তসলিমা নাসরিনের কাছে প্রেম করার অনুমতি নিতে আসছেন সুস্মিতা সেন

১২০৮ পঠিত ... ১৭:৫১, জুলাই ১৭, ২০২২

Taslima-nasrin-susmita-sen

সুস্মিতা সেন মানেই অধিকাংশ বাঙালি পুরুষের হার্টথ্রব। সম্প্রতি বলিউডের এই তারকার প্রেমের গুঞ্জন শোনা যায় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাক্তন চেয়ারম্যান ললিত মোদির সাথে। এই প্রেমের খবর সামনে আসতেই রীতিমত হৈচৈ শুরু হয়ে যায় ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমগুলোতে। এরপর থেকেই শুরু হয় সম্পর্কের খুঁটিনাটি আলোচনা। প্রখ্যাত কবি ও লেখক তসলিমা নাসরিনও তার নিজস্ব টাইমলাইনে ললিত মোদীর অনাকর্ষনীয়তা ও সুস্মিতার প্রেম সম্পর্কে এক স্ট্যাটাস দেন। এর পরই ঘুরে যায় কাহিনীর মোড়।

এক গোপন সূত্রে জানা যায়, তসলিমা নাসরিনের ওই স্ট্যাটাস দেখার পর থেকেই অপরাধবোধে ভুগতে থাকেন সুস্মিতা। একসময় সে চিন্তা ভয়াল আকার ধারণ করে। এ ব্যাপারে প্রাক্তন এই মিস ইউনিভার্স বলেন, ‘তসলিমা দিদির সাথে কথা বলে আমার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিৎ ছিলো। আগের প্রেমগুলাতেও যদি দিদির সাথে একটু পরামর্শ করে নিতাম, তাহলে এখনো আমাকে আনম্যারিড থাকা লাগতো না। কেন যে একই ভুল বারবার করি! দিদির মতো মানুষ থাকতেও জীবনটা ভুলে ভরা। এই যে আমার ওপর থেকে তার শ্রদ্ধা উঠে গেছে, এই ব্যর্থ জীবন নিয়ে আমি কোথায় যাবো?..’ এই বলতে বলতে দু'চোখ বেয়ে অশ্রু গড়িয়ে পড়ে সুস্মিতার।  

ললিত মোদীর টাকা পয়সা দেখেই প্রেম করছেন কি-না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি আরও বলেন, ‘তসলিমা নাসরিন যেহেতু একথা বলেছেন, তাহলে নিশ্চয়ই কথা সত্যি। আমি নিজেও জানি না মোদীর কোথায় কত টাকা আছে, এতদিন পর্যন্ত আমি টাকা পয়সার কথা ঘুণাক্ষরেও ভাবিনি। তবে তনাদির  উপর আমার পূর্ণ ভরসা আছে। তিনি যা ভাবেন, ভাবতে পারেন এবং বলেন—সবই সত্যি। আমি শীঘ্রই উনার কাছে যাবো আমার কী করা উচিৎ এই সম্পর্কে জানতে, যদি উনি ব্রেকাপ করতে বলেন, তবে তাই করবো... ’

তবে এই স্ট্যাটাস দেওয়ার পর থেকেই তসলিমা নাসরিনের বাসার সামনে প্রচণ্ড ভীড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে বলে একটি ভুয়া সূত্র জানায়। দূর দূরান্ত থেকে বহু মানুষ আসছেন শুধুমাত্র তার মুখে একটিবার কে আকর্ষণীয়, কে মহানুভব, কে ভালো,কে মন্দ  ইত্যাদি জানার জন্য। সোফি নামের একটি মেয়ে সুদূর আমারিকা থেকে এসেছেন হাতে আড়াইশো বায়োডাটা নিয়ে। তিনি বলেন, ‘এগুলা সব আমার জন্য বিয়ের প্রস্তাব। নিজে দেখার আগেই দিদির কাছে ছেলে সিলেক্ট করতে আসলাম...’

এই ভীড়ে শুধু সাধারণ মানুষই নয়, দেখা যাচ্ছে অসংখ্য সেলিব্রেটি, ইনফ্লুয়েন্সারসহ বড় বড় রাঘব বোয়ালদের। সবাই এসেছেন তসলিমা নাসরিনের কাছ থেকে নিজের এবং পরিবারের চারিত্রিক সনদ সংগ্রহের জন্য। তবে আলোচনার এক পর্যায়ে তানভীর নামের এক যুবক অপ্রাসঙ্গিকভাবে প্রশ্ন করেন, ‘আপা বসুন্ধরা টয়লেট পেপার নিয়ে আপনার কী মনে হয়? ওরে একটা চারিত্রিক সনদ দেন...’ উত্তরে তসলিমা নাসরিন মুচকি হাসলেও কিছু বলেননি।

১২০৮ পঠিত ... ১৭:৫১, জুলাই ১৭, ২০২২

Top