বুয়েটে নিশ্চিত চান্সের জন্য নটরডেমিয়ানদের জন্য চিটকোড

৯৬৭ পঠিত ... ১৬:২৮, মার্চ ২১, ২০২৪

14 (1)

লেখা: মুকতাদির হাসান মাশুক

 

শুনলাম বুয়েটে নাকি ৬০০+ নটরডেমিয়ান চান্স পেয়েছে। এছাড়াও সেরা ৫০ এর ৩৪ জনই নাকি নটরডেমের।পরিসংখ্যান দেখে অনেকেই সিস্টেমের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। না হলে জাস্ট একটা কলেজ থেকেই এত চান্স পায় কীভাবে?

যাক,দেরীতে হলেও মানুষজন ঘাপলাটা ধরতে পারছে। আসলেই জাস্ট পড়াশোনা করে তো সেম কলেজ থেকে এত চান্স পাওয়া পসিবল না। মূলত নটরডেমের স্টুডেন্টরা চান্স পায় কিছু চিটকোডের মাধ্যমে। যদিও বিষয়টা খুবই কনফিডেনশিয়াল, স্টিল প্রশ্ন যখন উঠেছেই তাই সবার জন্য কোডগুলো ফাঁস করে দিচ্ছি। অতি চালাক স্টুডেন্ট যারা না পড়ে বুয়েটে চান্স পেতে চায়, এই কোডগুলো তাদের কাজে আসতে পারে...   

বুয়েটের সাথে আসলে আমাদের পুরনো এগ্রিমেন্ট আছে। যে কোনোভাবে যদি আমরা বোঝাতে পারি যে আমরা নটরডেমের তাহলেই চান্স নিশ্চিত। বাট বাইরের স্টুডেন্টরা তো এটা জানে না, এজন্য তারা এত এত কষ্ট করে। প্রথমেই আসি MCQ এর চিটকোড প্রসঙ্গে। খাতা হাতে পেলেই ম্যাথট্যাথ বাদ দিয়ে সকল প্রশ্নের উত্তর ‘খ’ দাগাতে হবে। মূলত এটা থেকেই ওরা বুঝে যাবে আমরা নটরডেমিয়ান, আমাদের টিকাতে হবে। তবে খ দাগালে টপ সাবজেক্ট পাওয়া যায় না। যারা বুয়েটে টপ ১০০তে থাকতে চায় তারা সবগুলো উত্তর ‘ক’ দাগায়। ধর সবাই তো আর CSE EEE পড়তে চায় না, অনেকের URP প্যাশন থাকে। তারা শেষের অপশন ‘ঘ’ টা দাগায়। এটা করলেই বুয়েট প্রিলি নিশ্চিত। বাকি থাকে শুধু রিটেন...

রিটেনের চিটকোডও কঠিন না। ফাঁকা খাতা জমা দিয়ে আসে অনেকে। ওটা ঢাকা কলেজের চিটকোড। ওতে চান্স হয়, বাট ভালো সাবজেক্ট পাওয়া যায় না। নিজেকে নটরডেমিয়ান বোঝাতে হলে ম্যাথ করো আর না করো ম্যাটার না, অবশ্যই ইটালিক ফন্টে লিখতে হবে। কোন উত্তর না পারলেও সমস্যা নেই, জাস্ট ইটালিক ফ্রন্টে প্রশ্ন তুলে রেখে আসলেও স্যাররা বুঝে যাবে তুমি নটরডেমের, পার্শিয়াল মার্কস দিয়ে দেবে।স্টি ল টপ সাবজেক্ট পেতে হলে তোমাকে জাস্ট উত্তরের স্পেসে বড় করে NDC লিখে আসতে হবে। N টা হবে লাল রঙের, D এর রংটা হবে সবুজ এবং সবশেষ C হবে নীল কালারের। মানে R G B অর্ডারে কালার করতে হবে। তাহলেই বুয়েটের পরীক্ষকগণ ১০০% নিশ্চিত হয়ে যাবেন যে হ্যাঁ এই সেই ছেলে। তখন ইজিলি চান্স হবে...

অনেকে দেখি চান্স পাওয়ার জন্য দিনরাত খাটে, পড়াশোনা করে।আরে ওসব লাগে না। যে কলেজেরই হও, জাস্ট চিটকোডটা যদি ঠিকঠাক অ্যাপ্লাই করতে পার, স্যারদের বুঝাইতে পারো তুমি নটরডেমে তাহলেই চান্স নিশ্চিত। বাকি থাকে জাস্ট নেক্সট ৪ বছরের চিল লাইফ আর গ্র্যাজুয়েশন শেষে টাকার গালিচা মাড়িয়ে হেঁটে যাওয়া। ইজি...

(এটা আগেকার চিটকোড, এখনকার চিটকোড চেন্জও হইতে পারে)

৯৬৭ পঠিত ... ১৬:২৮, মার্চ ২১, ২০২৪

Top