যে কারণে সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১২৯তম

২৫৬ পঠিত ... ১৬:১২, মার্চ ২১, ২০২৪

13 (5)

লেখা: ইমরুল কায়েস

প্রতিবছরের মতো এবারও বিশ্বের সুখী দেশের তালিকা প্রনয়ন করা হয়েছে। জাতিসংঘ ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের আগ্রাসন থামাতে ব্যর্থ হলেও সুখী দেশের তালিকা প্রকাশে সফল হয়েছে।

১৪৩টি দেশকে নিয়ে করা সে তালিকায় গত বছরের তুলনায় কয়েকধাপ অবনয়ন হয়ে বাংলাদেশের অবস্থান এবার ১২৯তম। এরকমটা হবে তা প্রত্যাশিতই ছিল। তামিম-সাকিব দ্বন্দ্ব, আনিসুল হকের লেখক নিয়ে বক্তব্য, তিশা-মুশতাক জুটির বই প্রকাশ,  তরমুজের ও খেজুরের মূল্য বৃদ্ধি দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে অসুখী করেছে।

দেশের ১৮ কোটি মানুষের মধ্যে ১২ কোটি এখন আওয়ামী লীগের সঙ্গে জড়িত। পাকিস্তান তালিকায় ১০৮ তম হওয়াতে এই বিশাল সংখ্যক জনগোষ্ঠী অসুখী হয়েছে।

৭১ সালে স্বাধীন হয়েও আমরা ওদের থেকে সুখী হতে পারলাম না। বাজার থেকে ৮০০ টাকা কেজি দরে গরুর মাংস কেনা ব্যক্তি ভাবছে; পাকিস্তানিরা কম দামে গরু আর খাসির কোপ্তা-কাবাব খায় বলেই আমাদের থেকে সুখী। উখিয়া আর টেকনাফের মানুষ অসুখী কারণ তারা দেখছে; রোহিঙ্গাদেরকে এদেশে পাঠিয়ে দিয়ে, বিদ্রোহীদের সঙ্গে সরকারের সংঘর্ষ চলাকালীন সময়েও মায়ানমার সুখী দেশের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে ১১৮তম দেশ হিসেবে। দেশের ১ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারী অসুখী কারণ যে শ্রীলঙ্কা দেউলিয়া হয়ে গেল বলে দিনরাত ট্রল করেছে সেই শ্রীলঙ্কাও এই তালিকায় আমাদের থেকে এক ধাপ এগিয়ে আছে। ৫ কোটি বিএনপি সমর্থক অসুখী কারণ সুখী দেশের তালিকায় ১২৬ তম জায়গা দখল করা দেশটি ১২৯তম দেশটির সরকারকে নিরবিচ্ছিন্ন সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে সে কারণে। এসব কিছু মিলিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ১২৯তম হয়েছে।

বাকী ১৪টি দেশ আমাদের থেকে অসুখী কারণ তাদের ধারণা এই তালিকা নিরপেক্ষভাবে করা হয়নি। পক্ষপাতহীন ভাবে সুখী দেশের তালিকা করা হলে তাদের অবস্থান বাংলাদেশের ওপরে থাকার কথা।

২৫৬ পঠিত ... ১৬:১২, মার্চ ২১, ২০২৪

Top