সময়ের আগে বিদ্যুৎ চলে আসায় প্রেমিকার ধানের গোলায় দুই ঘণ্টা আটকে থাকলেন নোয়াখালির নাজমুল

১০৪৩ পঠিত ... ১৮:০৬, জুলাই ১৯, ২০২২

Noakhalir-nazmul

দেশে জ্বালানি তেলের লোকসান কমাতে শুরু হয়েছে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং। এই লোডশেডিং  শিডিউল মেনে হবার কথা থাকলেও বাংলাদেশ বলে কথা! এখানে নিয়মমতো কারেন্টও যায় না। সময়মতো কারেন্ট না যাওয়া-আসায় বিপত্তিতে পড়ছেন বেশ কিছু ক্যাটাগরির লোকজন। তবে শেষ তথ্য অনুযায়ী, এক অদ্ভুত কথা বলতেই হবে, সময়ের আগে বিদ্যুৎ চলে আসায় প্রেমিকার ধানের গোলায় দুই ঘণ্টা আটকে থাকলেন নোয়াখালির নাজমুল (২৮) নামের এক যুবক।

এ ব্যাপারে নাজমুল জানান, ‘বান্ধবীর সাথে একটু মজা করতে আসছিলাম। কিন্তু ভুইলা গেছিলাম যে এইটা বাংলাদেশ। এইখানে চারটা মানে সাতটা, সাতটা মানে এগারোটা। কারেন্টের বাচ্চা রাত আটটায় গেছে, দশটায় আসার কথা, হালার পুত নয়টায় আইসা হাজির! কেমনটা লাগে বলেন। এতক্ষণ পোকার কামড় খায়া গোলার মধ্যে বইসা ছিলাম...' এই বলে রাগে কাঁপতে থাকেন নাজমুল।

তিনি আরও বলেন, ‘এর আগে আমি একই কাজে পাবলিক টয়লেটে, শো রুমের ট্রায়াল রুমে, লিফটে আটকা পড়ছিলাম৷ ধানের গোলায় আটকা পড়ে ষোলো কলা পূর্ণ হইলো। অন্য কোনো জায়গায় এত গরম নাই ধানের গোলার মতো। ওইখান থেকে বাইর হয়ে মনে হইতেছে জাহান্নাম থাইকা ফেরত আসলাম।'

প্রায় কাছাকাছি অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন এলাকাভিত্তিক চোর ও বেশকিছু পরীক্ষার্থী। এক সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষার্থী বলেন, ‘আমার বা*র লোডশেডিং। ভাবছিলাম গতকাল সারারাত কারেন্ট থাকবে না, পরেরদিন স্যারকে বইলা এক্সামটা ক্যান্সেল করাবো। কারেন্ট আর গেলোই না। পরে থানায় গিয়া একটা মামলা দিয়া আসছি’

এদিকে বাশার নামের এক চোর জানান, ‘আমাদের অবস্থাটাও কম খারাপ না। কখন কারেন্ট যায়-আসে কোন ঠিক-ঠিকানা নাই। মামার বাড়ি পাইছে, যা ইচ্ছা তাই। আরে ভাই ওইদিন অর্ধেক গ্রিল কাটা শেষ হইছে, তখন দেখি কারেন্ট আইসা পড়ছে। পরে লুঙ্গি তুইলা দৌড় দিছি, আরেকটু হইলে খবর ছিলো..’

নিজেদের এই ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে নিয়ে জাতীয় বিদ্যুৎ কমিটি বলেন, ‘আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি। সামনেই ৫০০০ কর্মকর্তাকে বিদেশ পাঠাচ্ছি লোডশেডিং শিখতে, ওরা ফেরত এলেই সব ঠিকঠাক চলবে.. ’

১০৪৩ পঠিত ... ১৮:০৬, জুলাই ১৯, ২০২২

Top