করোনার চিকিৎসা চান? আগে ভিআইপি হয়ে দেখান

৯২০ পঠিত ... ১৭:৫৮, এপ্রিল ২২, ২০২০

করোনাভাইরাস ভীষণ সাম্যবাদী। কাউকে হামলার সময় এতোটুকু খেয়াল করে না সে ধনী নাকি গরীব; হিন্দু-মুসলমান-খ্রিস্টান-ইহুদি-বৌদ্ধ নাকি নাস্তিক; সে উদারপন্থী নাকি রক্ষণশীল, প্রগতিশীল নাকি পরকালশীল, জাতীয়তাবাদী নাকি বিশ্বনাগরিক, সাদা নাকি শ্যামলা নাকি কালো।

করোনার হামলায় বিশ্বব্যবস্থা লন্ডভন্ড হয়ে গিয়ে অঘোষিত জরুরি সাম্যাবস্থা ফিরে এসেছে যেন দেশে দেশে। অলিখিত এক সামাজিক গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয় দেশে দেশে।

কিন্তু যেহেতু, "সকল দেশের রাণী সে যে আমার জন্মভূমি"; সেইখানে করোনাকালে এই প্রথমবারের মতো শোনা যায়, ভিআইপিদের আলাদা হাসপাতালে চিকিৎসা দেবার ব্যাপারে আলাপ-আলোচনা।

পৃথিবীর অন্য কোন দেশে যখন মানুষের চিকিৎসাই অন্তত করোনাকালে সরকারের প্রধান কর্তব্য; ফলে মানুষের মধ্যে যে 'ভি আইপি' বলে কিছু থাকে; অকরোনাকালের সেসব শ্রেণী বিভাগের কথা কারো মনে নেই। কোন কোন দেশে প্রধানমন্ত্রী ডাক্তারি পেশার লোক বলে প্রধানমন্ত্রীত্ব ফেলে হাসপাতালে রোগী বাঁচাতে ফিরে গেছেন।

করোনা এসে জনগণকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (ভিআইপি) বানিয়ে দিয়েছে যেন প্রথমবারের মতো।

এরই মাঝে বাংলাদেশের ভিআইপিদের মনে পড়ে; এভাবে জনগণের কাছে ক্ষমতা দিয়ে দেয়া যায় না। করোনার মাঝেও 'ভি আই পি' সুবিধা তাদের পেতে হবে। প্রোটোকল ছাড়া জীবন হয় নাকি।

এক ভি আই পি বলেন, চোখের অপারেশান, দাঁতের স্কেলিং সবই তো বিদেশে করি।

আরেক ভিআইপি বলেন, আরে ভাই হার্নিয়ার অপারেশন করিয়ে এসেছি মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল থেকে। এখন করোনার সময় সরকারি হাসপাতালে গিয়ে মরবো নাকি! ওখানে কী কোন চিকিৎসা আছে নাকি!

একজন আমলা তাদের আশ্বস্ত করেন, স্যার; অস্থির হবেন না স্যার। আপনাদের কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য ডেডিকেটেড শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালকে প্রস্তুত করা হচ্ছে। এছাড়া রাজধানীর বুটিক হাসপাতাল অ্যাপোলোতে চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে আমরা চিন্তাভাবনা করছি।

ভিআইপি বলেন, ফাইভ স্টার ফ্যাসিলিটি যেন সবই থাকে খেয়াল রাখবেন। গত দশবছরে ফাইভ স্টার ছাড়া ঘুমাইনি। স্টার একটা কম হলে আর ঘুম আসে না।

ভিআইপিদের জন্য পৃথক হাসপাতালের বন্দোবস্ত করার খবরে ক্ষিপ্ত জনতা বলে, এদের জন্য আলাদা কবরস্থানও তৈরি কইরা রাখেন।

আরেকজন মন্তব্য করেন, করোনাকে খবর পাঠান; সে আমাদের ভিআইপিদের জন্য ভিআইপি করোনা ভাইরাস বানিয়ে পাঠাক।

ভিআইপিদের প্রতিদিনের ভ্রান্তি জাস্টিফিকেশনের একজন সাধনসঙ্গী এসে জনগণকে বোঝায়, আছেরে ভাই জনদরদী ভি আই পিও আছে; দশ টাকার টিকিট কেটে জনগণের লাইনে দাঁড়িয়ে সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসা নেন। শুধু শুধু ইস্যু করবেন না; লাগলে সেসব দেশপ্রেমের ছবি আমার ফেসবুক টাইম লাইনে গিয়া দেখে নিন। বিপক্ষ শিবিরের হাতে শুধু শুধু অস্ত্র তুলে দেবেন না সোনাভাই।

আরেকজন জাস্টিফিকেশনের সাধনসঙ্গী এসে অভিমানে গাল ফুলিয়ে বলে, হিংসারে ভাই হিংসা; যে মানুষগুলি দিন নাই রাত নাই জনতার সেবা করতেছে; তার চিকিৎসা ভিআইপি হাসপাতালে হইলে ক্ষতি কী! আরে ভাই সমালোচনা না কইরা উনাদের মতো ভিআইপি হইয়া দেখান।

৯২০ পঠিত ... ১৭:৫৮, এপ্রিল ২২, ২০২০

আরও

পাঠকের মন্তব্য

 

ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।

আইডিয়া

গল্প

রম্য

সঙবাদ

সাক্ষাৎকারকি


Top