রিপ্রেজেন্ন্টেটিভদের লম্বা লাইন দেখা যায়। প্রথম দেখায় অদ্ভুত লাগলেও, জানা যায় তারা প্রেসিডেন্টের জন্য নিয়ে এসেছেন অ্যান্টাসিড এবং ইমোটিলের স্যাম্পলগুলো।

তবে অবিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, শিঙারা-সমুচা খাওয়ার পর থেকে মাখোঁ বেশিরভাগ সময় কাটাচ্ছেন টয়লেটে। তিনি ওয়াশরুমে ঢুকলে অন্তত এক ঘণ্টার আগে বের হচ্ছে না বলে জানা গেছে। ঠিক একারণেই সময়ের সাথে সাথে বাড়ছে ওষুধ কোম্পানির লাইন। এছাড়া তার ঠিকানায় যাচ্ছে অজস্র বেনামী ওরস্যালাইন, এমনি ইনফিউশন সেটসহ আইভি স্যালাইনও। কে বা কারা এগুলো শুভাকাঙ্ক্ষী হিসেবে পাঠাচ্ছেন এখনো জানা যায় নি।

তবে মাখোঁও বেশ নাছোড়বান্দা। শিঙারা-সমুচার পর এবার তিনি খেতে চান ফুচকা, ভেলপুরি এবং গোলা আইসক্রীম। আজ বিকালে ফার্মগেট ওভারব্রিজের নিচে বসা মামার ভেলপুরি খাবেন বলে জানা গেছে। তবে এই খবর সংবাদমাধ্যমে প্রকাশের সাথে সাথে জনগণ তাদের উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করছে। ইতিমধ্যে দূরদর্শিতা থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্স এবং ল্যাবএইড হাসপাতালের একটি কেবিন বুকিং দিয়ে রাখা হয়েছে। বাকি অ্যাকশন প্রথম ভেলপুরি মুখে দেবার সাথে সাথে নেওয়া হবে।

১৫১ পঠিত ... ১৭:৫৩, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২৩

Top