দুখী জাতি হিসেবে বাংলাদেশের ৭ম হওয়ার দায় স্বীকার করে নিলেন দেশের স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানরা

৬০৫ পঠিত ... ১৮:৪৪, জুলাই ০৫, ২০২২

Dukhi-jati

বাংলাদেশের মানুষের কথা মনে পড়তেই কিছু বোকাসোকা গোলগাল সুখী সুখী চেহারার মানুষের কথা মনে পড়ে। এ দায় মূলত কবি-সাহিত্যিকদের। এমন একটি ধারণা পোক্তভাবে আমাদের মাথায় ঢুকিয়ে দিতে পারাটাও তাদের জন্য কম সুখের কোন ব্যাপার নয়।  তবে আশ্চর্যের ব্যাপার হলো, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংস্থা ‘গ্যালাপ ২০২২ গ্লোবাল ইমোশনস রিপোর্ট’ অনুযায়ী, ১০০ স্কোরের মধ্যে বাংলাদেশ ৪৫ পেয়ে সপ্তম দুঃখী দেশ নির্বাচিত হয়েছে।

এমন ঘটনায় সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও সাধারণ নাগরিকেরা আঙুল তুলেছেন স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ান ও রম্য লেখকদের দিকে। তারা বলছেন এ ব্যর্থতার দায় শুধুই তাদের। এমন মন্তব্যে কী ভাবছেন স্ট্যান্ডআপ কমেডিয়ানরা?

নাবিল মাহমুদ নামের এক বিশিষ্ট কমেডিয়ান জানান, ‘আমরা তো চেষ্টা করতে কোন ত্রুটি রাখছি না। আমরা যে স্পটটিতে কমেডির শ্যুটিং করি, সেখানে লাফিং গ্যাস পর্যন্ত মিশিয়ে দিচ্ছি। তারপরও লোকজন হাসছে না। আমার মনে হচ্ছে অন্যকোথাও সমস্যা আছে। আমরা কমেডিয়ানরা জরুরি একটি মিটিং ডেকেছি। সময়ের প্রয়োজনেই এ ব্যর্থতার দায়ভার মাথা পেতে মেনে নিচ্ছি...’

এদিকে ফেসবুকে যেসব রম্য লেখকেরা তাদের বায়োতে 'মানুষকে হাসাই' জাতীয় কথা লিখে রাখেন তাদের একে একে রিমান্ডে আনা হয়। এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক লেখক জানান, ‘মানুষের হাহা দেখেই আমরা তাদের সুখী হিসেবে কাউন্ট করি। ভেতরে কার কী অবস্থা উই ডোন্ট কেয়ার... ’ ওই লেখক সম্পর্কে আবার আরেক লেখক বলেন, ‘আরে ওর কথা বাদ দেন। ওয় তো বট দিয়া রিয়েকশন পায়...’

৬০৫ পঠিত ... ১৮:৪৪, জুলাই ০৫, ২০২২

Top