গাউছিয়া মার্কেটে শপিং করতে আসছেন অ্যাম্বার হার্ড

৪০১ পঠিত ... ১৮:১৯, জুন ২১, ২০২২

Amber-hard-gausia

গত ১ জুন সাবেক স্বামী ও হলিউড তারকা জনি ডেপের বিরুদ্ধে ১০০ মিলিয়ন ডলারের মানহানি মামলায় হেরে যান অ্যাম্বার হার্ড। বিলাসবহুল ও আয়েশী জীবনযাপনের জন্য আগে থেকেই এ চলচ্চিত্র তারকা সুপরিচিত থাকলেও বর্তমানে তিনি মুদ্রার ওপিঠও দেখতে শুরু করেছেন।

এক গোপন সূত্র থেকে জানা গেছে, বেশ ক'দিন ধরেই মৌচাক, গাউছিয়া,নূরজাহান কমপ্লেক্সের আশেপাশের সিসি ক্যামেরায় অ্যাম্বার হার্ডের মতো কাউকে দেখা যাচ্ছে।

তবে ব্যবসায়ীরা এখনো বিশ্বাস করতে পারছেন না তিনিই আসল অ্যাম্বার হার্ড! eআরকি'র গাউছিয়া প্রতিবেদক জানান, গাউছিয়া আসার সময় অ্যম্বার হার্ড কালো বোরকা ও নিকাবে নিজেকে মুড়ে রাখেন। চোখে থাকে কালো চশমা। তবে ঢাকা কলেজের উল্টোপাশে ৫ টাকার লেবুর শরবত খাওয়ার সময়ই ব্যাপারটি প্রথম নজরে আসে প্রতিবেদকের। এরপরই অ্যাম্বারকে নিয়মিত ফলো করতে থাকেন তিনি।

এ ব্যাপারে অ্যাম্বার হার্ডের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি একদমই রাজী হননি। তবে অনুরোধের এক পর্যায়ে তিনি মুখ খোলেন। কাঁপা কাঁপা গলায় বলেন, ‘একদিন জনি ডেপ ছিলো, অনেক সম্পত্তি ছিলো, অনেক ফূর্তি করে সময় কাটিয়েছি। আজ আর কিছুই নেই, সেগুলি কেবলই স্মৃতি..তাই সস্তা দোকান খুঁজতেই বাংলাদেশে এলাম। কয়েকজন আমাকে গাউছিয়ার কথা বললো। ১৫০০ টাকার শপিং করেছি লাস্ট দিন। একটা ফেডেড জিন্স, একটা ক্রপ টপ, আর একটা অফ শোল্ডার টপ...’ এই বলে আলমারি থেকে সেগুলো নামিয়ে দেখান অ্যাম্বার। সেই মুহুর্তেই টপটপ করে চোখের পানি পড়ে নতুন জামার উপর।

তবে ফুটপাতে ‘খালি একশো’ করে চিৎকার করা এক দোকানী চমকপ্রদ করেছেন তার চিকন বুদ্ধি দিয়ে। তার ভাষ্যমতে, অ্যাম্বার হার্ড তার দোকান থেকে একশো টাকার দুটো টপস কিনেছেন। এরপরই তিনি তার ডালার সামনে অ্যাম্বার হার্ডের ছবিসহ ‘এখানে অ্যাম্বার হার্ড শপিং করতে আসেন....’ লিখে একটি প্ল্যাকার্ড টানিয়েছেন। মুহুর্তের ভেতর দোকানে উপচে পড়ে ক্রেতাদের ভীড়। ব্যবসারও উন্নতি হয় ক্রমে।

তবে আজাদ (২৭) নামের এই ব্যবসায়ী বলেন, ‘আফা এমুন গাধা। একশ টাকার জিনিস হের কাছে পাঁচশো টাকা বেঁচছি। হে ভাবছে এডাই সস্তা। মুরুক্ষু কোন জায়গার...

৪০১ পঠিত ... ১৮:১৯, জুন ২১, ২০২২

Top